আধিকারিকরা কথা না
রাখায় খড়্গপুরে রেল
অবরোধ ভেন্ডারদের

নিজস্ব সংবাদদাতা   ১৫ই ফেব্রুয়ারি , ২০১৮

মেদিনীপুর, ১৪ই ফেব্রুয়ারি — গত এক সপ্তাহ ধরে খড়্গপুর রেল স্টেশনে তিনশতাধিক ভেন্ডারসহ ৯০০ পবিরারের রুটি রুজি বন্ধ। রেলদপ্তরের এক শ্রেণির আধিকারিক নিয়ম বহির্ভূতভাবে কোনও নোটিস ছাড়াই ভেন্ডারগুলি থেকে মালপত্র বাইরে ফেলে দিয়ে তালা চাবি লাগিয়ে দেয়। এরই প্রতিবাদে বিভিন্ন ট্রেড ইউনিয়ন গত ৮ই ফেব্রুয়ারি থেকে প্রতিবাদ জানিয়ে যৌথ আন্দোলনে শামিল হয়। রেলদপ্তরের সিনিয়র ডিভিসনাল কমার্শিয়াল ম্যানেজার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন গত মঙ্গলবার সমস্যা সমাধানের জন্য বৈঠকে বসবেন, ঐ আধিকারিক মঙ্গলবার থেকেই দপ্তরে অনুপস্থিত। এ‌মন ঘটনার প্রতিবাদে কাজ হারানো ব্যক্তিসহ তাদের পরিবারের সদস্যরা বুধবার খড়্গপুর রেলস্টেশনে বিক্ষোভসহ প্রতিবাদ জানিয়ে রেল অবরোধ করেন। বেলা বারোটা থেকে এই অবরোধ ৩০ মিনিট ধরে চলে। বহু লোকাল ট্রেনসহ হাওড়া-পুরী শতাব্দী এক্সপ্রেস ট্রেন দাঁড়িয়ে যায়।

হকার্স ইউনিয়নের জেলা সম্পাদক দিলীপ দে, সি আই টি ইউ নেতৃত্ব অনিল দাস, এ আই টি ইউ সি নেতৃত্ব বিপ্লব ভট্ট সহ অন্যান্য নেতৃত্ববৃন্দ এই আন্দোলনে শামিল হন। গত ৮ দিন ধরে ৯০০ পরিবারের সাড়ে তিন হাজার মানুষের বেঁচে থাকার রসদে যেমন আক্রমণ, তেমনি রেল স্টেশনজুড়ে যাত্রীরা তাদের খাদ্যসহ প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র পাচ্ছেন না।

মোদী সরকারের রেলস্টেশন বিক্রি করার সিদ্ধান্ত কার্যকর করতে এই প্রয়াস বলে জানান উচ্ছেদ হওয়া ভেন্ডাররা। পরে আধিকারিকদের অনুরোধে রেল অবরোধ তুলে নেওয়া হয়। বিক্ষোভ মিছিল ডি আর এম ও দপ্তরে গিয়ে বিক্ষোভ অবস্থানে শামিল হয়।

আন্দোলনকারীদের পক্ষে ঘোষণা করা হয়, আর এক-দুই দিন তাঁরা বিক্ষোভ প্রতিবাদ কর্মসূচি চালাবেন। তারপর ঘোষণা করেই বৃহত্তর আন্দোলনের পথে যাবেন।

Current Affairs

Featured Posts

Advertisement