এবার হরিয়ানা, ড্রেনে মিলল
নাবালিকার ক্ষতবিক্ষত দেহ

সংবাদসংস্থা

রোহতক, ১৬ই এপ্রিল — বি জে পি শাসিত উন্নাও, কাঠুয়া, সুরাটের পরে এবার রোহতক! রবিবার হরিয়ানার রোহতকে তিথোলি গ্রামের একটি ড্রেন থেকে উদ্ধার করা হলো এক নাবালিকার ক্ষতবিক্ষত দেহ। শিউরে ওঠার মতো ঘটনাটির বিবরণ দিয়ে পুলিশ জানিয়েছে, মেয়েটির বয়স ৯থেকে ১০-এর মধ্যে। অন্তত পাঁচদিন আগে তাকে খুন করা হয়ে থাকতে পারে। একটি সবুজ ব্যাগে ভরে ড্রেনে ফেলে দেওয়া হয়েছিল দেহটিকে। দেহের একটি হাত ছিঁড়ে নেওয়া হয়েছে। দেহটি পাওয়া গেছে একেবারে পচা-গলা অবস্থায়। কে বা কারা এই ঘটনা ঘটিয়েছে, তা নিয়ে পুলিশ এখনও অন্ধকারে। খুনের আগে তার ওপর যৌন নির্যাতন হয়েছিল কিনা, তা এখনই বোঝা যাচ্ছে না। অজ্ঞাতপরিচয় ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে একটি অভিযোগ দায়ের করে পুলিশি তদন্ত শুরু হয়েছে। নিহত নাবালিকার পরিচয় জানার চেষ্টা চলছে।

তদন্তকারী পুলিশ অফিসার দেবী সিং সোমবার সাংবাদিকদের কাছে বলেন, রবিবার রোহতকের তিথোলি গ্রামের লোকজন ড্রেনের মধ্যে একটি সন্দেহজনক ব্যাগ পড়ে থাকতে দেখে স্থানীয় থানায় খবর দেন। আমরা গিয়ে ব্যাগটি খুলেই আঁতকে উঠি। দেখা যায়, ব্যাগের মধ্যে দুমড়ানো-মুচড়ানো অবস্থায় একটি শিশুর হাত-হীন দেহ! দেখে মনে হচ্ছিল, কোন হিংস্র পশু যেন শিশুটির হাত খুবলে ছিঁড়ে নিয়েছে! দেহটি ময়না তদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে। অটোপসি রিপোর্ট দেখেই আমরা চূড়ান্তভাবে কিছু বলতে পারবো।’

সাম্প্রতিক সময়ে বি জে পি শাসিত বেশ কয়েকটি রাজ্যে নাবালিকাকে ধর্ষণ এবং খুনের পরপর ঘটনায় দেশজুড়ে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। লক্ষ্যণীয়ভাবে প্রায় প্রতিটি ক্ষেত্রেই শাসক বি জে পি নেতা-মন্ত্রীরা হয় অভিযুক্ত, নতুবা অভিযুক্তদের পক্ষে দাঁড়িয়ে বিপাকে পড়েছেন। মাত্র দুদিন আগে গুজরাটের সুরাট শহরে ১১বছরের একটি বালিকার ক্ষতবিক্ষত মৃতদেহ মিলেছে। তার দেহে ৮০টিরও বেশি আঘাতের চিহ্ন ছিল। রবিবার পুলিশ জানিয়েছে, খুন করার আগে সম্ভবত সেই নাবালিকাকে বন্দি করে নৃশংস অত্যাচার চালানো হয়েছিল, এমনকি ধর্ষণও করা হয়েছিল। যথারীতি এখনও দোষীর নাগাল পায়নি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর নিজের রাজ্য গুজরাটের পুলিশ।

