মেসির পায়ে লা
লিগার ৬০০০ গোল

মেসির পায়ে লা<br>লিগার ৬০০০ গোল
+

বার্সেলোনা, ১৯শে আগস্ট— বিশ্বকাপের সাময়িক হতাশা কোথাও যেন তাঁর ছায়াসঙ্গী। অপেক্ষায় ছিলেন আক্ষেপ মুছে ফেলার। লা লিগায় বার্সেলোনার প্রথম ম্যাচেই পুরানো মেজাজে পাওয়া গেল আর্জেন্টিনীয় সুপারস্টার লিওনেল মেসিকে। ডিপোর্টিভো আলাভেসের বিরুদ্ধে জোড়া গোল। অপর গোলটি ব্রাজিলীয় তারকা ফিলিপে কুটিনোর। হাল না ছাড়া বিপক্ষকে শেষ পর্যন্ত ৩-০ গোলে চূর্ণ করেছে এরনেস্তে ভেলভের্ডের টিম। ৬৪ মিনিটে মেসির প্রথম গোলটি গড়ানো ফ্রি-কিক থেকে। একরম বহু গোল করেছেন লিও, কিন্তু এই গোলটি স্পেশ‌্যাল। কারণ লা লিগার ৬০০০ নম্বর গোলটি আসে লিওর সোনায় বাঁধানো বাঁপায়ের সেট পিস থেকেই। প্রসঙ্গত স্প্যানিশ লিগের ৫০০০ নম্বর গোলটিও করেছিলেন মেসিই। 
গতবার লা লিগার সর্বোচ্চ গোলদাতার পুরস্কার ছিল মেসির দখলে। এবারেও সেরকমই ফর্মের ইঙ্গিত দিলেন লিগের শুরুতেই। বার্সার দ্বিতীয় গোল ৮৩ মিনিটে, ফিলিপে কুটিনোর ডান পায়ের বাঁক খাওয়ানো শটে। যে শটের জন্য কুটিনহো বিখ্যাত। বিশ্বকাপেও এরকম গোল করেন সুইজারল্যান্ডের বিরুদ্ধে। ৯২মিনিটে মেসি ম্যাজিকে ৩-০ করে বার্সেলোনা। মেসির একটি ফ্রি কিক ক্রসবারে এবং একটি শট পোস্টে লেগে প্রতিহত না হলে হ্যাটট্রিক হতে পারত। ম্যাচের শেষে মেসির প্রশংসায় বার্সা কোচ ভেলভের্ডে। মেসির প্রসঙ্গে বললেন, ‘মেসির যুগে ফুটবল খেলতে পেরে আমরা গর্বিত। প্রতিদিন ওর থেকে নতুন কিছু আশা করি। প্রত্যেক মুহূর্তে চমক দেয় লিও। যদিও এখনও অনেক চমক দেওয়া বাকি আছে।’
পাশাপাশি এটাও বলে রাখা দরকার বার্সাকে প্রথম গোলের জন্য অপেক্ষা করতে হয় ৬৪ মিনিট পর্যন্ত। যা নিয়ে চিন্তিত কোচ। তাঁর স্বীকারোক্তি, ‘টিম এখনও সেরা খেলাটা খেলতে পারেনি। আলাভেস অতিরিক্ত রক্ষণাত্মক ফুটবল খেলেছে। এদিনের প্রথম একাদশে বোঝাপড়ার অভাব থাকায় শুরুটা ভালো হয়নি। তবে আমার বিশ্বাস আগস্টের মধ্যে টিমের কম্বিনেশন তৈরি হয়ে যাবে।’ লা লিগাকে জোড়া গোলে বরণ করেছেন লিওনেল। অন্যদিকে সিরি এ লিগের নতুন চ্যালেঞ্জ নিলেও প্রথম ম্যাচে গোল আসেনি ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোর। দুই ফুটবল মহীরুহর মধ্যে শেষ অবধি কে শীর্ষে থাকবে সেটাই দেখার।

Current Affairs

Featured Posts

Advertisement