হাইকোর্টে জামিনের পরেই
ফের ‘গ্রেপ্তার’ খালেদাকে

সংবাদসংস্থা   ১৩ই মার্চ , ২০১৮

ঢাকা, ১২ই মার্চ — দুর্নীতির একটি মামলায় জামিন পেলেও, নতুন একটি ফৌজদারি পরোয়ানায় সোমবার ফের ‘গ্রেপ্তার’ হলেন বাংলাদেশের বিরোধী নেত্রী খালেদা জিয়া। ফলে সেন্ট্রাল জেল থেকে আপাতত আর বেরনো হলো না ৭২বছর বয়সি নেত্রীর। গত ৮ই ফেব্রুয়ারি জিয়া অনাথালয়ের জন্য বিদেশি অনুদান তছরূপ মামলায় বাংলাদেশ ন্যাশনালিস্ট পার্টি (বি এন পি)-র প্রধান খালেদাকে পাঁচ বছরের কারাদণ্ড দেয় আদালত। প্রধানত তাঁর বয়সের কথা বিবেচনা করেই এদিন খালেদার চার মাসের জামিন মঞ্জুর করে হাইকোর্টের বেঞ্চ। কিন্তু এই আদেশের খানিকক্ষণের মধ্যেই মধ্য কুমিল্লা জেলার একটি আদালতের গ্রেপ্তারি পরওয়ানা এসে পৌঁছায় জেল কর্তৃপক্ষের হাতে। ফলে তাঁকে ফের ‘গ্রেপ্তার’ দেখানো হয়।

প্রসঙ্গত, হিংসা ছড়ানোর অভিযোগে গত জানুয়ারি মাসে কুমিল্লার জেলা আদালত খালেদাকে গ্রেপ্তার করার নির্দেশ দেয়। তিন বছর আগে সরকার বিরোধী হিংসার সময় খালেদা সক্রিয় ভূমিকা পালন করেন বলে অভিযোগ। সোমবার কুমিল্লা জেলা আদালতের নির্দেশনামায় খালেদাকে সেখানকার এজলাসে হাজির করাতে বলা হয়েছে।

এর আগে গত ৮ই ফেব্রুয়ারি আদালত খালেদার পাশাপাশি অন্য পাঁচজনকে দোষী সাব্যস্ত করেন। এদের মধ্যে খালেদার ছেলে এবং বি এন পি-র শীর্ষ নেতা তারিক রহমানকে ১০বছরের কারাদণ্ডে দণ্ডিত করা হয়। বর্তমানে ব্রিটেনে রয়েছেন তারিক। মামলায় অন্যতম ‘ফেরার’ অপরাধী দেশের প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের ভাইপো মোমিনুর রহমান।

Current Affairs

Featured Posts

Advertisement