আপনার জন্য লাল কার্ড

চন্দন দাস

২৪ এপ্রিল, ২০১৬

Image

+

গণদেবতার হাতে আপাতত লাল কার্ড। মমতা ব্যানার্জির জন্য। আর ঢাক তৈরি। ঘরে ঘরে। হৃদয়ের উঠোনে। সেই ঢাকের জন্যই আগে কার্ড। দেখাতেই হবে তৃণমূল কংগ্রেসকে। কোটি কোটি কলজে সে’ কথাই বলছে। তাই রাজ্যে এখন পালটা পোস্টার পড়ছে, ‘‘চোরেরাই জানে লালে বিপদ।’’

বিস্তারিত বিবরণ >>

পরিত্রাণ চাই

শেখ শুভোদয়

১৭ এপ্রিল, ২০১৬

Image

+

১. কার জন্যে?

মেয়েটির নাম শাহ্‌নাজ।

গ্রামের নাম আটপুকুর। মিনাখাঁ ব্লক। থানা হাড়োয়া।

শাহ্‌নাজের বাবা শিক্ষক, বামপন্থী কর্মী। ২০০৮ সালে পঞ্চায়েত নির্বাচনে শাহ্‌নাজদের এলাকায় বামপন্থীদের বিপর্যয় ঘটে। তারপর থেকেই ঘরছাড়া কমরেড আলাউদ্দিন মোল্লা এবং তাঁর বেশ কয়েকজন সহযোদ্ধা।...

বিস্তারিত বিবরণ >>

জল নেই, খাবার নেই
১১-১২ ঘন্টা ওরা বুথে

মধুসূদন চ্যাটার্জি

১৭ এপ্রিল, ২০১৬

বাঁকুড়া : এখানে বন্দুক হাতে দাঁড়িয়ে আপনারা কি মজা দেখছেন?

বাংলা বুঝতে না পারা আধাসামরিক বাহিনী সি আর পি এফের জওয়ানরা অন্যদিকে মুখ ফিরিয়ে দাঁড়িয়ে আছেন। ‌ভাঙা হিন্দিতে ফের একই কথা বলায় তারা জানান এখানে ভোটের ডিউটি করতে এসেছি।...

বিস্তারিত বিবরণ >>

ঘর পুড়ে ছাই হলো, বুথ আগলে
রইলেন প্রতিবন্ধী দুর্গাদাস

দেবদাস ভট্টাচার্য

১৭ এপ্রিল, ২০১৬

হাড় জিরজিরে দু’বেলা পেট পুরে না খেতে পাওয়া দিনমজুর বেলা কেওড়াদের সাহসী গাথাকে সেলাম জানাচ্ছে রানিগঞ্জ শিল্পাঞ্চল। শাসকদলের প্রতাপের সঙ্গে অসম এক যুদ্ধের বিজয়িনীরা সাহসে বুক বাঁধতে শেখালো। জেগে উঠতে গেলে সাহস লাগে। আর জেগে ওঠা মানুষকে দমিয়ে রাখা যায় না, এটা আরো একবার প্রমাণ হয়ে গেলো নির্বাচনের দিন রানিগঞ্জে।...

বিস্তারিত বিবরণ >>

তৃণমূলী অসভ্যতার মধ্যেই বিকেল
পর্যন্ত বুথে রইলেন আনজুরা বিবি

চিন্ময় রায়

১৭ এপ্রিল, ২০১৬

মেদিনীপুর : মুখ্যমন্ত্রীর আবদার নারায়ণগড় ও সবং চাই। তবে মুখ্যমন্ত্রী পদে থেকে নারায়ণগ‍‌ড়ে এসে যে তার বড়া খাওয়া হবে না, তা নিশ্চিত হয়ে গেছে। তার আবদারের সুতো কেটে দিয়েছে জনগণ, এখন শুধু ঘোষণার অপেক্ষা।

শেষবেলায় এসে নারয়ণগড় আর সবংয়ের ‘আবদার’ আসলে ছিল দলের কর্মীদের কাছে নির্দেশ।...

বিস্তারিত বিবরণ >>

তোলাবাজির বোড়ে

স্বর্ণেন্দু দত্ত

১০ এপ্রিল, ২০১৬

দেওয়ালে দলনেত্রী, করজোড়ে পরিচিত ভঙ্গিমায়। মেঝে ভেসে যাচ্ছে তাজা রক্তে।

বি টি রোডের উপর পানিহাটি স্বদেশী মোড়ে তৃণমূল অফিসের এই ছবি দেখে শিউরে উঠেছিলেন মানুষ। বছর দুয়েক আগে দলের কর্মী বাপ্পা বলকে গুলি করে, কুপিয়ে খুন করে তৃণমূল দুষ্কৃতীরাই। সিন্ডিকেটের ভাগ-বখরা নিয়ে বিরোধের জেরেই বিধায়ক অনুগামীরা তাকে খুন করে, এমনই অভিযোগ।...

