শিক্ষাক্ষেত্রে নৈরাজ্যের
প্রতিবাদে সোচ্চার শিক্ষকরা

নিজস্ব সংবাদদাতা   ১৫ই সেপ্টেম্বর , ২০১৮

জলপাইগুড়ি ও কোচবিহার, ১৪ই সেপ্টেম্বর — শিক্ষাক্ষেত্রে নৈরাজ্য ও বিশৃঙ্খলার প্রতিবাদসহ একগুচ্ছ দাবিতে শুক্রবার অবস্থান বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করলেন শিক্ষক শিক্ষিকারা। এ বি টি এ-র এই কর্মসূচি নিয়েছিল।

সংগঠনের জলপাইগুড়ি জেলা কমিটির উদ্যোগে মিছিল করে জেলা বিদ্যালয় পরিদর্শক (মাধ্যমিক)-এর দপ্তরে গিয়ে অবস্থান বিক্ষোভ করেন শিক্ষক-শিক্ষিকারা। সংগঠনের জলপাইগুড়ি জেলা সম্পাদক প্রসেনজিৎ রায় বলেন, ‘শিক্ষার আঙিনায় আজ এক চরম অরাজকতা চলছে। সরকারি আইনকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে শিক্ষক শিক্ষিকাদের প্রতিহিংসামূলক বদলি করা হচ্ছে। এই ঘটনার তীব্র প্রতিবাদ করছি আমরা। একই সাথে আমরা এই সব বিষয়ে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের প্রয়োজনীয় হস্তক্ষেপের দাবি জানিয়েছি।’

অবস্থানে বক্তব্য রাখেন প্রসেনজিৎ রায়, প্রণব দত্ত, কৌশিক গোস্বামী, ভগীরথ রায় প্রমুখ। বক্তারা বর্তমান সময়ে সরকারের শ্রমিক কর্মচারী স্বার্থবিরোধী নীতিগুলির বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধভাবে লড়াইয়ে গতি বাড়াবার আহ্বান জানান। অবস্থান থেকে একটি প্রতিনিধিদল সমকাজে সমবেতন, শূন্যপদে শিক্ষক-শিক্ষিকা ও শিক্ষাকর্মী নিয়োগ করাসহ ১২ দফা দাবিতে স্মারকলিপি জমা দেন।

এদিন কোচবিহার জেলা বিদ্যালয় পরিদর্শকের দপ্তরের সামনে বিকাল ৩টে থেকে সাড়ে ৫টা পর্যন্ত অবস্থান বিক্ষোভ চলে। অবস্থান থেকে বিদ্যালয় পরিদর্শককে ডেপুটেশন দিল নিখিল বঙ্গ শিক্ষক সমিতির কোচবিহার জেলা শাখা। অবস্থান বিক্ষোভ মঞ্চে বক্তব্য রাখেন সংগঠনের জেলা সম্পাদক সুজিত দাস, শিক্ষকনেতা সৌমেন নাথ, ধ্বজেন বর্মণ, গোবিন্দ সরকার, খগেন্দ্রনাথ সরকার প্রমুখ। অবস্থান পরিচালনা করেন শ্যামলেন্দু দাস ও পল্লব দেবকে নিয়ে গঠিত সভাপতিমণ্ডলী।

সুজিত দাস বলেন, শিক্ষাক্ষেত্রে নৈরাজ্যের অবসানে ঐক্যবদ্ধ আন্দোলনের পথে হাঁটছে শিক্ষক সমাজ। স্কুল সার্ভিস কমিশনের শিক্ষক নিয়োগের তালিকায় নাম না থাকা সত্ত্বেও কারো কারো দয়া-দাক্ষিণ্যে তাতে ঠাঁই পাচ্ছে কারো কারো নাম।  ইতিমধ্যে ভেরিফিকেশন হয়ে গেছে তাদের। দুদিন পর কোনও না কোনও বিদ্যালয়ে শিক্ষকতার সাথে যুক্ত হয়ে পড়বে তারা। আর তালিকাভুক্তরা এই সুযোগ থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন। এর বিরুদ্ধে তীব্র আন্দোলনের পথে হাঁটছে নিখিল বঙ্গ শিক্ষক সমিতি। এ মাসের ২৬তারিখে রানি রাসমণি রোডে ঐতিহাসিক সমাবেশ এবং অবস্থান কর্মসূচিতে গোটা রাজ্যের কয়েক হাজার শিক্ষক, শিক্ষিকা, শিক্ষাকর্মী যোগ দেবেন বলে এদিন তিনি জানান।

Current Affairs

Featured Posts

Advertisement