শনিবারই জুভের জার্সিতে
শেষ ম্যাচ বুঁফোর

সংবাদসংস্থা   ১৮ই মে , ২০১৮

তুরিন, ১৭ই মে— অবশেষে জুভেন্টাসের জার্সিকে বিদায় জানানোর সিদ্ধান্ত নিয়েই ফেললেন কিংবদন্তি গোলকিপার জিয়ানলুইগি বুঁফো। সামনের শনিবার এই মরশুমের ইতালির সিরি এ লিগের শেষ ম্যাচে ভেরোনা-জুভেন্টাস। সেই ম্যাচেই শেষবারের মতো নামবেন বিশ্ব জয়ী গোলরক্ষক। পার্মার হয়ে ১৯শে নভেম্বর ১৯৯৫সালে মাত্র ১৭বছর ২৯৫ দিন বয়সে সিরি এ-তে অভিষেক হয় বুঁফোর। ০-০ হয়েছিল ম্যাচটি। কোপা ইতালীয় এবং উয়েফা কাপ জেতেন পারমার হয়ে। ২০০১ সালে ২৩.৩ মিলিয়ন পাউন্ডের রেকর্ড ট্রান্সফার মূল্যে (গোলরক্ষক) জুভেন্টাসে যোগ দেন জিজি। তারপর কেটে গেছে ১৭বছর।

বৃহস্পতিবার নিজেই এই বিষয়টি জানিয়েছেন বুঁফো। কিংবদন্তির কথায়, ‘পরের সপ্তাহে সময় এবং পরিস্থিতি বুঝে আমি অন্তিম সিদ্ধান্ত নেব। জুভেন্টাস আমাকে কোচিংয়ের প্রস্তাবও দিয়েছে। আপাতত ফুটবল নয়, ৬মাস বিশ্রাম নেব।’ খবর অনুযায়ী খেলা ছাড়ার পর বুঁফোর কাছে কোচিং করানোর প্রস্তাব আছে। সেই পথে হাঁটতে পারেন ২০০৬ বিশ্বজয়ী গোলকিপার। চ্যাম্পিয়ন্স লিগে ইংলিশ রেফারি মাইকেল অলিভারকে নিগ্রহের জন্য ক্ষমা চেয়েছেন বুঁফো। হালকা মেজাজে বুঁফো জানালেন, ‘ওই সময় অতিরিক্ত আগ্রাসন দেখানোর জন্য আমি ক্ষমাপ্রার্থী। অলিভারের সঙ্গে আবার দেখা হলে ওকে জড়িয়ে ধরে বলব, পেনাল্টির সিদ্ধান্ত নেওয়ার সময় আর একটু বেশি সময় নিতে পারতে।’

ফুটবল জীবনে ১০৫০টি ম্যাচ খেলেছেন জিজি। ২০০৬ বিশ্বকাপসহ সিরি এ মোট জিতেছেন ৯বার। ৫বার কোপা ইতালিয়া। ১টি উয়েফা কাপ। দেল পিয়েরোর অবসরের পর ২০১২সালে জুভের অধিনায়ক হন। টানা ৭বার সিরি এ জিতেছেন। তবে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জয়ের আক্ষেপ নিয়েই গ্লাভস জোড়া তুলে রাখছেন বিশ্ব ফুটবলের অন্যতম সেরা গোলকিপার। দেশের হয়ে ১৭৬টি ম্যাচ খেলছেন জিয়ানলুইগি। নভেম্বরে আজুরিরা বিশ্বকাপে যোগ্যতা অর্জন করতে ব্যর্থ হওয়ার পরেই আন্তর্জাতিক ফুটবলকে বিদায় জানান। এমনকি ৪ঠা জুন নেদারল্যান্ডসের বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক ফ্রেন্ডলি ম্যাচ দেখার ইচ্ছা নেই তাঁর। বর্ণময় কেরিয়ারের জন্য জুভেন্টাস কর্তৃপক্ষকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন তিনি। পরের মরশুম থেকে জুভের তিনকাঠির দায়িত্ব সামলাবেন আর্সেনাল প্রাক্তন ওজসিয়েচ সেসনি।

Featured Posts

Advertisement