আজকের দিনে



 

ছবির খাতা

জনতার ব্রিগেড

আরো ছবি

ভিডিও গ্যালারি

Video

শ্রদ্ধাঞ্জলি

 

শতবর্ষে শ্রদ্ধা

আপনার রায়

গরিবের পাশে থেকেছে বামফ্রন্টই

হ্যাঁ
না
জানি না
 

ই-পেপার

  • image1409650232.jpg
  • image1409487915.JPG
  • image1409410870.
  • image1409240483.jpg
  • image1408984471.jpg
  • image1408549745.jpg

পাটনা, ১লা সেপ্টেম্বর- বলা যেতে পারে, আট শতাব্দী পেরিয়ে ফের জেগে উঠলো নালন্দা বিশ্ববিদ্যালয়। সোমবার নবরূপে নালন্দা বিশ্ববিদ্যালয়ে পঠনপাঠন শুরু হলো। তবে, এখনও তৈরি হয়নি নিজস্ব ক্যাম্পাস। তাই রাজগীরের কনভেনশন সেন্টারেই শুরু হলো ক্লাস।...

>>>

টোকিও, ১লা সেপ্টেম্বর- জাপান সফরে গিয়ে আরেক প্রতিবেশী চীনকেই কটাক্ষ করলেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। নাম না করেও চীনকে ‘বিস্তারবাদী’ বা আগ্রাসনবাদী বলে চিহ্নিত করলেন তিনি। জাপান ও ভারতের বাণিজ্য প্রতিনিধিদের সঙ্গে এক সভায়...

>>>

নিজস্ব সংবাদদাতা : কীর্ণাহার, ৩১শে আগস্ট- কে বিশ্বাস করে তৃণমূল নেত্রীকে ? এরাজ্যে বি জে পি-কে এনেছিলেন তো উনিই। পা রাখার জন্য পিঠ পেতে দিয়েছিলেন তিনি। তিনি ছিলেন কেন্দ্রের বি জে পি জোট সরকারের মন্ত্রী। পশ্চিমবঙ্গে বি জে পি-কে আনতে কী রাজনীতিটাই না করেছিলেন তিনি...

>>>

বিশেষ সংবাদদাতা: নাগপুর, ৩১শে আগস্ট- দেশব্যাপী যৌথ আন্দোলনের পথে যাচ্ছে কয়লা শিল্পের ট্রেড ইউনিয়নগুলি। রবিবার নাগপুরে পাঁচটি কেন্দ্রীয় ফেডারেশনের কনভেনশন থেকে কয়লাশিল্পে বিরাষ্ট্রীয়করণ, বিলগ্নী রুখতে জোরালো আন্দোলনের কর্মসূচী নেওয়া হয়েছে।...

>>>

নিজস্ব প্রতিনিধি
কলকাতা, ১লা সেপ্টেম্বর— যত তীক্ষ্ণ হবে যুদ্ধবাজদের নখ-দাঁত, ততই দৈর্ঘ্যে বাড়বে যুদ্ধবিরোধী শান্তি মিছিল। কল্লোলিনীর রাজপথ কাঁপানো লাখো মানুষের প্রতিবাদী মিছিল আরও একবার গর্জে উঠে জানান দিলো সাম্রাজ্যবাদ বিরোধিতায় বামপন্থীদের বিকল্প নেই। সোমবারের মহামিছিল আরও স্পষ্ট করে জানিয়ে দিল প্রতিকূলতাই এই লড়াইয়ের শক্তি জোগায়। মাথার ওপর জমাট বাধা মেঘও থমকে গেলো। বর্ষণসিক্ত আকাশ মাথায় নিয়েই ১লার দুপুরে কল্লোলিনীর রাজপথ বইবে লাখো মানুষের মহামিছিল —এমন অমোঘবার্তা জানান দেওয়া হয়েছিল আগাম। সোমবার দুপুর ২টো বাজার ঠিক পাঁচ মিনিট আগেই রামলীলা ময়দানের মাথার ওপর নেমে এলো ভারী বর্ষণ। দূরবর্তী স্থান থেকে মিছিলগামীরা এসে পৌঁছেছিলেন বেশ খানিকটা আগেই। জড়ো হওয়া বামপন্থী মানুষ কিছুটা ছত্রখান হয়ে গেলো মিছিল শুরুর ঠিক আগেই। বৃষ্টি থামেনি। শুধু বর্ষণের প্রাবল্য কমেছে কিছুটা। তারমধ্যেই ভেজা শরীর নিয়ে রাজ্য বামফ্রন্টের চেয়ারম্যান বিমান বসু এগিয়ে এসে মিছিলের মুখে চলে এলেন। সঙ্গে এলেন বামদলগুলির নেতৃবৃন্দ। তারপরই শুরু হলো মহামিছিলের লম্বা ফেস্টুন বুকের সামনে নিয়ে বামফ্রন্ট নেতৃত্বের পথচলা। শিয়ালদহ উড়ালপুলের মাথায় উঠতেই বর্ষণে রণে ভঙ্গ দিলো মাথার ওপরের জমাট মেঘ। এরপর প্রায় ৭কিলোমিটার দীর্ঘ পথে বৃষ্টি না থাকলেও দেশবন্ধু পার্কের সভা চলাকালীন মাঝেমধ্যে ঝিরঝিরে বৃষ্টি নেমে এলেও তা বাধা হতে পারেনি এদিনের যুদ্ধবিরোধী কর্মসূচীতে।...

