কৃষকদের পাশে
দাঁড়ালেন ডাব্বাওয়ালারা

সংবাদসংস্থা   ১৩ই মার্চ , ২০১৮

মুম্বাই: ১২ই মার্চ- প্রতিবাদী কৃষকদের পাশে দাঁড়ালেন মুম্বাইয়ের বিখ্যাত ‘ডাব্বাওয়ালা’-রা। রোজ দক্ষতার সঙ্গে টিফিন পৌঁছে দেন তাঁরা। সোমবার সকালে আজাদ ময়দানে কৃষকদের কাছে খাবার পৌঁছে দিয়েছেন তাঁরা। রবিবার মাঝরাতে যাত্রা শুরু করে কৃষক পদযাত্রীরা আজাদ ময়দানে পৌঁছে যান ভোরের আলো ফোটার আগেই। সেখানেই চলে আসেন ডাব্বাওয়ালারা। মুম্বাই ডাব্বাওয়ালা অ্যাসোসিয়েশনের মুখপাত্র সুভাষ তালেকার বলেছেন, কৃষকরা আমাদের খাবার দেন। তাঁরা মুম্বাইয়ে এসেছেন রাজ্যের দূর দূর প্রান্ত থেকে। তাই তাঁদের খাবার পৌঁছে দেবার সিদ্ধান্ত নিয়েছি আমরা। দাদার থেকে কোলাবার মধ্যে যাঁরা আমাদের সংগঠনের কর্মী রয়েছেন তাঁরা এদিন খাবার সংগ্রহ করে পৌঁছে দিয়েছেন আজাদ ময়দানে। তালেকর জানা, মুম্বাইয়ে উদ্বৃত্ত খাদ্য সংগ্রহ করে দরিদ্রদের মধ্যে বণ্টনের যে ‘রোটি- ব্যাঙ্ক’ রয়েছে সেই কাঠামোকে কাজে লাগানো হয়েছে কৃষকদের খাবার দিতে।

------------------------------

ভোররাতে পাশে মু্ম্বাইবাসী

পরীক্ষার্থীদের অসুবিধার কথা ভেবে রবিবার রাতেই আজাদ ময়দানের উদ্দেশে রওনা দিয়েছিলেন কৃষকরা। ভোর সাড়ে চারটেয় তাঁরা পৌঁছান বাইকুল্লা জংশনে। রাস্তার পাশে অপেক্ষা করছিলেন এলাকার নাগরিকরা। অধিকাংশই সংখ্যালঘু। পদযাত্রী কৃষকদের তাঁরা দিলেন খেজুর, জল, বিস্কুট। আলো ফোটার আগেই এমন সংহতিতে অভিভূত কৃষকরাও স্লোগান তুললেন ‘লাল সালাম’ জানিয়ে। রাস্তার পাশে এমনই অপেক্ষায় ছিলেন মধ্যবিত্ত আবাসন এলাকার নাগরিকরাও। কেউ ‘বড়াপাও’, কেউ পকোড়া নিয়ে। কৃষকদের প্রাতঃরাশের জন্য। তাঁরাই ডেকে এনেছেন জলের ট্যাঙ্কার।

------------------------------

মধ্যরাতে ডাক্তাররা

মুম্বাইয়ে ঢুকে সোমাইয়া ময়দানে অবস্থান করছিলেন কৃষকরা। সেখানে পৌঁছে গেলেন একদল চিকিৎসক। অসুস্থদের চিকিৎসা করলেন যতক্ষণ না মিছিল ফের শুরু হয়। বেশির ভাগেরই পায়ে জখম। কারের পায়ের চামড়া ফেটেছে, কারো নখ ক্ষতিগ্রস্ত। শরীরে ব্যথাও অনেকের। চিকিৎসা করিয়েই আবার মিছিলে— ক্ষান্তি নেই কোনও। আজাদ ময়দানেও হাজির চিকিৎসকরা। সরকারি কাঠামোর তোয়াক্কা না করেই। কৃষক পদযাত্রীদের জন্য শিবির সাজিয়ে ফেললেন তাঁরা।

------------------------------

বাদাম-মাসি

চান্দওয়াড়ের দয়ানা গ্রামের কৃষক সুন্দরবাই মাহদু ভোই পরিচিত হয়েছেন ‘বাদাম-মাসি’ নামে। গ্রাম থেকে কোঁচড় ভরে বাদাম এনেছিলেন। নাসিক থেকেই হাঁটছেন তিনি। ক্রমশ পদযাত্রীদের খাবারে টান পড়েছে। মিছিলে চারপাশের মানুষজনকে বাদাম বিলিয়েছেন। সংবাদমাধ্যমেও তাঁর ছবি-খবর প্রকাশিত হওয়ায় সহযাত্রীদের মধ্যেও জনপ্রিয় হয়ে উঠেছেন। ‘অরণ্যের জমিতে অধিকার চাই’, দাবি সুন্দরবাইয়ের।

------------------------------

প্রতিফলন সংবাদমাধ্যমে

কৃষকদের মিছিল, তায় লাল পতাকা কাঁধে নিয়ে। বাণিজ্যিক সংবাদমাধ্যমের পক্ষে ‘নিষিদ্ধ’ তালিকাতেই পড়ার কথা। কিন্তু এমন নজিরবিহীন আছড়ে-পড়া জনস্রোত মহারাষ্ট্রকে কাঁপিয়ে দিয়েছে। জনমত গড়ে উঠেছে। তা প্রতিফলিত হয়েছে সংবাদমাধ্যমে, ওয়েবসাইট, সোশ্যাল মিডিয়ায়। বিশেষ করে ছবি। ‘ভারতের আর্থিক রাজধানী লাল সমুদ্রে পরিণত হয়েছে’— এমন শিরোনামে সোমবার সারাদিন ভরে গেছে সংবাদ- ওয়েবসাইট।

Featured Posts

Advertisement