হরিরামপুর ব্লকের প্রত্যন্ত গ্রামে
ত্রাণ দিলেন রাজ্য কর্মীরা

নিজস্ব সংবাদদাতা

বালুরঘাট, ১৩ই সেপ্টেম্বর — বন্যার জল নেমে গেছে। থেকে গেছে বিধ্বংসী বন্যার গভীর ক্ষত। অসহায় মানুষের আর্তনাদ আর হাহাকারের ছবি সর্বত্র। দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার হরিরামপুর ব্লকের ১০নং সৈয়দপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রত্যন্ত এলাকায় দুটি গ্রাম ধরমপুর ও বেজপুকুর। সেখানে শুধুই বাড়িঘর তলিয়ে যাবার দৃশ্য। বাড়িঘরের সাথে তলিয়ে গেছে জিনিসপত্র, কাপড়-চোপড়, বিছানা, জীবন ধারণের জন্য যা কিছু সবই। সর্বত্রই সরকারি ত্রাণের জন্য আকুল আর্তি। কিন্তু সরকারি ত্রাণ সেখানে পৌঁছায়নি। এমনকি সরকারের পক্ষ থেকে কেউ পৌঁছায়নি। পৌঁছালো রাজ্য কো-অর্ডিনেশন কমিটি। মঙ্গলবার ও বুধবার ওই দুই গ্রামের বন্যাদুর্গতদের বস্ত্র বিতরণ করা হয় রাজ্য কো-অর্ডিনেশন কমিটির পক্ষ থেকে।

দক্ষিণ দিনাজপুর জেলা শাখার যুগ্ম সম্পাদক পলাশ দেবের নেতৃত্বে বন্যা বিধ্বস্ত বেজপুকুর গ্রামে পৌঁছান ১০ সদস্যের প্রতিনিধি দল। ছিলেন কেন্দ্রীয় প্রতিনিধি অশোক রায়। এদিন কুমারগঞ্জ ব্লকের মোহনা গ্রাম পঞ্চায়েতের তাজপুর ও বেহাতর দুটি গ্রামের বন্যাদুর্গত মানুষদেরও বস্ত্র বিতরণ করা হয়। কমিটির জেলা সম্পাদক বিভাস দাসের নেতৃত্বে আয়োজিত এই কর্মসূচিতে কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব মানস বড়ুয়া উপস্থিত ছিলেন। দুটি স্থানে প্রায় ৫০০ মানুষের মধ্যে নতুন বস্ত্র বিতরণ করা হয়। বিপন্ন সময়ে, শারদ উৎসবের মুখে রাজ্য কো-অর্ডিনেশন কমিটির এইটুকু ভালবাসার ছোঁয়ায় খুশির ঝলক দেখা গেল বানভাসিদের চোখে।

Current Affairs

Featured Posts

Advertisement