কলকাতা কর্পোরেশন
বিক্ষোভ ইঞ্জিনিয়ারদের

নিজস্ব প্রতিনিধি   ১৭ই মে , ২০১৮

কলকাতা, ১৬ই মে— নিয়োগে এবং পদোন্নতিতে দুর্নীতির অভিযোগ এনে কলকাতা কর্পোরেশনের কমিশনারের ঘরের সামনে বিক্ষোভ দেখালেন ইঞ্জিনিয়াররা। তাঁদের বক্তব্য, মিউনিসিপ্যাল সার্ভিস কমিশনে চলছে দুর্নীতি ও স্বজনপোষণ। এমনকি পদোন্নতির ক্ষেত্রেও দেখা যাচ্ছে বিভেদনীতি। এর ফলে বঞ্চিত হচ্ছেন প্রকৃত প্রার্থীরা। এর বিরুদ্ধে এদিন বিক্ষোভ দেখিয়েছেন ইঞ্জিনিয়াররা। কে এম সি ইঞ্জিনিয়ারস্‌ অ্যান্ড অ্যালায়েড সার্ভিস-এর নেতৃবৃন্দের বক্তব্য, সমস্যার সমাধান না হলে আগামী ২১শে মে কর্পোরেশন অধিবেশনের দিন মেয়রকে ঘিরে ধরে বিক্ষোভ দেখাবেন ইঞ্জিনিয়াররা। প্রয়োজনে আদালতেও যাবেন তাঁরা।

বুধবার মিছিল করে গিয়ে তাঁরা কমিশনারের ঘরের সামনে বিক্ষোভ দেখান। তাঁদের দাবি, তোলা দিয়ে নয়, কোনও রকম স্বজনপোষণও নয়, গ্রেডেশন তালিকা অনুযায়ী ইঞ্জিনিয়ারদের পদোন্নতি বহাল রাখতে হবে। এছাড়া ডিগ্রি ও ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারদের মধ্যে বিভেদ সৃষ্টিকারী নিয়োগ নীতি চালু করা চলবে না। তফসিলি ও আদিবাসীদের ক্ষেত্রে কোনও রকম বঞ্চনা করা চলবে না। নেতৃবৃন্দের বক্তব্য, এর আগে মিউনিসিপ্যাল সার্ভিস কমিশনের দুর্নীতি সামনে এসেছে। নিয়োগের পরীক্ষায় বিল্ডিং দপ্তরের এক উচ্চপদস্থ আধিকারিকের ছেলে প্রথম স্থান এবং তাঁর মেয়ে চতুর্থ স্থানের অধিকারী হয় কিভাবে? এর জবাব চেয়েছি আমরা। অন্যদিকে ডিপ্লোমা ও ডিগ্রি ইঞ্জিনিয়ারদের পদোন্নতির নিয়ম কানুন পরিবর্তন করা হয়েছে যা মোটেই সর্বজনগ্রাহ্য নয়। পরীক্ষা পদ্ধতি চালু হলে স্বজনপোষণ ও দুর্নীতি আরও বেড়ে যাওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। এতদিন পদোন্নতি চালু ছিল অভিজ্ঞতার ভিত্তিতে। ওই ব্যবস্থাই চালু করতে হবে পুনরায়।

এদিন সংগঠনের সম্পাদক মানস সিনহা জানিয়েছেন, এইভাবে দিনের পর দিন বঞ্চনা চলবে না। চোখের সামনে দেখা যাচ্ছে দুর্নীতি হচ্ছে। পরীক্ষা পদ্ধতির মধ্যেই লুকিয়ে রয়েছে এর বীজ। আমাদের কিছু দাবি আছে। অবিলম্বে দাবিগুলি না মেটানো হলে এরপর মেয়রকে ঘিরে বিক্ষোভ দেখানো হবে। তাতেও যদি সমাধান না হয়, তাহলে আদালতে যাবেন কে এম সি ইঞ্জিনিয়াররা।

Current Affairs

Featured Posts

Advertisement