হিন্দু রাষ্ট্রের লক্ষ্যেই
মুখ্যমন্ত্রী যোগী

হিন্দু রাষ্ট্রের লক্ষ্যেই <br>মুখ্যমন্ত্রী যোগী
+

নিজস্ব প্রতিনিধি: হায়দরাবাদ, ১৯শে মার্চ— ভারতকে হিন্দু রাষ্ট্রে রূপান্তর করতে চায় বি জে পি এবং আর এস এস। যোগী আদিত্যনাথকে মুখ্যমন্ত্রী করে স্পষ্ট সেই বার্তাই দিয়েছে তারা। রবিবার হায়দরাবাদে এক সুবিশাল সমাবেশে একথা বলেছেন সি পি আই (এম) সাধারণ সম্পাদক সীতারাম ইয়েচুরি। একইসঙ্গে আর এস এস-বি জে পি আদিত্যনাথকে মুখ্যমন্ত্রী করে এই বার্তাও দিয়েছে যে অনগ্রসর অংশ, সংখ্যালঘু এবং নিপীড়িতদের উঁচুজাতের নেতৃত্ব মেনে নিতে হবে। আদিত্যনাথ প্রসঙ্গে বি জে পি-কে কড়া ভাষায় আক্রমণ করে ইয়েচুরি বলেন, মুসলিমদের বিরুদ্ধে ঘৃণা না উগরে আদিত্যনাথের মুখ বন্ধ হয় না। এইরকম ব্যক্তিকে মুখ্যমন্ত্রী করে বি জে পি- আর এস এস হিন্দু রাষ্ট্রের খোলাখুলি বার্তা দিলো। 
রবিবার হায়দরাবাদের সারুর নগর স্টেডিয়ামে দু’ লাখের বেশি মানুষের উপচে পড়া সমাবেশে বি জে পি- আর এস এসের উপর তীব্র আক্রমণ শানান সি পি আই (এম) সাধারণ সম্পাদক। ইয়েচুরি বলেন, কেন্দ্রে বি জে পি সরকার আসার পর থেকেই দেশজুড়ে সমাজের দুর্বল অংশ এবং সংখ্যালঘুদের উপর আক্রমণ বেড়ে গেছে। পার্টির পলিট ব্যুরো সদস্য এবং কেরালার মুখ্যমন্ত্রী পিনরাই বিজয়নও আদিত্যনাথকে মুখ্যমন্ত্রী করা নিয়ে আর এস এস- বি জে পি’র কড়া সমালোচনা করেন। বিজয়ন বলেন, আদিত্যনাথ সব সময় সাম্প্রদায়িক হিংসা, দাঙ্গা, অসহিষ্ণুতা এবং ঘৃণা ছড়িয়েছেন। সাম্প্রদায়িক হিংসা এবং অপরাধের মামলা রয়েছে এমন ব্যক্তিকে মুখ্যমন্ত্রী করে বি জে পি বার্তা দিলো যে সাম্প্রদায়িক হিংসা ছড়িয়েই তারা ক্ষমতা দখলের চেষ্টা চালাবে। সমাবেশ মঞ্চে অন্যদের সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন অধ্যাপক কে ইল্লাইয়া এবং চারণ কবি গদর প্রমুখ। 
তেলেঙ্গানায় পাঁচ মাস ধরে বিভিন্ন দাবিদাওয়া নিয়ে ৪হাজার কিলোমিটারের বেশি পদযাত্রা করেছে সি পি আই (এম)। পদযাত্রার নেতৃত্ব দিয়েছেন সি পি আই (এম) তেলেঙ্গানা রাজ্য সম্পাদক টি বীরভদ্রম। এই পদযাত্রায় হাজারো গ্রামে পৌঁছেছে পদযাত্রা। গ্রামে গ্রামে মানুষের সমস্যাগুলি নথিভুক্ত করেছে পদযাত্রা। দলিত, অনগ্রসর অংশ সহ সমাজের প্রান্তিক মানুষের দাবি তুলে ধরা হয়েছে পদযাত্রার মাধ্যমে। রবিবার সেই পদযাত্রা পৌঁছায় হায়দরাবাদে। পদযাত্রার সমাপ্তি অধিবেশন উপলক্ষেই এই সুবিশাল সমাবেশ হয়েছে। 
বিজয়ন বলেন, তেলেঙ্গানার মানুষকে এই বিশাল পদযাত্রাকে স্বাগত জানানোর জন্য অভিনন্দন জানাচ্ছি। সামাজিক ন্যায় প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে তেলেঙ্গানা রাজ্য কমিটি একটি বিকল্প পরিকল্পনাও তৈরি করেছে। এই পরিকল্পনাটি রাজ্য সরকার বিবেচনা করুক, এটাই আমরা চাই। তিনি বলেন, রাজ্যের বিরাট অংশের মানুষ উন্নয়নের আওতার বাইরে রয়ে গেছেন। বিপুল এই অংশকে উন্নয়নের মধ্যে আনার জন্যেই সি পি আই (এম) যে পরিকল্পনা তৈরি করেছে তাকে কার্যকর করা প্রয়োজন। নোট বাতিলের ফলে মানুষ যে তীব্র সংকটের মধ্যে পড়েছেন তারজন্য মোদী সরকারকে চাঁচাছোলা ভাষায় আক্রমণ করেন তিনি। বিজয়ন বলেন, এই বিপর্যয় সম্পূর্ণ মানুষের তৈরি। গুজরাট কালো টাকা এবং জাল নোটের হাব বলেও তিনি আক্রমণ করেন। রেগার বিপুল পরিমাণ টাকা বকেয়া রয়েছে বলেও তিনি অভিযোগ করেন। 
সীতারাম ইয়েচুরি বলেন, দীর্ঘ এই পদযাত্রার সঙ্গে একমাত্র মাও জে দঙের নেতৃত্বে লঙ মার্চের মিল রয়েছে। রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী সোনার তেলেঙ্গানা গড়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন। কিন্তু তিনি প্রতিশ্রুতি রাখতে ব্যর্থ হয়েছেন। আমরাই তেলেঙ্গানার সশস্ত্র সংগ্রাম করেছিলাম। যার ফলে ভূমিসংস্কারের বিষয়টি গোটা দেশে ইস্যু হয়েছিল। তিনি বলেন, যে সামাজিক ন্যায়বিচারের দাবি নিয়ে আমরা আন্দোলন করছি তা পূরণ না হওয়া পর্যন্ত আমাদের সংগ্রাম চলতে থাকবে। বি জে পি-কে তীব্র আক্রমণ করে বলেন, মানবাধিকার রক্ষার বদলে গোরুর অধিকার রক্ষায় আইন তৈরি বি জে পি-র অগ্রাধিকার। গোটা দেশে দলিত যুবকদের ওপর গোরক্ষার নামে হামলা চালানো হচ্ছে। এই পরিস্থিতিতে সামাজিক ন্যায় প্রতিষ্ঠার জন্য গোটা দেশে সি পি আই (এম) তীব্র আন্দোলন গড়ে তুলবে বলে তিনি জোরের সঙ্গে ঘোষণা করেন। 

Current Affairs

Featured Posts

Advertisement