পুরানো কার্ডে
মিলবে না রেশন

জানিয়ে দিলেন খাদ্যমন্ত্রী

পুরানো কার্ডে<br>মিলবে না রেশন
+

গণশক্তির প্রতিবেদন: কলকাতা, ১১ই অক্টোবর – পুরানো কার্ডে মিলবে না রেশন। জানিয়ে দিলেন রাজ্যের খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক। বুধবার কলকাতা কর্পোরেশনে ডিজিটাল কার্ড সংক্রান্ত একটি বৈঠক শেষে মেয়র শোভন চ্যাটার্জিকে নিয়ে সাংবাদিক সম্মেলনে খাদ্যমন্ত্রী বলেন, পুরানো রেশন কার্ড বাতিল করা হচ্ছে না রাজ্যে। ওই কার্ড নাগরিকরা আধার কার্ড তৈরি, ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট খোলার মতো কাজে বৈধ নথি হিসাবে ব্যবহার করতে পারবেন। পুরানো কার্ডে মিলবে শুধু কেরোসিন তেল।

কলকাতা কর্পোরেশন এলাকায় ২লক্ষ ২৬হাজার ২৮২টি ডিজিটাল কার্ড এখনও দেওয়া হয়নি বলে স্বীকার করে নেন খাদ্যমন্ত্রী। এই কার্ড চলতি মাসের ৩১ তারিখের মধ্যে সংশ্লিষ্ট নাগরিকদের কাছে পৌঁছে যাবে বলে জানিয়েছেন মেয়র শোভন চ্যাটার্জি। ডিজিটাল রেশন কার্ড নিয়ে আলোচনা সভাতে এবারও ডাক পাননি কোনও বিরোধী দলের কাউন্সিলর।

ডিজিটাল কার্ড বিলি করা নিয়ে বিস্তর অভিযোগ। বিরোধী কাউন্সিলররা বারে বারে দাবি করেছেন এখনও বহু মানুষ ডিজিটাল কার্ড পাননি। সেই দাবিকেই এদিন কার্যত সিলমোহর দিয়েছেন খাদ্যমন্ত্রী। বুধবার কলকাতা কর্পোরেশনের অধিবেশন কক্ষে শহরে নতুন ডিজিটাল রেশন কার্ড বিলি করা নিয়ে একটি সভা হয়। এই আলোচনাসভায় উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক, মেয়র শোভন চ্যাটার্জিসহ সমস্ত বোরো চেয়ারম্যান, কর্পোরেশন ও খাদ্য দপ্তরের আধিকারিকরা। এদিন আলোচনা শেষে জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক ও শোভন চ্যাটার্জি সাংবাদিক সম্মেলন করেন।

এদিন সাংবাদিক সম্মেলনে মেয়র শোভন চ্যাটার্জি জানান, কর্পোরেশন এলাকায় ডিজিটাল কার্ড বিলি নিয়ে মূল্যায়ন করা হয় এই সভায়। প্রতি দুমাস অন্তর মূল্যায়নের জন্য আলোচনায় বসা হবে। ২লক্ষ ২৬হাজার ২৮২টি ডিজিটাল কার্ড এখনও দেওয়া যায়নি। না দেওয়ার কারণ নিয়ে অবশ্য কেন্দ্রীয় সরকারের দিকেই আঙুল তোলেন। এদিন নাগরিকদের উদ্দেশ্যে মেয়র জানান, রাজ্যের খাদ্য সাথি প্রকল্পে নাম নথিভূক্ত করতে যে যে শর্ত আছে তা পূরণ হলেই আবেদনপত্র জমা দিন। না হলে দেবেন না। কী কী করতে হবে কারা এই প্রকল্পের আওতায় আসবেন তা লিখে বিভিন্ন ভাষায় ব্যানার করা হচ্ছে। মেয়রের মন্তব্য অবশ্য একাংশ পুরানো কার্ড আছে এমন গ্রাহক রেশন পাওয়া থেকে বাদ যাওয়ার আশঙ্কা তৈরি হয়েছে।