কোহলির প্রথম
একাদশ নিয়ে ধোঁয়াশা

ঋদ্ধি, ধাওয়ানকে বাদ দিয়ে সেঞ্চুরিয়নে

কোহলির প্রথম<br>একাদশ নিয়ে ধোঁয়াশা
+

সেঞ্চুরিয়ন, ১২ই জানুয়ারি — প্রথম টেস্টে ৭২ রানে হেরেছে ভারত। শনিবার শুরু দ্বিতীয় টেস্ট। ম্যাচের আগে দুই শিবিরের হালহকিকত। 
সেঞ্চুরিয়নের পিচ
কেপটাউনের পিচ সবুজ। সঙ্গে গতি ও বাউন্স। সিরিজের দ্বিতীয় টেস্টের ভেন্যু সেঞ্চুরিয়নের পিচে ঘাস আছে। সেগুলো মরা। পিচের বাঁধন ধরে রাখতে যেটুকু প্রয়োজন। বাদামি পিচ দেখে অবাক খোদ দক্ষিণ আফ্রিকা অধিনায়ক ফাফ ডুপ্লেসি। পিচের চরিত্রের আভাস দিলেন কিউরেটর ব্রায়ান ব্লয়। জানালেন, ‘এখানে বাড়তি বাউন্স থাকবে বলে মনে হয় না। শুরুর দিকে পিচ মন্থর থাকবে। দ্বিতীয় ও তৃতীয় দিন গতি বাড়বে এবং শেষ দুদিন পিচে ফাটল দেখা যেতে পারে।’ শেষ দুদিন স্পিনাররা বাড়তি সুবিধা পেতে পারেন। কিউরেটরের কথায়, প্রথম দিন থেকেই স্পিনাররা টার্ন পাবেন, তবে শেষ দুদিন পিচ ভাঙায় বড় টার্ন হবে। 
ভারতীয় দল বাছাই
সেঞ্চুরিয়নের পিচের চেয়েও বড় চমক দ্বিতীয় টেস্টে ভারতের দল বাছাই। এদিন অনুশীলনে বাড়তি গুরুত্ব দেওয়া হলো পার্থিব প্যাটেলকে। রাহানের সঙ্গে দীর্ঘক্ষণ উইকেটকিপিং ড্রিলের পর নেটে দীর্ঘক্ষণ ব্যাটিং অনুশীলন করলেন পার্থিব।
ঋদ্ধিমান সাহাকে কার্যত দর্শকের ভূমিকায় দেখা গেল। ফেরার সম্ভাবনা প্রবল লোকেশ রাহুলের। ঋদ্ধিমান সাহার উইকেটকিপিং দক্ষতা নিয়ে কারও কোনও সংশয় না থাকলেও ব্যাট হাতে সাম্প্রতিক পারফরম্যান্স আশা জাগাতে ব্যর্থ। বর্তমানে উইকেটরক্ষণের দক্ষতার পাশাপাশি ব্যাটিংকে বাড়তি গুরুত্ব দেওয়া হয়। পার্থিবকে খেলানোর অন্য অঙ্কও কাজ করছে। পার্থিব শেষ টেস্ট খেলেছিলেন প্রায় দেড় বছর আগে ঘরের মাঠে। ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে তিন ম্যাচের মধ্যে তিন ইনিংসে ওপেনার এবং এক টেস্টে মিডল অর্ডারে ব্যাট করেন পার্থিব। ওপেনার হিসেবে তিন ইনিংসে তাঁর রান যথাক্রমে ৪২, ৬৭ নঃআঃ, ৭১। এক টেস্টে মিডল অর্ডারে ১৫। সেঞ্চুরিয়নে ধাওয়ানের পরিবর্তে পার্থিবকে ওপেনার হিসেবে খেলাতে পারলে, রোহিতকে বাদ দিতে হবে না। সহজেই দলে রাখা যাবে রাহানেকে। বিদেশে রোহিতের টেস্ট পারফরম্যান্স খারাপ। সব ফরম্যাটে সম্প্রতি ভালো ছন্দে রয়েছেন। পুল, হুক শট খেলতে