>>>

সাম্রাজ্যবাদের বিরুদ্ধে বামপন্থীদের লড়াই চলবেই

মহামিছিলের শেষে বললেন নেতৃবৃন্দ

নিজস্ব প্রতিনিধি
কলকাতা, ১লা সেপ্টেম্বর— রাজনৈতিক ও কর্পোরেট দোসর খুঁজে নিয়ে সাম্রাজ্যবাদী শক্তি ভারতের মতো তৃতীয় বিশ্বের দেশে দেশে ঢোকার চেষ্টা করছে বলে সতর্ক করলেন বামফ্রন্ট চেয়ারম্যান বিমান বসু। সোমবার কলকাতায় লক্ষাধিক মানুষের মহামিছিল শেষে শ্যামবাজারের দেশবন্ধু পার্কের সামনে সমাবেশে তিনি একথা বলে আহবান জানিয়েছেন, সাম্রাজ্যবাদের বিরুদ্ধে লড়াই একদিনের মহামিছিলে শেষ হবে না, পুঁজিবাদের শোষণ বঞ্চনার বিরুদ্ধে মানুষের লড়াইকে সাম্রাজ্যবাদ-বিরোধী সংগ্রামের সঙ্গে মিশিয়ে লড়তে হবে। কারণ শোষণ বঞ্চনার পিছনে রয়েছে সাম্রাজ্যবাদের হাত। এই সমাবেশেই বিরোধী দলনেতা এবং সি পি আই (এম)-র পলিট ব্যুরো সদস্য সূর্যকান্ত মিশ্র বলেছেন, সাম্রাজ্যবাদী শক্তিগুলি শুধু যুদ্ধই করছে না, তারা তৃতীয় বিশ্বের দেশগুলির মাটির তলার জল থেকে শুরু করে খনিজ সম্পদ, জমি, আকাশ সব কিছু দখল করে নিচ্ছে। এসত্ত্বেও কেউ কেউ চোখে ঠুলি এঁটে সাম্রাজ্যবাদের বিপদকে দেখতে পাচ্ছেন না। কিন্তু বামপন্থীরা এই বিপদকে বুঝতে পারছে বলেই দুনিয়ার একনম্বর শত্রু হিসাবে সাম্রাজ্যবাদকেই চিহ্নিত করে লড়াই চালিয়ে যাবে।...

>>>

প্রভাবশালী দু’জন এবার গ্রেপ্তার হতে চলেছেন

তদন্তে অসহযোগিতা, জানালেন সি বি আই অধিকর্তা

নিজস্ব প্রতিনিধি
কলকাতা, ১লা সেপ্টেম্বর- সোমবার সারদা কেলেঙ্কারির তদন্তে সম্ভবত সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নিল কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা সি বি আই। দিল্লিতে সি বি আই সদর দপ্তরে সংস্থার অধিকর্তা রঞ্জিত সিনহা্‌র সঙ্গে বৈঠকে এখনও পর্যন্ত সারদা তদন্তের সমস্ত রিপোর্ট পেশ করেছেন সি বি আই’র যুগ্ম অধিকর্তা রাজীব সিং। বৈঠক শেষে এদিন রাতে সি বি আই অধিকর্তা রঞ্জিত সিনহা তাৎপর্যপূর্ণভাবে ফোনে জানান, ‘ তদন্তের গতি বজায় থাকবে, জেরা ও তল্লাশিতে আরও জোর দেওয়া হবে। নির্দিষ্ট ভাবে দু’জন ব্যক্তি তদন্তে সহযোগিতা করছেন না, এবার তাঁদের গ্রেপ্তার করা হবে’।...

>>>