ট্রাম্পের কুৎসিত মন্তব্যে
ধিক্কার দুনিয়াজুড়েই

সংবাদসংস্থা

ওয়াশিংটন, ১২ই জানুয়ারি— হাইতি, এল সালভাদর এবং আফ্রিকার দেশগুলিকে নিয়ে মার্কিন রাষ্ট্রপতি ডোনাল্ড ট্রাম্পের কুৎসিত মন্তব্য দুনিয়াজুড়ে ধিক্কারের মুখে পড়েছে। তীব্র চাপের মুখে ট্রাম্প দাবি করেছেন তিনি কোন কুৎসিত মন্তব্য করেননি। যদিও তাঁর এই দাবির সত্যতা নিয়ে সংশয় রয়েছে।

ঘটনার সূত্রপাত ওয়াশিংটনের ওভাল অফিসে। অভিবাসী নীতি ঘিরে বৃহস্পতিবারের বৈঠকে। ট্রাম্পের লেখার অযোগ্য কুৎসিত মন্তব্যটি বর্ণবিদ্বেষী বলেই অভিমত রাষ্ট্রসঙ্ঘেরও। ‘মানবিকতার জঘন্যতর দিকের দুয়ার উন্মুক্ত করেছে’, বলেই ট্রাম্পের মন্তব্য প্রসঙ্গে বিবৃতিতে রাষ্ট্রসঙ্ঘের তরফে জানানো হয়েছে।

যদিও ঘরে বাইরে তীব্র প্রতিবাদের মুখে রাতারাতি অবস্থান বদলে এমন কোন জঘন্য কথা বলার খবর টুইটে অস্বীকার করেছেন ট্রাম্প।

এর আগে বৃহস্পতিবারই ট্রাম্পের বিতর্কিত মন্তব্য প্রকাশিত হয় দি ওয়াশিংটন পোস্ট, দি নিউইয়র্ক টাইমস, পোলিটিকো এবং দি ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল সহ বিভিন্ন পত্রিকাতে। খবরে কারা সেই বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন সেই কথাও ছাপা হয়। এবং হোয়াইট হাউস খবরের সত্যতা অস্বীকার করেও কোন বিবৃতি দেয়নি।

বৃহস্পতিবার ওভাল অফিসে অভিবাসন নীতি নিয়ে ট্রাম্পের সঙ্গে রিপাবলিকান এবং ডেমোক্র্যাট উভয় দলের সাংসদরাই যোগ দেন। এই বৈঠকে ট্রাম্প প্রাকৃতিক বিপর্যয়, যুদ্ধ অথবা মহামারীর কারণে হাইতি, এল সালভাদর এবং আফ্রিকার দেশগুলি থেকে আগত অভিবাসী মানুষের জন্য সাময়িক আশ্রয়ের ব্যবস্থা করার পরিবর্তে নরওয়ের মতো দেশ থেকে মানুষদের আশ্রয় দেওয়ার কথা বলেন। বৈঠকে হাইতি, এল সালভাদর এবং আফ্রিকার দেশগুলির প্রতি বিকৃত মন্তব্য করেন মার্কিন রাষ্ট্রপতি।

এদিকে ট্রাম্পের মন্তব্যের জেরে বিশ্বব্যাপী প্রতিবাদের ঝড়। শুক্রবার মার্কিন দূতকে তলব করে তাঁদের প্রতিবাদের কথা জানিয়ে দিয়েছে বৎসওয়ানার সরকার। বৎসওয়ানার সরকারের পক্ষ থেকে ট্রাম্পের মন্তব্যকে চরম দায়িত্বজ্ঞানহীন এবং বর্ণবিদ্বেষী হিসেবেই জানানো হয়েছে। ট্রাম্পের মন্তব্যের তীব্র নিন্দা করেছে আফ্রিকান ইউনিয়ন।

বিদেশের পাশাপাশি খোদ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রেই চরম নিন্দার মুখে ট্রাম্প। দি ন্যাশনাল অ্যাসোসিয়েশন অব দি কালারড পিপলস (এন এ এ সি পি) ট্রাম্পের মন্তব্যকে বর্ণ ও জাতি বিদ্বেষী হিসেবেই ধিক্কৃত করেছে। অন্যদিকে কুরুচিকর মন্তব্যের জন্য সরাসরি ক্ষমা চাইতে ট্রাম্পকে জানিয়েছেন কংগ্রেসের উটাহ থেকে নির্বাচিত রিপাবলিকান সদস্য মিয়া লাভ। ট্রাম্পের মন্তব্যকে অন্যায্য, বিভেদমূলক বলেই জানিয়েছেন। ‘আমেরিকাকে মহান করা নয়, ট্রাম্পের লক্ষ্য শ্বেতাঙ্গদের মহান করা’ বলেছেন ডেমোক্র্যাট দলের কৃষ্ণাঙ্গ সাংসদ সেডরিক রিচমন্ড।

এদিকে লন্ডন থেকে পাওয়া খবর অনুসারে, আগামী মাসে ব্রিটেন সফর বাতিল করেছেন ট্রাম্প। সফরে লন্ডনে নতুন দূতাবাসের উদ্বোধন করার কথা ছিল মার্কিন রাষ্ট্রপতি। ওবামা সরকারের সময়ে এই দূতাবাস তৈরির কাজ শুরু হয়। যদিও দূতাবাসের স্থান নির্বাচন ঘিরে নিজের আপত্তি জানিয়েছেন ট্রাম্প। এই কারণেই তাঁর সফর বাতিল। শুক্রবার জানিয়েছেন মার্কিন রাষ্ট্রপতি।

Featured Posts

Advertisement