শিবতলা আই সি ডি এস কেন্দ্র
উনুন ভেঙে ভাতের হাঁড়ি
উলটে জখম চার পড়ুয়া

নিজস্ব সংবাদদাতা

উলুবেড়িয়া, ১৩ই মার্চ – মাটির উনুন ভেঙে ভাতের হাঁড়ি উলটে গরম ফ্যান গায়ে পড়ে জখম হলো পড়ুয়ারা। মঙ্গলবার দুপুরে ঘটনাটি ঘটেছে বাগনান থানা এলাকার কল্যাণপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের আমড়াজোল শিবতলা আই সি ডি এস সেন্টারে। আহত হয় ৪ পড়ুয়া ও রান্নার কাজে যুক্ত এক মহিলাকে প্রথমে বাগনান গ্রামীণ হাসপাতালে আনা হয়। পরে দুই স্কুল পড়ুয়া মানসী কুন্ডু (৫) ও সুদীপ্ত দাস (৫) ওরফে পিকুকে উলুবেড়িয়া হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। রান্নার কাজে যুক্ত কাকলি হাজরাকে বাগনান হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বাকিদের প্রাথমিক চিকিৎসার পর ছেড়ে দেওয়া হয়। মানসী ও সুদীপ্তের গরম ফ্যানে হাত ও পায়ের বেশ কিছু অংশ পুড়ে গেছে। এলাকাবাসীদের অভিযোগ, দীর্ঘদিন ধরে ভাত তৈরির উনুনটা ভাঙা অবস্থায় ছিল। গ্রামবাসীরা বার বার সেটা সারাবার কথা বললেও কেউ তাদের কথায় কান দেয়নি।

গ্রামবাসীরা জানিয়েছে, আই সি ডি এস সেন্টারে ৩০ জনের মতো ছাত্রছাত্রী পড়ে। ইটের তৈরি সেন্টারে পাশাপাশি দুটো রুমে রান্নাঘর ও পড়ার জায়গা। পড়ার জায়গায় রুমের তালা দীর্ঘদিন ধরে বন্ধ। ফলে ছাত্রছাত্রীদের যাতায়াত করতে হয় রান্নাঘরের উপর দিয়ে। এদিন সেন্টার শুরু হয়। তখনও আই সি ডি এস সেন্টারের দায়িত্বপ্রাপ্ত শিক্ষিকা বাসন্তী হাজরা সেন্টারে আসেননি। রাঁধুনি কাকলি হাজরা রান্না চাপিয়ে দেন। ভাত প্রায় হয়ে এসেছিল। সেই সময় হঠাৎ করে মাটির উনুনটি ভেঙে যায়। ফলে গরম ভাতের হাঁড়ি পুরো উলটে যায়। এরপর হাঁড়ির গরম ফ্যান গড়িয়ে পাশের ঘরে গড়িয়ে চলে যায়। যেখানে ছাত্রছাত্রীরা বসেছিল। রুমটি বাইরে থেকে তালা দেওয়া থাকায় তা থেকে বেরতে পারেনি কেউ। ফলে গরম ফ্যানে জখম হয় চার পড়ুয়া। এরপর গ্রামবাসীরা তাদের উদ্ধার করে প্রথমে বাগনান, পরে উলুবেড়িয়া হাসপাতালে ভর্তি করে। খবর পাওয়ার ঘটনাস্থল পরিদর্শনে যান বাগনান ১নং বিডিও সত্যজিৎ বিশ্বাস।

গ্রামবাসী শ্যামল দে জানিয়েছে, দীর্ঘদিন ধরে উনুনটি প্রায় ভাঙা অবস্থায় আছে। কাউকে বলেও কিছু হয়নি। যার ফলে আজকের এই দুর্ঘটনা ঘটলো। প্রশাসন আগামীদিনে এই ব্যাপারে লক্ষ্য না দিলে আরো বড় দুর্ঘটনা ঘটবে।

Featured Posts

Advertisement