পারেন। সেঞ্চুরিয়নের পিচে কার্যকর ভূমিকা নিতে পারেন রোহিত। এখানকার পরিস্থিতি অনুযায়ী অশ্বিনের সঙ্গে দ্বিতীয় স্পিনার হিসেবে জাদেজাকে রাখা যেতে পারে। শোনা যাচ্ছে, প্রথম টেস্টে ভালো খেলা ভুবনেশ্বর কুমারের পরিবর্তে নেওয়া হতে পারে ঈশান্ত শর্মাকে। সেঞ্চুরিয়নে সুইং নেই। গতি ও বাউন্সের ক্ষেত্রে ঈশান্ত বেশি কার্যকর হতে পারেন। বুমরার রিভার্স সুইং করানোর দক্ষতা রয়েছে। সামি, বুমরা, ঈশান্তের সঙ্গে চতুর্থ পেসার হিসেবে হার্দিক পান্ডিয়া। বিরাট কোহলি মানেই চমক। এমনও হতে পারে, প্রথম টেস্টের অপরিবর্তিত দলই নামালেন কোহলি।
দক্ষিণ আফ্রিকা দল বাছাই
ফাফ ডুপ্লেসির দলে একটা পরিবর্তন নিশ্চিত। প্রত্যাবর্তনের ম্যাচে চোট পেয়েছিলেন ডেল স্টেইন। ছসপ্তাহের জন্য বাইরে এই পেসার। পরিবর্ত হিসেবে লড়াইয়ে ক্রিস মরিস ও এনগিডি লুঙ্গি। অভিজ্ঞতা এবং সেঞ্চুরিয়নের পরিস্থিতিতে এগিয়ে অলরাউন্ডার মরিস। দলে আর পরিবর্তনের সম্ভাবনা নেই।
দক্ষিণ আফ্রিকা অধিনায়ক ফাফ ডুপ্লেসি বলছেন
নিজের শহরে ম্যাচ ডুপ্লেসির। পিচের রঙ দেখে অবাক। ভেবেছিলেন সবুজ উইকেট পাবেন। পেলেন বাদামি। ডুপ্লেসি জানান, ‘যতটা ভেবেছিলাম তার চেয়ে বেশি বাদামি। গত সপ্তাহ থেকে প্রচণ্ড গরম। সে কারণেই ঘাস সব মরে গিয়েছে। সচরাচর এখানে এমন পিচ দেখা যায় না। পিচের চরিত্র অনুমান করতে পারছি না।’
ভারত অধিনায়ক কোহলি বলছেন
কেপ টাউনের হারে ভেঙে পড়তে নারাজ বিরাট কোহলি। প্রথম টেস্টে হারের জন্য পিচের চেয়ে তাঁদের ব্যাটিং দায়ী এ বিষয়ে সন্দেহ নেই। পিচ নিয়ে খুব বেশি চিন্তিতও নন। দ্বিতীয় টেস্টে নামার আগে কোহলি বলছেন, ‘কেপ টাউনের পিচ নিয়ে খুশি। ম্যাচে টিকে থাকার অনেক সুযোগ দিয়েছে। এখানকার পিচে আমাদের নতুন পরীক্ষা।’ প্রথম টেস্টে হারের পর থেকে চারিদিকে রাহানেকে ফেরানোর কথা। বিষয়টি নিয়ে অবাক এবং বিরক্ত কোহলি বলছেন, ‘কয়েকদিন আগেও যাঁরা চাইছিলেন রাহানেকে বাদ দেওয়া হোক, তাঁরাই ফেরানোর কথা বলছে। এক সপ্তাহের মধ্যেই সব কেমন বদলে গিয়েছে। রাহানে এই ম্যাচে খেলবে না সেটা বলছি না। সবরকম সম্ভাবনাই রয়েছে।’ কেপটাউনের হার নিয়ে প্যানিক হতে নারাজ। ভরসা রাখতে বলছেন সকলকেই।
দক্ষিণ আফ্রিকা : ভারত
দুপুর ১.৩০টা (ভারতীয় সময়)

Current Affairs

Featured Posts

Advertisement