প্রধান বিচারপতির ক্ষোভ

তোলাবাজির বিরুদ্ধে মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জির হুমকি দলের নেতা-কর্মীরা আদৌ আমল দিচ্ছে না। তারা আরও বেপরোয়া হয়ে তোলাবাজি, মোটা টাকা আদায়ের অভিযান চালিয়ে যাচ্ছে। আরও রমর‍‌মিয়ে চলছে সিন্ডিকেটের ব্যবসা। তোলাবাজি, সিন্ডিকেট ব্যবসার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবার কথা খোদ মুখ্যমন্ত্রী গলা চড়িয়ে বললেও কার্যক্ষেত্রে কিছু বন্ধ হয়নি। বন্ধ তো দূরের কথা কার্যক্ষেত্রে কম‍‌তির কোনো চিহ্ন লক্ষ্য করা যাচ্ছে না।...

বিস্তারিত বিবরণ >>

পঃ বঙ্গে যুক্তফ্রণ্ট সরকার চালু না রাখার কোন কারণ নেই
সর্বতোভাবে প্রচেষ্টা করা হবে ব্যর্থ হলে
বিধানসভা ভেঙে দিয়ে
অবিলম্বে মধ্যবর্তী নির্বাচনের ব্যবস্থা চাই: মার্কসবাদী কমিউনিস্ট পার্টর পলিট ব্যুরোর বিবৃতি

নিজস্ব প্রতিনিধি

কলকাতা, ১২ই মার্চ— বাংলা কংগ্রেসের যুক্তফ্রণ্ট ত্যাগ সত্ত্বেও পশ্চিবাংলায় এখনও যুক্তফ্রণ্ট এবং যুক্তফ্রণ্ট সরকার রক্ষার অবস্থা আছে। বিধানসভার ২৮০ জন সদস্যের মধ্যে এখন ১৮০জন সদস্য যুক্তফ্রণ্টের। তাই যুক্তফ্রণ্ট সরকার অব্যাহত রেখে জনগণের নির্দেশ পালন করা উচিত। অন্যথায় বিধানসভা ভেঙে দিয়ে নতুন করে জনগণের রায় নিতে। পশ্চিমবাংলার বর্তমান রাজনৈতিক পরিস্থিতির উপর ভারতের কমিউনিস্ট পার্টি (মাঃ)-র পলিট ব্যুরো বিবৃতিতে বলেছে—বাংলা কংগ্রেসের একতরফা যুক্তফ্রণ্ট ত্যাগ একবছর পূর্বে জনগণের প্রতি যে প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছিল তার প্রতি এবং ৩২দফা কর্মসূচীর প্রতি বিশ্বাসঘাতকতা।...পলিট ব্যুরো কোনরূপ ‘মিনিফ্রণ্ট সরকারের’ সম্পূর্ণ বিরোধী।...যুক্তফ্রণ্টের ৩২দফা কর্মসূচী কার্যকর করা এবং এই সরকার অব্যাহত রাখা শুধুমাত্র সি পি আই (এম)-র এককভাবে সম্ভব নয়।এর জন্য যুক্তফ্রণ্টের অন্যান্য শরিকদলের সহযোগিতা অবশ্যই প্রয়োজন।...

বিস্তারিত বিবরণ >>

Featured Posts

Advertisement