বিস্তারিত বিবরণ >>

নতুন ইতিহাস গড়ার
পথে বাংলার মানুষ

সূর্য মিশ্র

১৩ মার্চ, ২০১৬

Image

+

পশ্চিমবঙ্গে বিধানসভা নির্বাচনের দিনক্ষণ ঘোষণা হয়ে গেছে। একটা সাধারণ বোঝাপড়ার ভিত্তিতে এবারে আমরা এই নির্বাচনী লড়াইতে শামিল হয়েছি। এবিষয়ে আমাদের বোঝাপড়া স্পষ্ট থাকা প্রয়োজন।

আজকের এই পরিস্থিতিতে আমাদের পার্টির কলকাতা প্লেনামের মূল আহ্বান হচ্ছে — আমরা একটা গণবিপ্লবী পার্টি তৈরি করতে চেয়েছিলাম। এই সময়ে পার্টি প্রসারিত হয়েছে ঠিকই। কিন্তু তার গণভিত্তি সেভাবে প্রসারিত হয়নি। আমরা সেইজন্য স্লোগান দিয়েছি —একটা বিপ্লবী পার্টি গড়ে তোলা, যার ভিত্তি হচ্ছে মাস লাইন বা গণভিত্তি। আমরা কী ভাবি, কী নিয়ে আলোচনা করি, কী নিয়ে তর্ক করি, সেগুলিই যথেষ্ট নয়। মার্কসবাদ, লেনিনবাদ—এগুলি স্বতঃস্ফূর্তভাবে মানুষের মধ্যে ফুটে ওঠে না। মানুষের মধ্যে চেতনা নিয়ে যেতে হয়। এটা পার্টির কাজ।...

বিস্তারিত বিবরণ >>

ডাউন কর্মভূমি এক্সপ্রেস

জয়দীপ সরকার

২৮ ফেব্রুয়ারী, ২০১৬

অনেক কসরত করে একজনের পেট ফুঁড়ে ভিড় ঠেলে বহু কষ্টে মাথাটা এলো জানালার কাছে। জানালার ওপার থেকে শীর্ণ একটা হাত সেই মাথাটাকেই আঁকড়ে ধরলো পরমস্নেহে। ওপারে মা, ভেতরে ছেলে, দুজনেই তখন অঝোর ধারায় কেঁদে চলেছেন। ভেতর থেকে মায়ের উদ্দেশ্যে শব্দ ভেসে এলো, ‘‘আরে চাচী কেন্দো না, পরথম বার মুন খারাপ লাগে। পরে দেখবা বেটা যখন দাঁড়িয়ে যাবে না, তখন মনে সুখ পাবা। যাও ঘর চলি যাও।’’।।।

বিস্তারিত বিবরণ >>

জিগির বনাম যুক্তি

শুদ্ধসত্ত্ব গুপ্ত

২৯ ফেব্রুয়ারী, ২০১৬

সপ্তাহ পার হয়ে গেলো। কেন কানহাইয়া কুমার রাষ্ট্রদ্রোহী আদালতে তার একছিটে প্রমাণও হাজির করা যায়নি। অথচ, জওহরলাল নেহরু বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্র সংসদের সভাপতি দিনের পর দিন জেলে। ...

বিস্তারিত বিবরণ >>

কন্যার শ্রী কোথায়?

মধুজা সেনরায়

১৪ ফেব্রুয়ারী, ২০১৬

Image

+

কামদুনির ঘটনার প্রতিবাদে মিছিল। সংবাদমাধ্যমের সতর্ক দৃষ্টি এড়িয়ে ওরা চারজন এসেছিল। ওদের কেউ আসতে বলেনি, এসেছিল নিজেরাই।

ওরা কামদুনির নির্যাতিতার বান্ধবী। প্রাথমিক আলাপের রেশ কাটার পর বলেছিল, আমরা আজ লুকি‍‌য়ে মিছিলে এসেছি। আমাদেরকে আর গ্রামে রাখতে চাইছে না বাবা-মা। এই ঘটনার পর বাড়ি থেকে বলছে, খুব তাড়াতাড়ি‍‌ বিয়ে দিয়ে দেবে। মা বলেছে তোকে দেখতে না পেলে কষ্ট হবে ঠিকই- কিন্তু তুই ইজ্জত নিয়ে বাঁচ।...

বিস্তারিত বিবরণ >>

Featured Posts

Advertisement