ভারত:আফগানিস্তান টেস্ট
সাদা জার্সিতে আজ অভিষেক রশিদদের

সংবাদসংস্থা   ১৪ই জুন , ২০১৮

বেঙ্গালুরু, ১৩ই জুন— আফগানিস্তান ক্রিকেট নতুন ভোর দেখার অপেক্ষায়। বৃহস্পতিবারের সকাল আর পাঁচটা সকালের চেয়ে আলাদা। ১৪ই জুনকে ইতিহাসে ঠাঁই দিয়ে ক্রিকেটের সনাতন ও কুলীন ফরম্যাটে ঢুকে পড়তে চলেছে আফগানিস্তান।

চারিদিকে রাশিয়া বিশ্বকাপ নিয়ে মাতামাতি। দিনের বেলাটা টেস্ট দেখার কথা ভাবাই যেত। বিরাট কোহলি না থাকায় সেই সম্ভাবনাও কম। আফগানদের টেস্ট অভিষেক ব্যাপক সাড়া ফেলবে, তা মনে করার বিশেষ কারণ নেই। রশিদ খানরা ভাবছেনও না এসব নিয়ে। অভিষেক ম্যাচকে স্মরণীয় করে রাখার দিকেই তাঁদের যাবতীয় নজর।

২০০১ সালেও আফগানিস্তান নামে কোনও দেশের উল্লেখ আই সি সি-তে ছিল না। যুদ্ধ আর সন্ত্রাসে বিধ্বস্ত দেশে ক্রিকেট হতে পারে বলেও কারও বিশ্বাস ছিল না। ২০০৮ সালে আই সি সি বিশ্ব ক্রিকেট লিগের পঞ্চম ডিভিসনে জায়গা দেয় আফগানদের। ক্রিকেটের নিয়ামক সংস্থা পরিচালিত লিগগুলির মধ্যে পঞ্চম ডিভিসনই সবচেয়ে নিচে। সেখান থেকে উঠে দাঁড়িয়ে একটা বিশ্বকাপ খেলে ফেলেছে ভারতের প্রতিবেশী দেশটি। তিনটি টি২০ বিশ্বকাপের যোগ্যতাও অর্জন করে ফেলেছে। ২০১৯ ইংল্যান্ড বিশ্বকাপের ছাড়পত্রও অর্জন করেছে।

পাঁচদিনের ফরম্যাটে কোহলিহীন ভারতকেও যে চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দেবে দ্বাদশ টেস্ট খেলিয়ে দেশের প্রতিনিধিরা, তেমন নয়। তবু রশিদ খানদের হালকাভাবে নিতে নারাজ ভারতীয় দলের ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক আজিঙ্ক রাহানে। প্রাক ম্যাচ সাংবাদিক সম্মেলনে তিনি বলেছেন, ‌‘ক্রিকেট খুব মজার খেলা। এখানে কোনও দলকেই হালকাভাবে নেওয়া যায় না।’ অন্যান্য দলের বিরুদ্ধে যেমন আগ্রাসী ক্রিকেট খেলেন, আফগানিস্তানের বিরুদ্ধেও তেমনই ইঙ্গিত রাহানের।

করুণ নায়ার না লোকেশ রাহুল, দোটানায় রয়েছে টিম ম্যানেজমেন্ট। প্রথমজন দারুণ ফর্মে। দ্বিতীয়জনের দক্ষতা। রাহুলকে তিনে খেলিয়ে পুজারাকে চার নম্বরে ঠেলে দেওয়া হতে পারে। উইকেটের টার্ন দেখে অশ্বিন ও জাদেজার পাশাপাশি তৃতীয় স্পিনার হিসাবে কুলদীপকেও ভাবা হচ্ছে। সীমিত ওভারের ক্রিকেটে ক্রমশ বিষ্ময় হয়ে ওঠা আফগান লেগস্পিনার রশিদ খান এবং আরেক তরুণ স্পিনার মুজিব উর রহমানের দিকে আলাদা নজর থাকবে।

Current Affairs

Featured Posts

Advertisement