যুবশক্তি শারদ
সংখ্যা প্রকাশিত

নিজস্ব প্রতিনিধি   ১২ই অক্টোবর , ২০১৮

কলকাতা, ১১ই অক্টোবর— প্রকাশিত হলো ভারতের যুব ফেডারেশনের মুখপত্র যুবশক্তির শারদ সংখ্যা। বৃহস্পতিবার ডি ওয়াই এফ আই রাজ্যদপ্তরে যুবশক্তির আনুষ্ঠানিক প্রকাশ করেন সাহিত্যিক কিন্নর রায়। তিনি বলেন, ‘এই মুহূর্ত, এই দিনটা অত্যন্ত আনন্দের। শরতের আকাশে রক্তিম পদ্মের গোছা ফুটে উঠল।’ তাঁর সংযোজন, ‘এই পদ্ম বি জে পি-র পদ্ম কিন্তু নয়। অধিকার যাত্রা থেকে কৃষকের দাবি, বেকার যুবদের চাকরির দাবি থেকে ছাত্রদের পড়াশোনার দাবি এই সব দিনে যুবশক্তি প্রকাশিত হয়।’ তিনি আরও বলেন, ‘অত্যন্ত খারাপ সময়ের মধ্যে দিয়ে চলেছি আমরা। ধর্মকে হাতিয়ার করে বিভেদ তৈরি করছে একটা দল। কোর্টকে সরিয়ে মন্দির বানানোর চেষ্টা করছে। আরেক দল ব্রিজ ভাঙলে, আগুন লাগলেও তার তোয়াক্কা না করে উৎসব নিয়ে মেতে রয়েছে। কার্যত আধা-ফ্যাসীবাদী শাসন চলছে গোটা দেশেই। মনে রাখতে হবে যুবশক্তি কোনও মোটাসোটা কাগজ নয়। মগজে শান দেওয়ার অস্ত্র এটা।’

যুবশক্তির প্রাক্তন সম্পাদক অর্ণব ভট্টাচার্য বলেন, গত সাত বছরে এমন কোনও শরত আসেনি যে শরতে শিউলি ফুলে রক্তের দাগ লাগেনি। কিন্তু তারপরেও হার না মানা লড়াই চালাতে হবে। সংগঠনের প্রাক্তন সম্পাদক জামির মোল্লা বলেন, যুবশক্তি শারদ সংখ্যা ৫০ পেরিয়ে ৫১ বছরে পড়ল। অনেক সংগ্রামের মধ্যে দিয়ে এগিয়েছে যুবশক্তি। বর্তমান পরিস্থিতিতে মতাদর্শের ওপর যে ধরনের আক্রমণ নেমে আসছে তা এর আগে কখনও হয়নি। ডি ওয়াই এফ আই রাজ্য সম্পাদক সায়নদীপ মিত্র বলেন, প্রতিবাদের ময়দানে যাঁরা এখনও লিখছেন তাঁদের মধ্যে অন্যতম কিন্নর রায়। স্রোতের বিপরীতে শিরদাঁড়া উঁচু করে কলম চালাতে পারেন তিনি। এদিন সমগ্র সভাটি পরিচালনা করেন সংগঠনের সভানেত্রী মীনাক্ষী মুখার্জি। তিনি বলেন, যুবশক্তি শুধুমাত্র একটি পত্রিকা নয়। লড়াইয়ে থাকার হাতিয়ার যুবশক্তি। শারদ সংখ্যা প্রকাশ অনুষ্ঠানের উপস্থিত ছিলেন এস এফ আই রাজ্য সম্পাদক সৃজন ভট্টাচার্য, এস এফ আই মুখপত্র ‘ছাত্র সংগ্রাম’ পত্রিকার সম্পাদক অরুণাঞ্জন সাহাসহ অন্যন্য যুব এবং ছাত্র নেতৃবৃন্দ।

Current Affairs

Featured Posts

Advertisement