দাপট রেখেই অভিযান শুরু করছে রিয়াল
নামছে ম্যান সিটি, লিভারপুলও

সংবাদসংস্থা

মাদ্রিদ, ১২ই সেপ্টেম্বর — হ্যাটট্রিকের লক্ষ্যে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ অভিযান শুরু করছে রিয়াল মাদ্রিদ। ইউরোপীয় ফুটবলে এখনও পর্যন্ত সর্বাধিক ১২বার চ্যাম্পিয়ন হয়েছে লস ব্লাঙ্কোস। জিনেদিন জিদানের প্রশিক্ষণে স্বপ্নের দৌড় চলছে। ঘরোয়া লিগে মরশুমের সূচনা যদিও বিশেষ ভালো হয়নি। ভ্যালেন্সিয়া এবং লেভান্তের সঙ্গে ড্র করেছে। এমনকি মূল তারকা ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো চার ম্যাচ নির্বাসিত ছিলেন। সেই নির্বাসন কাটিয়ে ফিরে এসেছেন।

সাম্প্রতিককালে রিয়াল যে অবস্থাতেই থাকুক না কেন, রেকর্ড বলছে অন্যদের ধরা ছোঁয়ার বাইরে রয়েছে রিয়াল। শেষ পাঁচ ম্যাচে লিগের একটি ম্যাচেও হারেনি। শেষবার জোশ মোরিনহোর প্রশিক্ষণে ২০১২সালের অক্টোবরে পরাজিত হয়েছিল বরুশিয়া ডর্টমুন্ডের কাছে। তারপর ম্যান সিটি, আয়াক্স, গালাতেসরায়, কোপেনহেগেন, জুভেন্টাস, বাসেল, লুডোগোরেটস, লিভারপুল, শাখতার ডনেস্ক, মালমো, পি এস জি, স্পোর্টিং লিসবন, ডর্টমুন্ড ও লেজিয়ার বিরুদ্ধে খেলেছে। রিয়ালকে পাঁচ বছরে কেউ গ্রুপ থেকে ছিটকে দিতে পারেনি। ১৯৯৫ সালে নতুন ফরম্যাটে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ শুরু হওয়ার পর এখনও পর্যন্ত ১২৬টি গ্রুপের ম্যাচে মধ্যে ৮২টিতেই জিতেছে রিয়াল। ড্র করেছে মাত্র ২৬টিতে। হেরেছে মাত্র ১৮টিতে।

বরুশিয়া ডর্টমুন্ড, টটেনহাম হটস্পার ও আপোয়েল নিকোসিয়ার জন্য রিয়ালকে পিছনে ফেলে গ্রুপের গন্ডি টপকানো মোটেই সহজ কাজ হবে না। তবে মরশুমের শুরুতে পয়েন্ট নষ্ট হওয়ায় মোটেও চিন্তিত নন জিনেদিন জিদান। বরং আস্বস্ত করার মতো করেই বলেন, ‘গতবারও এরকম ঘটেছিল। আমরা এতে চিন্তিত নই। ম্যাচের ফলাফল নিয়ে সন্তুষ্ট নই। কিন্তু এটাই ফুটবল।’ আবার চ্যাম্পিয়ন্স লিগ শুরুর আগে নিজেরর ফুটবলারদের উপর ভরসা প্রকাশ করে জানান, ‘এই দল নিয়েই আমরা অনেক কিছু করতে পারি।’

এদিকে, ম্যাঞ্চেস্টার সিটির কাছে পাঁচ গোলের ক্ষত এখনও দগদগে। আর সেই ক্ষত নিয়েই সেভিয়ার বিরুদ্ধে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের যাত্রা শুরু করবে য়ুর্গেন ক্লপের লিভারপুল। একইদিনে ফেয়েনুর্ডের বিরুদ্ধে খেলবে পেপ গুয়ার্দিওলার ম্যাঞ্চেস্টার সিটি। আইভরি কোস্টের ফুটবলার ইয়াইয়া তৌরেকে দলে রাখেননি পেপ। তবে ইয়াইয়া তৌরেকে কেন আচমকা বাদ দেওয়া হলো তা নিয়ে জল্পনা তৈরি হয়েছে। আবার জাতীয় দলের হয়ে খেলতে গিয়ে চোট পেয়েছিলেন ভিসেন্ট কোম্পানি। তাই তাঁকেও দলের বাইরে রেখেছেন কোচ। যদিও লিভারপুল ম্যাচে চোট পাওয়া ব্রাজিলীয় গোলরক্ষক এডারসনকে ফেয়েনুর্ডের বিরুদ্ধে দলে রেখেছেন স্প্যানিশ কোচ। যদিও লিভারপুলকে পাঁচ গোলে হারিয়ে আত্মবিশ্বাসী ম্যান সিটি। আবার পনেরো বছর পর আবার চ্যাম্পিয়ন্স লিগের গ্রুপ পর্বে পৌঁছে ডাচ ক্লাবও নিজেদের অস্তিত্বের জানান দিতে মরিয়া। ফেয়েনুর্ডের শারীরিক দক্ষতা সম্পর্কে আগে থেকেই সতর্ক করেছেন ম্যান সিটির মাঝমাঠের ফুটবলার কেভিন ডি ব্রুন। জানিয়েছেন ‘এই ফুটবলাররা অনেক বেশি শক্তিশালী, এবং গতিও যথেষ্ট। মাঠ বড় করে খেলে। যা অন্যদের থেকে এদের আলাদা করেছে।’

Current Affairs

Featured Posts

Advertisement