বিরোধীদের প্রার্থীপদ প্রত্যাহার
করতে তৃণমূলী হুমকি
সংহতি মিছিল বামফ্রন্টের

নিজস্ব সংবাদদাতা

উলুবেড়িয়া, ১৬ই এপ্রিল — গতবারে জেতা তেহট্ট-কাঁটাবেড়িয়া ১নং গ্রাম পঞ্চায়েতে ৯জন দলীয় প্রার্থীর ৮জনকে টিকিট দেয়নি তৃণমূল। তৃণমূলের নিজেদের এই দ্বন্দ্বের পাশাপাশি চলছে বিরোধী প্রার্থীদের বাড়ি বাড়ি হুমকি। একটাই দাবি, বিরোধীদের প্রার্থীপদ প্রত্যাহার করতে হবে। না হলে প্রাণে মেরে ফেলা হবে। কোথাও প্রার্থীকে আবার কোথাও প্রার্থীর পরিবারকে উড়ো ফোনে হুমকি দেওয়া হচ্ছে। বলা হচ্ছে প্রার্থীপদ তুলে না নিলে ভোটের পর দেখে নেওয়া হবে।

প্রার্থীপদ প্রত্যাহারের জন্য হুমকি দেওয়া হচ্ছে গোটা তেহট্ট-কাঁটাবেড়িয়া ১নং গ্রাম পঞ্চায়েত সহ আশেপাশের গ্রাম পঞ্চায়েতগুলিতে। সেইজন্য সোমবার বিকালে মানুষের গণতান্ত্রিক অধিকার হরণের বিরুদ্ধে, অবাধ ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচনের দাবিতে এবং সব বুথে সব দলের প্রার্থীদের নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করতে সংহতি মিছিল করে বামফ্রন্ট। মিছিলে পা মেলায় বহু মানুষ। মিছিল মল্লিকপোল থেকে শুরু হয়ে কমলাচক কালীতলা, শিবেরানা, পঞ্চানন্দতলা, সত্যপীরতলা হয়ে কাঁটাবেড়িয়া অটো স্ট্যান্ডে শেষ হয়। মিছিলে ছিলেন তেহট্ট-কাঁটাবেড়িয়া ১নং গ্রাম পঞ্চায়েতের ৩নং আসনের সি পি আই (এম) প্রার্থী হারু মাজি, ৫নং আসনের অষ্টমী দাস ও ৪নং আসনের গৌরাঙ্গ হাজরা। প্রার্থীপদ প্রত্যাহারের জন্য হুমকি দেওয়া হচ্ছে এঁদেরকেও। বাহাত্তর বছরের হারু মাজি বলছিলেন, ৮তারিখ থেকে বারে বারে হুমকি আসছে। ১০ তারিখ রাতে মুখে রুমাল বেঁধে বাড়িতে এসে তৃণমূলীরা স্ত্রী ও ছেলেকে হুমকি দিয়ে যায়, বাবাকে প্রার্থীপদ প্রত্যাহার করতে বল, না হলে ফল খারাপ হবে’। এই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে হারুবাবু বলেন, আমি ভোট দাঁড়াবোই, যা করার আছে ওরা করুক। একই রকম হুমকি পাচ্ছেন অষ্টমী ও গৌরাঙ্গ। অষ্টমীর বক্তব্য, এতদিন ধরে পার্টি করছি। আর ওদের কথায় আমাকে প্রার্থীপদ প্রত্যাহার করতে হবে। ওসব ভয়টয় আমি করি না। গৌরাঙ্গ হাজরা বললেন, আমি পার্টি সদস্য। আমি যদি ভয়ের কাছে নতিস্বীকার করি, তাহলে বাকিরা কি করবে ? আমাকে মেরে ফেললেও আমি প্রার্থীপদ প্রত্যাহার করবো না।

Current Affairs

Featured Posts

Advertisement