রাজ্য জুড়ে তাণ্ডবের বিরুদ্ধে গর্জে ওঠার
ডাক কমরেড জনাব আলির স্মরণসভায়

নিজস্ব সংবাদদাতা

মাথাভাঙা, ১২ই জানুয়ারি — আগামীদিনে আরও কঠিন পরিস্থিতির মুখোমুখি হতে হবে দেশের বামপন্থীদের। তবুও বামপন্থীরা ভয় পায় না। কারণ আমাদের মধ্যে আছেন হাজার হাজার জনাব আলি মিয়া। সি পি আই (এম) কোচবিহার জেলা কমিটির প্রয়াত প্রবীণ সদস্য জনাব আলি মিয়া আমাদের সামনে কঠিন পরিস্থিতিকে মোকাবিলা করে কিভাবে কাজ করা যায় তার নিদর্শন রেখে গেছেন। প্রয়াত আলি মিয়ার অসমাপ্ত লড়াইকে এগিয়ে নিয়ে যাবার দায়িত্ব আমাদের। শুক্রবার প্রবীণ নেতার স্মরণসভায় এ কথা বলেন সি পি আই (এম) জেলা সম্পাদক অনন্ত রায়।

এদিন ঘোকসাডাঙায় প্রয়াত নেতাকে স্মরণ করে বামফ্রন্টের জেলা আহ্বায়ক তারিণী রায় বলেন, কমরেড আলি মিয়ার মৃত্যুতে শুধু সি পি আই (এম) দলই নয়, বামপন্থী আন্দোলন, কৃষক আন্দোলন ও সামাজিক আন্দোলনের অপূরণীয় ক্ষতি হলো। স্মৃতিচারণা করতে গিয়ে সি পি আই (এম)-র অন্যান্য নেতৃবৃন্দ বলেন, কমরেড মিয়ার বড় গুণ ছিল আন্তরিকতা। অনায়াসেই মানুষকে আপন করে নিতে পারতেন। রাজনৈতিক আন্দোলনের পাশাপাশি সামাজিক আন্দোলনেও তাঁর গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা ছিল। এদিনের সভা থেকে রাজ্যজুড়ে যে তাণ্ডব চলছে তার বিরুদ্ধে গর্জে ওঠার আহ্বান জানানো হয়।

স্মরণসভা শুরুর আগে প্রয়াত নেতাকে শ্রদ্ধা জানান তাঁর স্ত্রী জাহানারা বিবি, সি পি আই (এম) জেলা সম্পাদক অনন্ত রায়সহ তারিণী রায়, তমসের আলি, সফিজ আহমেদ, নারায়ণ সরকার, ফরওয়ার্ড ব্লক নেতা রমেন সরকার, কংগ্রেস নেতা মানিক বর্মণ প্রমুখ। এদিন শোক প্রস্তাব পাঠ করেন এরিয়া কমিটির সম্পাদক সফিয়ার রহমান। সভাপতিত্ব করেন শশধর বর্মণ।

Featured Posts

Advertisement