শাসকদলের ছত্রছায়ায় সরকারি জমি
বিক্রির দালালচক্র চলছে শিলিগুড়িতে

নিজস্ব সংবাদদাতা   ১৭ই এপ্রিল , ২০১৮

শিলিগুড়ি, ১৬ই এপ্রিল— শাসকদলের মদতে শিলিগুড়িতে সরকারি জমি দখল করে চলছে নির্মাণকাজ। সম্প্রতি রাজ্যের শাসকদলের ছত্রছায়ায় শিলিগুড়ি শহরে তৈরি হয়েছে জমির দালালদের দুটি চক্র। এদের মধ্যে একটি চক্র শহরের বিভিন্ন জমির বিক্রেতা এবং ক্রেতাকে চিহ্নিত করে তাদের থেকে মোটা টাকা আদায়ে চাপ দিচ্ছে ক্রমাগত। জমি দালালদের অপর চক্রটি সরকারি জমি, সরকারি বাড়ির জাল দলিল, নকল নথি তৈরিসহ নানা পদ্ধতি অবলম্বন করে সরকারি জমি বিক্রি করে টাকা রোজগার করছে। শাসকদলের মদতে চলা এই দালালচক্রের রমরমা বন্ধ করার ব্যবস্থা নিলেন শিলিগুড়ি পৌর নিগমের মেয়র, বিধায়ক অশোক ভট্টাচার্য।

মেয়রের নির্দেশে ইতিমধ্যেই পৌর কমিশনার এক্সিকিউটিভ ইঞ্জিনিয়ারকে একটি অর্ডার জারি করেছে। শিলিগুড়ি পৌর নিগমের ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগ সেই নির্দেশ অনুযায়ী শিলিগুড়ি পৌর এলাকার সমস্ত সরকারি জমি, সরকারি বাড়ি, সম্পত্তি চিহ্নিত করতে শুরু করে দিয়েছে। খুব শীঘ্রই সেই রিপোর্ট তাঁরা জমা দেবেন পৌর কমিশনারকে।

এই প্রসঙ্গে শিলিগুড়ির মেয়র অশোক ভট্টাচার্যের মন্তব্য: ‘সব বিষয়ে ইদানীং শিলিগুড়ি শহরে শাসকদল বেপরোয়া মনোভাব দেখাতে শুরু করেছে। অপরাধীরা চিহ্নিত হলেই তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।’ এই ধরনের অপরাধমূলক কাজ বন্ধের জন্য সমস্ত কাউন্সিলরকে বিশেষ উদ্যোগ গ্রহণের আহ্বান জানান মেয়র।

একই সঙ্গে শিলিগুড়ি শহরে বিভিন্ন রাস্তার ধারে ড্রেন বন্ধ করে গজিয়ে উঠেছে কিছু খাবারের দোকান। লক্ষ্য করা যাচ্ছে বহু মানুষ সেইসব দোকানের খাবার খেয়ে ড্রেনের মধ্যে অথবা রাস্তার মধ্যেই খাবারের উচ্ছিষ্ট, খবার প্লেট ইাত‌্যাদি সামগ্রী ফেলে দিচ্ছে। একই ভাবে দেখা যাচ্ছে পৌর এলাকার বিভিন্ন এলাকায় নির্মাণ কাজ সম্পন্ন হওয়ার পরও রাস্তার ওপর বালি, পাথর ফেলে রাখার প্রবণতাও বৃদ্ধি পাচ্ছে। পশ্চিমবঙ্গ পৌর কর্পোরেশন আইনের ২২৭, ২২৮, ২৩১ এবং ৪০০ ধারাতে এই ধরনের কার্যকলাপ যাঁরা করবেন, তাঁদের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যাবস্থা নেওয়া হবে বলে সোমবার সাংবাদিক সম্মেলনে জানান মেয়র।

এইসব ক্ষেত্রে তিন মাস পর্যন্ত জেল, পাঁচশো টাকা জরিমানা এবং পঞ্চাশ টাকা প্রতিদিন জরিমানা হতে পারে। তাই শহরবাসীর উদ্দেশে পৌর নিগমের কর্মীরা সকালে ময়লা সংগ্রহ করার পর রাস্তায় বা নর্দমায় ময়লা না ফেলার বার্তা দেন মেয়র অশোক ভট্টাচার্য। এই বিষয়গুলি পর্যবেক্ষণের জন্য শিলিগুড়ি পৌর নিগম নিজেদের খরচায় কয়েকজন বিল্ডিং ইন্সপেক্টর এবং কয়েকজন ওয়ার্ক অ্যাসিসট্যান্ট নিয়োগ করা হচ্ছে।

Current Affairs

Featured Posts

Advertisement