বি এস এন এল কর্মী সম্মেলন

নিজস্ব সংবাদদাতা   ১২ই অক্টোবর , ২০১৮

গোবরডাঙা, ১১ ই অক্টোবর— বি এস এন এল-কে প্রতিনিয়ত বেসরকারি মোবাইল সংস্থাগুলির সাথে লড়াই করেই টিকে থাকতে হচ্ছে। যদি কেন্দ্রীয় সরকারের সদিচ্ছা আর উদ্যোগ থাকত তাহলে এই সংস্থাকে প্রতিযোগিতার ঊর্ধ্বে রাখা যেত। এই কঠিন পরিস্থিতির মধ্যেই বি এস এন এল-কে প্রতিযোগিতায় টিকে থাকতে হচ্ছে। যদি সংস্থার কর্তৃপক্ষ আরও একটু উদার হতেন তাহলে গ্রাহক পরিষেবাকে আরও উন্নতমানে পৌঁছানো যেত। প্রয়োজনের তুলনায় অল্প সংখ্যক কর্মচারী অছেন। অবসর নেওয়ার পর কর্মচারী চাহিদা অনুযায়ী নিয়োগ হচ্ছে না। বর্তমানে নতুন প্রযুক্তিকে ব্যবহার করে আরও উন্নমানের পরিষেবা গ্রাহকদের কাছে পৌঁছে দেওয়া সম্ভব। সম্ভবনা থাকলেও কোনও এক অজানা কারণে সেই লক্ষমাত্রায় পৌঁছানো সম্ভব হচ্ছে না। সর্বভারতীয় সংগঠন না হওয়া সত্ত্বেও একটি সংগঠন কর্মচারীদের ভয়- ভীতি দেখাচ্ছে। এর বিরুদ্ধে সমস্ত কর্মচারীদের নিয়ে ঐক্যবদ্ধ আন্দোলন গড়ে তোলা ছাড়া দ্বিতীয় কোনও পথ খোলা নেই।

বি এস এন এল এমপ্লয়িজ ইউনিয়নের কলকাতার উদ্যোগে হাওড়া, হুগলী, উত্তর ও দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলার দুদিনব্যাপি ৮ম সম্মেলন সম্প্রতি হাবরায় অনুষ্ঠিত হয়। সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন ৯৫ জন প্রতিনিধি। আলোচনায় অংশ নেন ১৮ জন প্রতিনিধি। উদ্বোধন করেন সংগঠনের রাজ্যের সহসম্পাদক অমিতাভ চট্টোপাধ্যায়। সম্মেলনে প্রতিবেদন পেশ করেন জেলা সম্পাদক মানিক সরকার। সম্মেলনে অভিনন্দন জানিয়ে বক্তব্য রাখেন রাজ্য সম্পাদক অনিমেশ মিত্র, জেনারেল ম্যানেজার কলকাতা এস কে দেভ , ড. নিরঞ্জন বন্দোপাধ্যায়। সম্মেলন থেকে গৌতম চ্যাটার্জিকে সভাপতি, মানিক সরকারকে সম্পাদক ও রামপ্রসাদ দত্তকে কোষাধ্যক্ষ করে ১৯ জনের জেলা কমিটি গঠিত হয়েছে।

Current Affairs

Featured Posts

Advertisement