শিলিগুড়ি কর্পোরেশনের ফ্রি কোচিং-ই
রাতু সোরেনের স্বপ্ন বাস্তব করতে চলেছে

নিজস্ব সংবাদদাতা   ১৪ই জুন , ২০১৮

শিলিগুড়ি, ১৩ই জুন— পিছিয়ে পড়া শ্রেণির মেধাবী রাতু সোরেনের চিকিৎসক হওয়ার স্বপ্ন বাস্তব করতে চলেছে শিলিগুড়ি পৌরনিগমের বিনামূল্যে জয়েন্ট এন্ট্রান্স কোচিং। স্কুলের গন্ডিতে পা রেখেই শিলিগুড়ির মাল্লাগুড়ির বাসিন্দা রাতু সোরেন স্বপ্ন দেখেছিল চিকিৎসক হওয়ার। শিলিগুড়ি বয়েজ স্কুলের ছাত্র রাতু ছোট থেকেই অত্যন্ত মেধা এবং অসীম স্মৃতি শক্তির অধিকারী। কিন্তু মেধা হলেই তো হবে না। ডাক্তারি পড়ার জন্য জয়েন্ট এন্ট্রান্স পাশ করতে প্রয়োজন সঠিক কোচিং। শিলিগুড়ি শহরে ব্যাঙের ছাতার মতো বেসরকারি কোচিং সেন্টার থাকলেও সেখানে কোচিং করানো এ রকম একটি পরিবারের কাছে বেশ কঠিন। কারণ সেই সব কোচিং সেন্টারের খরচের সাধ্য সকলের নেই।

২০১৫ সালে শিলিগুড়ি পৌরনিগমে বোর্ড গঠনের পর বামফ্রন্ট সিদ্ধান্ত মতো শিক্ষা, সংস্কৃতিদপ্তরের মেয়র পারিষদ ড. শংকর ঘোষ পিছিয়ে পড়া, দুঃস্থ মেধাবী ছাত্রছাত্রীদের জন্য একটি বিনামূল্যে কোচিং সেন্টার খোলার স্বপ্ন দেখেছিলেন দুবছর আগে। কিন্তু শুরুটা হবে কি করে? কারণ বেসরকারি কোচিং সেন্টারগুলো কোনোভাবেই সহযোগিতা করতে রাজি ছিল না।

এই উদ্যোগকে বাস্তবায়িত করতে এগিয়ে এলেন ত্রিদীপ বসু, প্রবীর পান্ডা, সুমন্ত বাগচি, রথীন পাল, অজিত রায়ের মতো শিক্ষকরা। এগিয়ে এলেন শিলিগুড়ি পৌরনিগমের শিক্ষা, সংস্কৃতি দপ্তরের প্রধান আধিকারিক সুদীপ্ত চৌধুরিও। শনিবার এবং রবিবার দুপুর থেকে বিকাল পর্যন্ত জয়েন্ট এন্ট্রান্সের জন্য এই কোচিং সেন্টারটি চলত শিলিগুড়ি ইন্ডোর স্টেডিয়ামে। অন্যান্য শিক্ষকদের মতো সময় বের করে মাঝেমধ্যে ক্লাস নিতেন মেয়র পারিষদ স্বয়ং। এই সেন্টারেই নিয়মিত কোচিং নিতে শুরু করে রাতু সোরেন। এবারের উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় তার প্রাপ্ত নম্বর ৪৭০। জয়েন্ট এন্ট্রান্স (মেডিক্যাল) পরীক্ষায় সারা দেশের মধ্যে রাতু সোরেনের র‌্যাঙ্কিং ১৫২৫। রাতুর এই সাফল্যে আবেগময় হয়ে শিক্ষক সুমন্ত বাগচী বলেন, মৃদুভাষী রাতু একদিনও ক্লাস বাদ দেয়নি। কিছু কিছু দিন হয়েছে কেউ না এলেও রাতু একা ক্লাস করেছে। কোচিং সেন্টারের শিক্ষকদের কৃতজ্ঞতা জানিয়ে মেয়র পারিষদ ড. শংকর ঘোষ বলেন, অন্যান্য শিক্ষকরাও যদি এভাবে এগিয়ে এসে বিনামূল্যে কোচিং করান তাহলে ভবিষ্যতে আমরা আরও রাতু সোরেন শিলিগুড়িকে উপহার দিতে পারব। আবেগপ্রবণ গলায় রাতু সোরেনের কথায় শিলিগুড়ি পৌরনিগমের শিক্ষা, সংস্কৃতি বিভাগের এই উদ্যোগ এবং শিক্ষকদের দেওয়া দিনের পর দিন বিনামূল্যে কোচিং এর কথা সারা জীবন মনে রাখব।

Current Affairs

Featured Posts

Advertisement