ভোট কারচুপির অভিযোগ
খতিয়ে দেখা উচিত: পাক রাষ্ট্রপতি

সংবাদসংস্থা   ১৫ই আগস্ট , ২০১৮

ইসলামাবাদ, ১৪ই আগস্ট— স্বাধীনতা দিবসের ভাষণে পাকিস্তানের রাষ্ট্রপতি মামুন হোসেন বেনজিরভাবেই তুললেন নির্বাচনে ভোট জালিয়াতির অভিযোগ। বললেন, ভোট প্রক্রিয়াকে ‘পুরোপুরি স্বচ্ছ’ রাখতে ভোট কারচুপি নিয়ে বিরোধীদের অভিযোগ নির্বাচন কমিশনের খতিয়ে দেখা উচিত।

জিন্নাহ কনভেনশন সেন্টারে ৭২তম স্বাধীনতা দিবস উদ্‌যাপনের সরকারি অনুষ্ঠানে ভাষণ দিচ্ছিলেন রাষ্ট্রপতি। বলেছেন, সরকারি প্রতিষ্ঠানগুলিকে শক্তিশালী ও স্বাধীন করাটা দেশের জন্য গুরুত্বপূর্ণ।

জুলাইয়ের ২৫ তারিখের নির্বাচনে জালিয়াতি নিয়ে পাকিস্তান মুসলিম লিগ-নওয়াজ সহ বেশ কয়েকটি দলই অভিযোগ জানিয়েছে। পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ নির্বাচনে জালিয়াতি করে জিতেছে বলে তাদের অভিযোগ। সোমবারই মুসলিম লিগ-নওয়াজের সভাপতি শাহবাজ শরিফ একে ‘ঐতিহাসিক জালিয়াতি’ বলে বর্ণনা করেছেন। ৩৪২-সদস্যের সংসদে শরিফের দলের আসন সংখ্যা ৮২, যেখানে বৃহত্তম দল হিসাবে ইমরান খানের তেহরিক-ই-ইনসাফ পেয়েছে ১৫৮টি আসন।

স্বাধীনতা দিবস উদ্‌যাপনের সময় রাষ্ট্রপতি মামুন হোসেন মনে করিয়ে দিয়েছেন এই নির্বাচন হয়েছে আগের সরকারের আনা আইন মেনে, যে আইনে সরকার নির্বাচন কমিশনকে শক্তিশালী ও স্বাধীন করতে চেয়েছিল।

প্রধানমন্ত্রী হিসাবে ইমরান খান শপথ নেবেন শনিবার। পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফের (পি টি আই) মুখপাত্র ফাওয়াদ চৌধুরি সোমবার একথা জানিয়েছেন। নবনির্বাচিত আইনসভার উদ্বোধনী অনুষ্ঠান ছিল সোমবার। শপথ নিয়েছেন নবনির্বাচিত ৩২৮ জন সদস্য। তাঁদের শপথ পাঠ করান বিদায়ী স্পিকার সর্দার আয়াজ সাদিক। ইমরানের সঙ্গেই শপথ নেন পাকিস্তান মুসলিম লিগ-নওয়াজের সভাপতি শাহবাজ শরিফ, পি পি পি-র চেয়ারম্যান বিলাওয়াল ভুট্টো জারদারি। শপথ শেষে বুধবার সকাল ১০টা পর্যন্ত অধিবেশন মুলতবি ঘোষণা করা হয়েছে।

Current Affairs

Featured Posts

Advertisement