অবশেষে চার্লস বিদায়, আজ
আসছেন ডুডু প্লাজার আইজল
যাওয়া নিয়ে দিনভর নাটক

নিজস্ব প্রতিনিধি

কলকাতা, ১৩ই জানুয়ারি — শেষপর্যন্ত রাজি হলেন চার্লস ডি সুজা। শনিবার সন্ধ্যাবেলা ক্লাব তাঁবুতে দীর্ঘ আলোচনার পর রিলিজ নিতে রাজি হলেন এই ব্রাজিলিয় স্ট্রাইকার। চার্লসকে ছাড়তে কত টাকা ক্ষতিপূরণ দিতে হয়েছে, সে বিষয়ে অবশ্য মুখ খুলতে রাজি হননি ক্লাব কতৃপক্ষ। তবে শেষ কয়েকদিন ধরে চার্লসের টালবাহানার ফলে আইজল ম্যাচে আর খেলা হচ্ছে না ডুডুর। খালিদ চেয়েছিলেন বড় ম্যাচের আগে ডুডু একটা ম্যাচে খেলুক। কিন্তু রবিবার দুপুরে শহরে এসে খুব বড়সড় নাটক না হলে আইজল যাচ্ছেন না ডুডু। কারণ সই করে ডুডু আইজল চলে যেতে চাইলেও খালিদ তাতে রাজি হবেন না।

তবে ডুডুর আসা নিয়ে অবশ্য ধোঁয়াশার শেষ নেই। ইস্টবেঙ্গলের তরফে জানানো হয়েছে রবিবার দুপুর একটা নাগাদ কলকাতায় পা রাখবেন ডুডু। ক্লাবের তরফে জানানো হয়েছে ডুডু আসছেন ফিনল্যান্ড থেকে। কিন্তু চার্লসের বিদায় নিশ্চিত ছিল না শুক্রবার বিকাল অবধি। সন্ধ্যাবেলায়ও চার্লসকে নিয়ে আলোচনায় বসেছিলেন কর্তারা। ফিনল্যান্ড থেকে ভায়া দিল্লি কলকাতায় আসার কথা ডুডুর। তাহলে কি বৈঠক চলাকালীনই ফিনল্যান্ড থেকে দিল্লির বিমানে উঠে বসে পড়েছিলেন ইস্টবেঙ্গলের এই নতুন বিদেশি? ধোঁয়াশার মাঝেই ইস্টবেঙ্গলের স্বস্তি এক জায়গাতেই। শেষ অবধি ডুডু আসছেন। তবে নাইজেরিয়ান এই স্ট্রাইকার আদৌ কতটা ফিট, তা নিয়ে সন্দেহ থাকছেই।

যেদিন ইস্টবেঙ্গলে ডুডু নাটকের যবনিকা পড়ল সেদিনই আবার শুরু হলো অন্য নাটক। উইলিস প্লাজার আইজল যাওয়া নিয়ে দিনভর নাটক। নেরোকা ম্যাচের প্রথমার্ধে চোট পেয়ে মাঠ ছেড়েছিলেন প্লাজা। তারপর অ্যারোজ ম্যাচে খেলেননি তিনি। চার্চিল ম্যাচে শেষ ১০ মিনিট মাঠে নেমেছিলেন প্লাজা। কলকাতায় ফিরেও অনুশীলন না করে সময় কাটান জিমে। চোট দ্রুত সারিয়ে ওঠার কোন ইচ্ছাই দেখা যায়নি প্লাজার। শুক্রবার তাঁকে নিয়ে যাওয়া হয় ক্লাবের চিকিৎসক শান্তিরঞ্জন দাসগুপ্তের কাছে। শনিবার তিনি জানান, ‘প্লাজার মাংসপেশিতে শক্তভাব আছে। তাই দৌড়াতে গেলে ব্যথা হচ্ছে।’ শনিবার প্লাজাকে অনুশীলনে দেখেন খালিদ। সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় প্লাজাকে নিয়ে যাওয়া হবে না আইজলে। তারপরই প্লাজাকে বুঝিয়ে দেওয়া হয়। এভাবে চোটের অজুহাত নিয়ে চললে বিদায় তাঁরও আসন্ন। শেষ অবধি সুরাবুদ্দিনের বদলে দলের সঙ্গে আইজল যাচ্ছেন প্লাজা।

Featured Posts

Advertisement