ভোটার তালিকা সংশোধনের সময়
বাড়ানোর দাবি জানালো বামফ্রন্ট

ভোটার তালিকা সংশোধনের সময়<br>বাড়ানোর দাবি জানালো বামফ্রন্ট
+

 

নিজস্ব প্রতিনিধি: কলকাতা, ১১ই অক্টোবর— রাজ্যে ভোট লুট রেওয়াজে পরিণত হয়েছে। পঞ্চায়েত নির্বাচন সম্পন্ন করতে দেশের সর্বোচ্চ আদালত পর্যন্ত দৌড়তে হয় এমনই এই রাজ্য! মানুষের গণতান্ত্রিক অধিকার প্রয়োগে জীবন-জীবিকা আক্রান্ত হয়। এমন হিংসা ও নৈরাজ্যের জমানায় ভোটার তালিকা সংশোধনের কাজে নিরপেক্ষতা রক্ষার দাবি নির্বাচন কমিশনের কাছে জানালো বামপন্থীরা। বৃহস্পতিবার মুখ্য নির্বাচনী আধিকারিকের কাছে বামফ্রন্ট প্রতিনিধিদলের পক্ষে রবীন দেব জানালেন, রাজ্যের নানা প্রান্তে ছড়িয়ে থাকা ৭৭৭৯৬টি বুথে ভোটার তালিকা সংশোধনের কাজ ঠিকমতো চলছে কিনা তা নির্বাচন কমিশনকেই দেখতে হবে। ভোটার তালিকা সংশোধনের মতো এমন গুরুত্বপূর্ণ কাজেই বি এল ও-দের বাস্তব উপস্থিতি আদৌ থাকছে কিনা, এমন জরুরি কাজেও শাসকদল কোথায় জুলুমের আধিপত্যে রাখছে তা দেখা উচিত।
এদিকে গত ১লা সেপ্টেম্বর থেকে ৩১শে অক্টোবর পর্যন্ত ভোটার তালিকা সংশোধনের সময়সীমার অনেকটাই পেরিয়ে গিয়েছে। কিন্তু এই মেয়াদের মধ্যেই রাজ্যে শারদোৎসবের ব্যস্ততা জড়িয়ে ছিল এবং এখনও থাকছে। এদিন নির্বাচন কমিশনের দপ্তর থেকে বেরিয়ে রবীন দেব জানালেন শুধু শারদোৎসবই নয়, তারপরেও ছট পুজো বা অন্যান্য উৎসবের আড়ম্বর থাকবে। তাই রাজ্যে ভোটার তালিকা সংশোধনের এমন কাজের সময়সীমা বাড়ানোর দাবি এদিন তুললেন বামফ্রন্টের প্রতিনিধিদল। বৃহস্পতিবার এই প্রতিনিধিদলে রবীন দেব ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন সি পি আই (এম)-র সুখেন্দু পানিগ্রাহী, ফরওয়ার্ড ব্লকের হাফিজ আলম সইরানি, সি পি আই-র গৌতম রায় ও অমিতাভ চক্রবর্তী। রবীন দেব এদিন জানান মুখ্য নির্বাচনী আধিকারিক এই সময়সীমা বাড়ানোর আবেদন করেছেন দিল্লিতে। রবীন দেব এদিন বলেন, ভোটার তালিকা সংশোধনের কাজ যাতে একতরফা না হয় তা দেখতে হবে নির্বাচন কমিশনকে। বহু জায়গাতেই বিরোধীদের তা রেখেই এই কাজ সেরে নেওয়া চলছে। মুখ্য নির্বাচনী আধিকারিকের কাছে এদিন রবীন দেব জানতে চান বি এল ও-দের তিনটে বৈঠক হয়ে গেল তাই বাস্তব ক্ষেত্রে কিভাবে এ কাজ হচ্ছে তা রাজনৈতিক দলগুলির জানা জরুরি। ভোটার তালিকা সংশোধনের কাজে প্রাথমিক শিক্ষকদের যুক্ত করার প্রসঙ্গটিও এদিন আলোচনায় ওঠে। এ প্রসঙ্গেই মুখ্য নির্বাচনী আধিকারিক জানান আদালতের রায়ের দিকটা দেখেই এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।
এদিন রাজ্যের মুখ্য নির্বাচন কমিশনার অমরেন্দ্রকুমার সিং-এর সঙ্গেও দেখা করেন রাজ্য বামফ্রন্টেরনেতা রবীন দেব। সেখানে  হাওড়া জেলা বামফ্রন্ট নেতৃত্বও ছিলেন। অবিলম্বে হাওড়া কর্পোরেশন এলাকার ওয়ার্ড পুনর্বিন্যাস করে নির্ধারিত সময়ের মধ্যে নির্বাচনের দিন ঘোষণার দাবি জানান বামফ্রন্ট নেতৃবৃন্দ। একইসঙ্গে হাওড়া কর্পোরেশন এলাকার ৬৬টি ওয়ার্ডের সংরক্ষণ নীতি ঠিক করার দাবিও জানিয়েছে জেলা বামফ্রন্ট। রাজ্য মুখ্য নির্বাচন কমিশনারকে লেখা চিঠিতে উল্লেখ করা হয়েছে,‘১০ই ডিসেম্বর হাওড়া কর্পোরেশনের বর্তমান বোর্ডের মেয়াদ শেষ হতে চলেছে। এখনও পর্যন্ত পৌর ওয়ার্ডগুলির পুনর্বিন্যাস, আসন সংরক্ষণ ও নির্বাচনের দিনক্ষণের বিষয়ে পৌর প্রতিনিধিসহ নির্বাচকমণ্ডলীকে অনিশ্চয়তার মধ্যে রেখে দেওয়া হয়েছে। এদিন রাজ্যের মুখ্য নির্বাচন কমিশনারের কাছে স্মারকলিপি দিতে রবীন দেব ছাড়াও হাওড়া জেলা বামফ্রন্টের তরফে উপস্থিত ছিলেন সি পি আই (এম) নেতা অরূপ রায়, সমীর সাহা ও হাওড়া কর্পোরেশনের বামফ্রন্ট কাউন্সিলর আসরাফ জাভেদ। 

 

Current Affairs

Featured Posts

Advertisement