কোহলিদের পরামর্শ
দিলেন চাঁদু বোরদে

দলে বদল না আনার পক্ষে সৌরভ

সংবাদসংস্থা

নয়াদিল্লি, ১২ই জানুয়ারি — কেপ টাউনে প্রথম টেস্ট হেরেছে ভারত। ২০৮ রান তাড়া করতে গিয়ে ১৩৫য়েই গুঁড়িয়ে গেছে। সেঞ্চুরিয়ানের টেস্টেও যেন একই পরিণতি না হয়, তার পরামর্শ দিলেন চাঁদু বোরদে। কোহলিদের ব্যাটিং কিভাবে আরও ভালো হয় তারই টোটকা দিলেন মনসুর আলি খান পতৌদির সহকারী। অযথা খোঁচা দিয়ে যেন আউট না হন তা বলতে গিয়ে জানিয়েছেন, ‘তোমায় ক্রিজে টিকে থাকতে হবে, এটাই সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ। বিশেষ করে অফ স্টাম্পের বাইরে যে বলগুলো পড়বে সেগুলিকে ছেড়ে দিতে হবে। আমাদের অনেক ব্যাটসম্যান হয়তো পিছনে নয়তো স্লিপে ধরা পড়েছে। তাই ব্যাটসম্যানদের উচিত নিজেদের টেকনিক বদলানো। শুরুতে অফ স্টাম্পের বাইরে যে বল পড়বে সেগুলিকে ছেড়ে দিতে হবে। আর একবার ওই বাউন্সের সঙ্গে মানিয়ে নিলে শট খেলতে পারবে।’

ভারতীয় ক্রিকেট দলের প্রাক্তন নির্বাচক প্রধান এখানেই থামেননি। কিভাবে সিম এড়িয়ে খেলা যায় তারও পথ বাৎলে দিয়েছেন চাঁদু বোরদে। বলেছেন, ‘আরেকটি বিষয় আমি বলবো ক্রিজে দাঁড়িয়ে থাকার পরিবর্তে, ব্যাটসম্যানদের উচিত ক্রিজের অন্তত ছয় ইঞ্চি বাইরে দাঁড়ানো এবং সুইং হওয়ার আগেই আগে যেন বল খেলা যায়।’ এই দুটি বিষয়ের সঙ্গে মানিয়ে নেওয়া খুব কষ্টকরও নয়। সাধারণ দুটো বিষয়ের সঙ্গে মানিয়ে নিতে পারলেই দক্ষিণ আফ্রিকার আক্রমণভাগের সঙ্গে মানিয়ে নিতে পারবেন ভারতীয় ব্যাটসম্যানরা। এমনটাই জানিয়েছেন ভারতীয় ক্রিকেটের অন্যতম সেরা ব্যাটসম্যান।

আবার প্রথম ম্যাচে ব্যর্থ হলেও, দলের খোল নলচে বদলের পক্ষপাতী নন সৌরভ গাঙ্গুলি। বিদেশের মাটিতে রান পেয়েছেন এমন ব্যাটসম্যানও রয়েছে ভারতীয় শিবিরে। তাও দলের বদল করার পক্ষে নন প্রাক্তন ভারত অধিনায়ক। সেঞ্চুরিয়নে দ্বিতীয় টেস্ট খেলার আগের দিন জানিয়েছেন ‘বিরাট কোহলির দলের কম্বিনেশন নিয়ে চিন্তা করার দরকার নেই। যদিও বিদেশের মাটিতে রান করার নজির রয়েছে লোকেশ রাহুল এবং অজিঙ্ক্য রাহানের, তাও বলছি প্রতি ম্যাচে দলে কাট ছাঁট করার দরকার নেই। ওরা এই ব্যাটিং লাইনের উপর ভরসা রেখেছে, পরের টেস্টগুলিতেও তা বজায় রাখা উচিত। ওদের হাতে আরও দুটো টেস্ট রয়েছে। আর আমার মনে হয় দুটোতেই ফল হবে।’ পাঁচ বোলার খেলানো নিয়েও সমালোচনা হয়। কিন্তু পাঁচ বোলার খেলানোর সিদ্ধান্তকেই সমর্থন করেছেন সৌরভ। নিউল্যান্ডসে ভারত এক সময় জয়ের স্বপ্ন দেখিয়েছিল। তা সম্ভব হয়েছিল বোলিংয়ের জন্য, ‘দলের কম্বিনেশন নিয়ে অনেক কথা হয়েছে। ভারত পাঁচ বোলার নিয়ে খেলে ঠিকই করেছে। টেস্ট জয়ের ক্ষেত্রে রান করা যেমন গুরুত্বপূর্ণ, তেমনই উইকেট নেওয়াও গুরুত্বপূর্ণ। ভারত এক সময় জয়ের স্বপ্ন দেখেছিল কারণ বোলাররা কুড়ি উইকেট নিতে পেরেছিল। পরের দুটো টেস্টেও এটাই একটা গুরুত্বপূর্ণ দিক হতে চলেছে।’

Featured Posts

Advertisement