আজকের দিনে



 

ছবির খাতা

জনতার ব্রিগেড

আরো ছবি

ভিডিও গ্যালারি

Video

শ্রদ্ধাঞ্জলি

 

শতবর্ষে শ্রদ্ধা

আপনার রায়

গরিবের পাশে থেকেছে বামফ্রন্টই

হ্যাঁ
না
জানি না
 

ই-পেপার

Back Previous Page

বৃষ্টিপাতে ঘাটতি, দেশে খরার
মতো পরিস্থিতি এবার

নয়াদিল্লি, ২রা আগস্ট — তিন বছর পর আবার খরার মতো পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে দেশে। গুরুত্বপূর্ণ দক্ষিণ-পশ্চিম মৌসুমী বায়ুর ঘাটতিই খরার ইঙ্গিত দিচ্ছে—এমনই ধারণা আবহবিদ্‌দের।

ভারতীয় আবহাওয়া দপ্তর জানাচ্ছে, আগস্টে স্বাভাবিক বৃষ্টির সম্ভাবনা থাকলেও সেপ্টেম্বরে ‘এল নিনো’ (মধ্য প্রশান্ত মহাসাগরে উষ্ণতা)-র পরিস্থিতি তৈরি হতে পারে। এর জেরে ঐ মাসে স্বাভাবিকের থেকে অনেক কম বৃষ্টি হবে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। বর্ষার পূর্বাভাষ জানাতে গিয়ে আবহাওয়া দপ্তর বলছে, জুন থেকে সেপ্টেম্বর—এই গোটা দক্ষিণ-পশ্চিম মৌসুমী বায়ুর সময়কালে মরসুমী বৃষ্টিপাতে ঘাটতি দেখা দেবে বলেই মনে করছেন আবহবিদ্‌রা। এর হার ৯০শতাংশের কমই হবে—এমনই বলছেন তাঁরা। এবারে তা ৮৮-৮৯শতাংশ হতে পারে। ভারতীয় আবহাওয়া দপ্তরের ডিরেক্টর জেনারেল লক্ষ্মণ সিং রাঠোর যেমন জানালেন, ‘‘আগস্টে ভালো বৃষ্টিপাত হবে বলেই মনে করছি আমরা। মাসের গোড়ার দিকে সমস্যা না হলেও শেষের দিকে বৃষ্টিপাতে ঘাটতি দেখা দিতে পারে।’’ পরিসংখ্যান বলছে, চার মাসের বর্ষার মরসুমে এবার প্রথম দুই মাস অর্থাৎ জুন এবং জুলাইয়ে স্বাভাবিকের থেকে ১৯শতাংশ বৃষ্টিপাত কম হয়েছে। বৃষ্টিপাতের এই ঘাটতির ধারা বজায় থাকলে আবহবিদ্‌রা মনে করছেন, এবার দেশের মানুষ ২০০২ বা তার থেকে মারাত্মক ১৯১৮সালের মতো খরা পরিস্থিতির মুখোমুখি হতে পারে। ২০০২সালে এবারের মতো ঐ দুই মাসে ঠিক ১৯শতাংশ এবং ১৯১৮সালে ২৮শতাংশ ঘাটতি দেখা দিয়েছিল বৃষ্টিপাতে। আবার ২০০৯সালে খরা হয়েছিল দেশে। সেই বছর বৃষ্টিপাতের সামগ্রিক ঘাটতি ছিল ২৩শতাংশ।