শর্তসাপেক্ষে কাশ্মীরে
বন্ধ থাকবে অভিযান,
জানালো কেন্দ্র

সংবাদসংস্থা   ১৭ই মে , ২০১৮

নয়াদিল্লি, ১৬ই মে—রমজান মাসে কাশ্মীরে কোনও অভিযান চালাবে না নিরাপত্তা বাহিনী। রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মেহবুবা মুফতিসহ বিভিন্ন মহল থেকে রমজান মাসে জম্মু ও কাশ্মীরে সেনা অভিযান বন্ধ রাখার দাবি উঠেছিল। কিন্তু জোট শরিক বি জে পি এই সংঘর্ষ বিরতির বিরুদ্ধে ছিল। কাঠুয়ার পর তা নিয়ে দুই শরিকের মধ্যে সংঘাত চরমে ওঠে। শেষ পর্যন্ত চাপের মুখেই সংঘর্ষ বিরতিতে সায় দিতে বাধ্য হলো কেন্দ্র। শনিবারই রাজ্য সফরে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। সেই সফরের ঠিক দুদিন আগেই বুধবার কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের তরফে এই শর্তসাপেক্ষে অভিযান বন্ধের কথা ঘোষণা করা হলো। কেন্দ্রের দাবি, রমজান মাসে শান্তি বজায় রাখতে জম্মু ও কাশ্মীর উপত্যকায় কোনও রকম বড়সড় অভিযান চালানো হবে না। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক সঙ্গে একথাও স্পষ্ট করে দিয়েছে যে, গোটাটাই অবশ্য নির্ভর করছে উপত্যকার পরিস্থিতির উপরে। এ বিষয়ে কেন্দ্র জানিয়েছে, উপত্যকায় কোনও রকম উগ্রপন্থী হামলা হলে তা ঠেকাতে অবশ্যই তৎপর হবে নিরাপত্তারক্ষীরা।

এদিন এই বিষয়ে একাধিক টুইট করে নিজেদের অবস্থান জানিয়েছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক। কোনও টুইটে বলা হয়েছে, “রমজান মাসে সমস্ত রকমের অভিযান থেকে বিরত থাকতে নিরাপত্তারক্ষীদের অনুরোধ করা হচ্ছে। মুসলিম সম্প্রদায়ের শান্তিপ্রিয় মানুষজন উপত্যকায় যাতে শান্তিপূর্ণ পরিবেশে রমজান পালন করতে পারেন, সে জন্যই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।” পাশাপাশি, টুইট করে এও জানানো হয়েছে, “নিরীহ মানুষজনকে রক্ষা করতে বা কোনও রকমের হামলা প্রতিরোধ করতে তার উপযুক্ত জবাব দিতেও প্রস্তুত থাকবেন নিরাপত্তারক্ষীরা। সরকারের আশা, মুসলিম ভাই-বোনেদের নির্বিঘ্নে রমজান পালনে সাহায্য করতে কেন্দ্রের এই উদ্যোগে সমস্ত শান্তিপ্রিয় মানুষই সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেবেন।”

বুধবার থেকেই শুরু হয়েছে রমজান মাস। তা শেষ হবে আগামী ১৪ই জুন। এই এক মাস উপত্যকায় সমস্ত রকমের অভিযান বন্ধ থাকার কথাই বলা হলো স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের তরফে। রমজান মাসের পাশাপাশি অমরনাথ যাত্রার কথাও মাথায় রেখেও এই সংঘর্ষ বিরতি চাইছিল রাজ্য প্রশাসন। রমজান মাসে অভিযান বন্ধের কথা জানানো হলেও অমরনাথ যাত্রার সময়েও তা চলবে কিনা সে ব্যাপারে কিছুই জানানো হয়নি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের তরফে। কারণ সেই যাত্রা শুরু হবে ২৮শে জুন থেকে। চলবে ২৬শে আগস্ট পর্যন্ত।

এদিন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী রাজনাথ সিং মুফতিকে ফোন করে কেন্দ্রের সিদ্ধান্তের কথা জানিয়ে দিয়েছেন। মুখ্যমন্ত্রী মেহবুবা মুফতি এবং বিরোধী নেতা ওমর আবদুল্লা দুজনেই কেন্দ্রের এই সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছেন।

Current Affairs

Featured Posts

Advertisement