৭রাজ্যে সারে ‘পি ও এস’ বাধ্যতামূলক

সংবাদসংস্থা

নয়াদিল্লি: ১লা অক্টোবর- সাতটি ছোট রাজ্যে সারে প্রত্যক্ষ ভরতুকি ব্যবস্থা চালু করেছে কেন্দ্র। নভেম্বরে ১২টি বড় রাজ্যে এই ব্যবস্থা চালু হবে। ২০১৮-র জানুয়ারির মধ্যে সারা দেশে কৃষিতে সারের বিক্রির জন্য ভরতুকি এই ব্যবস্থার মধ্যে আনার লক্ষ্য জানিয়েছে কেন্দ্র।

সরকারি সূত্র অনুযায়ী, মিজোরাম, নাগাল্যান্ড, দিল্লি, পুদুচেরি, গোয়া, দমন ও দিউ এবং দাদরা ও নগর হাভেলিতে চলছে এই ব্যবস্থা।

সরকারি সব প্রকল্পেই উপভোক্তাদের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে সরাসরি ভরতুকির টাকা পাঠিয়ে দেওয়ার ব্যবস্থা চালু হয়েছে। এই নগদ ভরতুকি ব্যবস্থাই এবার সারের ক্ষেত্রে চালু করার কথা বলছে কেন্দ্র। কিন্তু, রান্নার গ্যাসে ভরতুকি বা সরকারি প্রকল্পে উপভোক্তার অ্যাকাউন্টে নগদ পাঠানোর সঙ্গে সারের পার্থক্য রয়েছে।

সারের ভরতুকি বরাবরই যায় কারখানা মালিকদের হাতে। কৃষকরা ভরতুকির টাকা পান না। বাজার থেকে ভরতুকিতে দেওয়া সার কেনেন কৃষকরা। সার মন্ত্রকের এক আধিকারিক জানিয়েছেন, নতুন ব্যবস্থায় একই পদ্ধতি চালু থাকবে। ফারাক হলো, কৃষকরা যে খুচরো দোকানদারের থেকে সার কিনবেন, সেখানে ‘পি ও এস’ যন্ত্র থাকতে হবে। পয়েন্ট অব সেল যন্ত্রে লেনদেনের বিশদ থাকতে হবে। খুচরো বিক্রেতাদের থেকে সেই হিসেব সংশ্লিষ্ট সার উৎপাদন সংস্থাকে দাখিল করতে হবে সরকারের কাছে। এই লেনদেনের ভিত্তিতে মিলবে ভরতুকির টাকা।

সরকারের বক্তব্য, এই পদ্ধতিতে লেনদেনের সঠিক পরিমাণ ধরা যাবে। ফলে, প্রক্রিয়াটি স্বচ্ছ হবে। কৃষির জন্য তৈরি দেখিয়ে শিল্পের রাসায়নিক উপকরণ হিসেবে সার পাচারও আটকানো যাবে। যদিও প্রয়োজনীয় পি ও এস যন্ত্র আছে কিনা জানাতে পারেননি ওই আধিকারিক। মন্ত্রকের হিসেব, প্রয়োজনের ৬০শতাংশ যন্ত্র রয়েছে।

নভেম্বর থেকে এই ব্যবস্থা চালু হওয়ার কথা যে ১২রাজ্যে, তার মধ্যে রয়েছে পাঞ্জাব, মধ্য প্রদেশ, অন্ধ্র প্রদেশ।



Featured Posts

Advertisement