অন্ধ্রের মুখ্যমন্ত্রীর নামে
গ্রেপ্তারি পরোয়ানা

বি জে পি-র প্রতিহিংসা, বলছে টি ডি পি

সংবাদসংস্থা   ১৫ই সেপ্টেম্বর , ২০১৮

অমরাবতী, ১৪ই সেপ্টেম্বর— গ্রেপ্তার করতে হবে অন্ধ্র প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রীকে। ২১শে সেপ্টেম্বরের মধ্যে তাঁকে বাকি অভিযুক্তদের সঙ্গে হাজির করতে হবে আদালতে। মহারাষ্ট্রের একটি আদালত এই মর্মে নির্দেশ দিয়েছে পুলিশকে। মুখ্যমন্ত্রী চন্দ্রবাবু নাইডুর দল টি ডি পি সরাসরি দায়ী করেছে বি জে পি-র প্রতিহিংসার রাজনীতিকে।

টি ডি পি জানিয়েছে, আদালতে হাজিরা দেবেন চন্দ্রবাবু নাইডু। গ্রেপ্তার করা হলে হবে। টি ডি পি নেতাদের ক্ষোভ, নরেন্দ্র মোদীর সরকারের বিরুদ্ধে সংসদে অনাস্থা এনেছিল দল। বিরোধীদের বিক্ষোভে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নিচ্ছেন চন্দ্রবাবু নাইডু। মহারাষ্ট্রে সরকার চালাচ্ছে বি জে পি। পুরানো মামলাকে হাতিয়ার করে বিপাকে ফেলার চেষ্টা হচ্ছে চন্দ্রবাবু নাইডুকে। টি ডি পি নেতা এবং অন্ধ্র প্রদেশের শিল্পমন্ত্রী অমরনাথ রেড্ডির হুঁশিয়ারি, ষড়যন্ত্রের জন্য চড়া দাম চোকাতে হবে বি জে পি-কে।

২০১০-এ গোদাবরী নদীর ওপর প্রস্তাবিত বাবলি প্রকল্পের বিরোধিতায় বিক্ষোভে নেমেছিলেন চন্দ্রবাবু নাইডু। অবিভক্ত অন্ধ্র প্রদেশে তিনি তখন বিরোধীনেতা। টি ডি পি-র বক্তব্য ছিল, এই প্রকল্পে নদীর প্রবাহপথে জনজীবনে গুরুতর ক্ষতি হবে। পুনের কাছে এই বিক্ষোভে দলের অন্য নেতাদের সঙ্গে মহারাষ্ট্র পুলিশ গ্রেপ্তার করেছিল নাইডুকে। জামিনের আবেদন না করলেও পরে তাঁকে ছেড়ে দেওয়া হয়।

আট বছরের পুরানো ওই ঘটনায় সম্প্রতি আবেদন জমা পড়েছে মহারাষ্ট্রের নান্দেদ জেলার আদালতে। বিচারবিভাগীয় ম্যাজিস্ট্রেট এন আর গজভিয়ে নাইডুসহ মোট ১৫জনকে গ্রেপ্তারের নির্দেশ দিয়েছেন শুক্রবার। এই তালিকায় রয়েছেন অন্ধ্র প্রদেশের আরও দুই মন্ত্রী।

চন্দ্রবাবু কিছু না বললেও কড়া প্রতিক্রিয়া দিয়েছেন তাঁর পুত্র এবং রাজ্যের মন্ত্রী এন লোকেশ। তিনি বলেছেন, তেলেঙ্গানা এখন আলাদা রাজ্য হয়েছে। তখন ছিল অন্ধ্র প্রদেশের সঙ্গে। তেলেঙ্গানার মানুষের জন্য লড়াই করেছিলেন চন্দ্রবাবু নাইডু। তিনি সেই সময় জামিনও চাননি।

অন্ধ্র প্রদেশের নতুন রাজধানী অমরাবতীতে টি ডি পি-র একের পর এক নেতা ক্ষোভ জানাতে থাকেন বি জে পি-র বিরুদ্ধে। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর যোগসাজশের অভিযোগ তুলেছেন তাঁরা। অভিযোগ কাটানোর চেষ্টায় অন্ধ্র প্রদেশে বি জে পি সভাপতি কানা লক্ষ্মীনারায়ণ বলেছেন, নাইডুর নামে এই মামলা যখন দায়ের হয়েছিল, মহারাষ্ট্রে তখন সরকারে ছিল কংগ্রেস।

Current Affairs

Featured Posts

Advertisement