ডি আর ডি ও-র সরঞ্জাম সমেত
মাদারিহাটে গ্রেপ্তার সন্দেহভাজন

নিজস্ব সংবাদদাতা   ১২ই অক্টোবর , ২০১৮

জলপাইগুড়ি, ১১ই অক্টোবর - বিন্নাগুড়ি সেনা ছাউনির গোয়েন্দা শাখা, এস এস বি এবং পুলিশের যৌথ অভিযানে ডি আর ডি ও (ডিফেন্স রিসার্চ অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট অর্গানাইজেশন)-র সরঞ্জামসহ সন্দেহভাজন এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। সেনা সূত্রে এখবর জানা গিয়েছে। ধৃতকে আদালতে হাজির করে পুলিশ হেপাজতে নেওয়া হবে বলে পুলিশ সূত্রে জানা গেছে।

ডুয়ার্সের মাদারিহাট থেকে এই সন্দেহভাজনকে দুষ্কৃতীকে বুধবার গ্রেফতার করা হয়েছে। ধৃতের নাম রফিকুল ইসলাম। জানা গেছে, বৃহস্পতিবার রাত পর্যন্ত সেনাবাহিনীর গোয়েন্দা বা পুলিশ কেউই ওই কিট খোলেনি। শুক্রবার ধৃতকে আলিপুরদুয়ার জেলা আদালতে হাজির করানো হবে। এদিন রাতে পুলিশ জানায়, সেনাবাহিনী এই কিটের বিষয়ে কোনও লিখিত অভিযোগ করেনি। সেনাবাহিনী সূত্রের বক্তব্য, ধৃত দুষ্কৃতী এই কিটটি ভুটানে বিক্রির উদ্দেশ্যে এনেছিল। বিন্নাগুড়ি সেনাবাহিনীর গোয়ান্দা শাখা গোপন সুত্রে এই খবর পায়। সেই মতো ভুটান সীমান্তে কর্মরত এস এস বি জওয়ান ও সেনাবাহিনীর বিন্নাগুড়ির গোয়েন্দা শাখার অফিসাররা পুলিশকে সঙ্গে নিয়ে বিশেষ অভিযান চালিয়ে ওই দুষ্কৃতীকে আটক করে। জিজ্ঞাসাবাদের পর তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। ধৃতকে আলিপুরদুয়ার জেলার মাদারিহাট থানায় পুলিশের হাতে তুলে দেয় সেনাবাহিনী। কিন্তু কিভাবে ডি আর ডি ও-র সরঞ্জাম তার হাতে পৌঁছালো তা জানা যায়নি বলে পুলিশ সূত্রে জানা গেছে ।

জানা গেছে, ডি আর ডি ও-র বিজ্ঞানী নীরজ কুমারের স্বাক্ষরসহ একটি চিঠিও পাওয়া গিয়েছে ওই কিটের সঙ্গে। তা নিয়েও প্রশ্ন উঠছে। জয়গাঁর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার গণেশ বিশ্বাস বলেছেন, পুলিশ তদন্ত শুরু করেছে। বিস্তারিত তথ্য দেওয়া সম্ভব নয়।



Current Affairs

Featured Posts

Advertisement