তিন জলপ্রপাতের গপ্পো

সুরঞ্জনা ভট্টাচার্য

২০ নভেম্বর, ২০১৬

বেড়াতে যাওয়ার কথা বললেই যখন সিকিম থেকে সিঙ্গাপুরের নাম এক নিঃশ্বাসে বলা যায় তখন হঠাৎ করে ‘রাঁচি যাব’ ভাবাটাই একটা মস্ত পাগলামি। তবু পুজোর কটা দিন তেমনি একটা পাগলামির সিদ্ধান্ত নেওয়া গেলো। আর শেষ পর্যন্ত অষ্টমীর রাতে রাঁচির উদ্দেশ্যে ট্রেনে ওঠা। রাঁচি-হাতিয়া এক্সপ্রেস রাত ১০টা নাগাদ ছাড়লো। পরের দিন ভোর ৬টায় রাঁচি স্টেশন।...

বিস্তারিত বিবরণ >>

অন্য রেগিস্থান

শুভজিৎ দাস

২৭ নভেম্বর, ২০১৬

শীতের আমেজে বেশ লাগবে মরুরাজ্য, এই ভেবেই গত বছর এই সময়েই পৌঁছেছিলাম রাজস্থান। যদিও দিনে বেশ গরম, তাহলেও এইসময় রাজস্থান ঘুরে নেওয়া যায়। হাওড়া থেকে ট্রেনে বিকানীর পৌঁছেছিলাম আমরা। সেখান থেকে জয়সলমের, যোধপুর, কুম্ভলগড়, উদয়পুর, চিতোর, আজমের, পুস্কর, ভরতপুর কেওলাদেও ন্যাশনাল পার্ক হয়ে আমাদের সফর শেষ হয়। দীর্ঘ এই সফরের অভিজ্ঞতা স্বল্প পরিসরে লেখার উপায় বা ইচ্ছে- কোনোটাই নেই।...

বিস্তারিত বিবরণ >>

অপরূপ শেষ নাগ

অমৃতকুমার দাস

২৮ ফেব্রুয়ারী, ২০১৬

অমরনাথ তীর্থ-যাত্রার প্রথাগত পথের প্রায় মা‍ঝ‍‌পথে প্রায় শেষনাগ। জম্মু-কাশ্মীর প্রদেশের ম্যাপের প্রায় মাঝামাঝি এর অবস্থান। সমুদ্র পৃষ্ঠ থেকে শেষনাগের উচ্চতা প্রায় ১১৭৩০ ফুট বা ৩৫৭৫ মিটার। প্রকৃতির এক অপরূপ রূপ নিয়ে তীর্থযাত্রীদের আবাহন জানানোর জন্য অপেক্ষায় থাকে শেষনাগ। অমরনাথ তীর্থ-যাত্রার জন্য জুলাই ও আগস্ট এই দুই মাস সময় বরাদ্দ থাকে।...

বিস্তারিত বিবরণ >>

কালাপানি পেরিয়ে

শিখা দাশ

১৪ ফেব্রুয়ারী, ২০১৬

Image

+

বহুদিন থেকে আগ্রহ ছিল। কিন্তু সময়, সুযোগ আর অর্থাভাবে হয়ে উঠছিল না। অবশেষে সব বাধা দূরে ঠেলে কলকাতাস্থিত নেতাজী-সুভাষ বসু বিমানবন্দর থেকে স্বামীসহ আমি এবং আমার দাদা-বৌদি গত ২৪শে অক্টোবর, স্পাইসজেট-এ চেপে বসলাম। দুপুর ১২টা ১০মিনিটে উড়ান ছেড়ে ২ঘণ্টা ১৫মিনিটে পোর্টব্লেয়ার (বীর সাভারকর বিমানবন্দর)-এ পৌঁছালো। বিমানবন্দরের বাইরে দেখি আমাদের সাদর অভ্যর্থনায় ট্রাভেল এজেন্সির প্রতিনিধি টাটাসুমো নিয়ে অপেক্ষায়।...

বিস্তারিত বিবরণ >>

তিস্তার উৎস সন্ধানে

ছবি ও লেখা: ঋত্বিক দাস

১০ জানুয়ারী, ২০১৬

Image

+

ভ্রমণ করতে গিয়ে যারা নির্মল সৌন্দর্যে ভাসতে চান তাদের অবশ্যই একবার চোলামের লেকে যাওয়া উচিত। উত্তর সিকিমের এই লেক নেই। তবে জায়টা দুর্গম আর মিলিটারি দ্বারা নিয়ন্ত্রিত। অতএব ওখানে যেতে হলে সেনাবাহিনীর অনুমতি অবশ্যই চাই।...

বিস্তারিত বিবরণ >>

নিরালা ইয়াকতেন

লেখা : শুভজিৎ ভট্টাচার্য

৯ জানুয়ারী, ২০১৬

Image

+

ছবি : অপর্ণা দে

সিল্করুট বেড়িয়ে আমাদের নয় সদস্যের দল গ্যাংটক পৌঁছুতে দুপুর গড়িয়ে গেল। পরদিন ঝকঝকে রৌদ্রজ্জ্বল সকালে মশলা ধোসা ব্রেকফাস্ট সেরে, গ্যাংটক ডিজেল পাম্প হাউসের কাছাকাছি জিপ স্ট্যান্ড থেকে গাড়ির মাথায় লটবহর চাপিয়ে রওনা হলাম ইয়াকতেনের পথে। পূর্ব সিকিমের এক অপরিচিত ও নতুন ঠিকানা।...