তার ঠিক আগেই জম্মু ও কাশ্মীরের কাঠুয়ায় একটি মন্দির থেকে উদ্ধার করা হয় ৮বছরের মেয়ে আসিফার ক্ষতবিক্ষত দেহ। খুনের আগে দল বেঁধে আটদিন ধরে তাকেও ধর্ষণ করা হয়েছিল। পুলিশ অফিসার থেকে মন্দিরের কেয়ারটেকার, সকলে মিলে ছোট্ট শিশুটির দেহ ছিন্নভিন্ন করে। এর পরে সকলের ঘৃণা জাগিয়ে কার্যত ধর্ষকদের পক্ষেই রাস্তায় নামতে দেখা যায় গেরুয়া বাহিনীকে। অভিযুক্তদের সমর্থনে মিছিলে বেনজিরভাবে যোগ দেন জম্মু ও কাশ্মীরের দুই বি জে পি মন্ত্রীও। তবে জোরালো প্রতিবাদের জেরে রাজ্য মন্ত্রিসভা থেকে শরিক বি জে পি-র এই দুই নেতাকে সরিয়ে দিতে বাধ্য হন মুখ্যমন্ত্রী মেহবুবা মুফতি।

এদিকে, চলতি মাসের গোড়াতেই উত্তর প্রদেশের উন্নাওয়ের বাসিন্দা ১৭বছর বয়সী এক কিশোরী প্রকাশ্যে জানায়, বি জে পি বিধায়ক কুলদীপ সিং সেনগার এক বছর আগে সদলবলে তাকে ধর্ষণ করেছে। টানা এক বছর সুবিচার না পাওয়ায় দোষীদের শাস্তির দাবিতে গত ৮ই এপ্রিল উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের বাড়ির সামনে সপরিবারে আত্মহত্যা করতে গিয়েছিল ওই কিশোরী। শেষপর্যন্ত তাদের প্রাণরক্ষা হয়। বি জে পি শাসিত রাজ্যের পুলিশের এহেন নিস্ক্রিয়তায় দেশজুড়ে চাঞ্চল্য ছড়ালে শেষপর্যন্ত অভিযুক্ত বিধায়ককে গ্রেপ্তার করতে বাধ্য হয় সি বি আই।

নাবালিকাকে ধর্ষণ রাজকোটে: গুজরাটের রাজকোটে শাস্ত্রীনগর এলাকায় ৯বছর বয়সি এক বালিকাকে গত পনেরো দিনে অন্তত তিনবার ধর্ষণ করেছে প্রতিবেশী এক যুবক। ২৪বছর বয়সি মুরলি ভারভাদ নামে অভিযুক্তকে সোমবার গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

নাবালিকাকে ধর্ষণ শিবপুরীতে: বি জে পি শাসিত আরেক রাজ্য মধ্য প্রদেশের শিবপুরীতে ছবছর বয়সি এক শিশুকন্যাকে ধর্ষণ করেছে এক যুবক। পুলিশ জানিয়েছে, আমরাউদা গ্রামের এই ঘটনায় দিলীপ যাদব নামে অভিযুক্তকে সোমবার গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

নাবালিকা ধর্ষণ ওডিশাতেও : ওডিশার বালেশ্বর জেলার সোরো অঞ্চলে ৮বছর বয়সি এক বালিকাকে এক বিবাহিত ব্যক্তি ধর্ষণ করেছে বলে অভিযোগ মিলেছে। গত শনিবারের এই ঘটনায় ৪৮বছর বয়সি অভিযুক্তকে ধরে বেদম প্রহার করেন গ্রামবাসীরা। পরে পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে। মাত্র একদিন আগেই গত শনিবার ৪বছর বয়সি এক শিশুকন্যাকে ধর্ষণের অভিযোগে উত্তাল হয়ে উঠেছিল ওডিশার নীলাগিরি অঞ্চল। এই এই দুই নাবালিকা ধর্ষণের ঘটনা সোমবার ওডিশা বিধানসভাতেও তোলেন বিরোধী বিধায়করা।

Current Affairs

Featured Posts

Advertisement