বিস্তারিত বিবরণ >>

বাঘের ডেরায়

তিয়াষী বিশ্বাস

২৫ আগস্ট, ২০১৩

Image

+

রাত প্রায় ১০টা জঙ্গলের একাকিত্ব সৌন্দর্য উপভোগ করছি নাগজিরার লতাকুঞ্জ ফরেস্ট বাংলোর বারান্দায় বসে। হঠাৎ সেই নিস্তব্ধতা ভেঙে গগনভেদী আওয়াজ। চমকে উঠলাম আমরা সকলেই। লেঙ্গুরের দাপাদাপি, হিস্‌হিস্‌ শব্দ। জঙ্গল থেকে ভেসে আসতে লাগল হরিণ, সম্বর, ময়ূরসহ নানান জন্তুর চীৎকার। এত শব্দ, কানে তালা লাগার উপক্রম। গাইডকাকু হন্তদন্ত হয়ে ছুটে এসে বলল, আপলোগ গেস্ট হাউসসে মত্‌ নিকলিয়ে। জঙ্গল মে অভি কলিং চালু হ্যায়, লাগতা হ্যায় শের নিকলা শিকার কে লিয়ে। কোর এলাকার এই বাংলোয় সোলার এনার্জিতে কয়েকটা আলো জ্বলছে। এছাড়া অগণিত তারার আলোতে আলোকিত চারিপাশ। আচমকাই সব শব্দ থেমে গেল, নিজেদের নিশ্বাসের শব্দ ছাড়া আর কোনও শব্দ নেই।...

বিস্তারিত বিবরণ >>

আদিমতার ঘ্রাণ নিতে

তীর্থঙ্কর বিশ্বাস : ছবি - তিয়াষী বিশ্বাস

১১ নভেম্বর, ২০১২

Image

+

‘পেনচ’ বেড়াতে যাওয়ার পরিকল্পনা করে চারমাস আগেই টিকিট কেটেছি ট্রেনের। ১৯শে অক্টোবর রওনা দেব। এরমধ্যে সুপ্রিম কোর্টের নিষেধাজ্ঞা ব্যাঘ্র প্রকল্পের কোর এলাকায় সাধারণ মানুষের প্রবেশ বন্ধ। নিষেধাজ্ঞা শিথিল করার জন্য বিভিন্ন রাজ্য সরকার সহ বিভিন্ন মহল থেকে অনুরোধ উপরোধ। তা না হলে পুজোর সময়ে ট্যুরিজমের ব্যবসা মার খাবে। সেপ্টেম্বর মাস চলে গেল এখনও পেনচ-এ থাকার বন্দোবস্ত করা যায়নি।...

বিস্তারিত বিবরণ >>

চুপটি করে ঢুঁ মারার ঠিকানা

লেখা ও ছবি : অলক বিশ্বাস

১১ নভেম্বর, ২০১২

Image

+

ভালকির জঙ্গল। নীল আকাশের নিচে শাল, পিয়ালের রাজ্য। শেষ কার্তিকের এই বেলায় তাকে আরও রাঙিয়ে দিয়েছে সোনাঝুরি ফুল। এক পৃথিবী সবুজের মধ্যে বিস্তৃত হলুদের গোলা। এখানেই চোখ থমকে দাঁড়ায়। দুপুরের কার্তিক আছড়ে পড়ায় আরও উজ্জ্বল সবুজ হয়েছে বন। কলকাতার কাছাকাছি হাতের কাছেই গাছেদের সাথে ভয়হীন দৌড়ে বেড়ানোর এই ঠিকানাটি কিন্তু বেশিরভাগ বাঙালীর অজানা। এমনকি খোদ বর্ধমান জেলার অনেকেই জানেন না নিজেকে উজাড় করে এখানে দু’দিন হারানো যায়। এবং তা বেশ নিশ্চিন্তেই।...

বিস্তারিত বিবরণ >>

বাদামী পাহাড়ে রোদ্দুর

অলক বিশ্বাস

১২ ফেব্রুয়ারী, ২০১২

Image

+

বেড়ো পাহাড়। ট্রেকিংয়ের নতুন ঠিকানা। নীল জলরাশির কোলে প্রকৃতির তাজমহল। কোলাহলহীন স্নিগ্ধ পরিবেশ। প্রাণবন্ত গ্রাম। টুঁ শব্দটিও যেন বেজে ওঠে কী শান্ত জনজীবনে। এঁকেবেঁকে চলে যাওয়া পাকা রাস্তার কোল ঘেঁষে মানুষের বাড়ি। বাঁধের জল যেতে যেতে ভিজিয়ে দেয় পাহাড়ের পাদদেশ। কম করেও ৪৫০ হেক্টর কৃষিজমি। তারপর গিয়ে পড়ে সোজা দামোদরে। স্থানীয় বাসিন্দারা তাই বলেন, এই জলেই সবুজ হয়েছে রুক্ষ পাথুরে জমি। এজলেই পুষ্ট হয়েছে ভাদুগান। হৃদয়ের প্রার্থনায় কিংবদন্তী বেড়ো। আজও আছে সেভাবেই প্রেম হয়ে। খোঁজ খবর পেলে পাহাড় প্রেমিকেরা দেখে আসেন ঝোপ ঝোপ গাছে ঘেরা এই বাদামী পাহাড়কে। উবু হয়ে শুয়ে থাকা রোদ্দুরের দেশ। মহকুমা শহর রঘুনাথপুর থেকে দূরত্ব মাত্র ১০ কিমি।...

বিস্তারিত বিবরণ >>

পৃষ্ঠা :   1 | 2 | 3 |

Featured Posts

Advertisement