বেহালায় ভয় দেখিয়ে প্রতিবন্ধী
তরুণীকে বারবার ধর্ষণের
দায়ে গ্রেপ্তার পুরোহিত

নিজস্ব প্রতিনিধি   ৯ই নভেম্বর , ২০১৮

কলকাতা, ৮ই নভেম্বর— বেহালায় পুলিশ আবাসনের পাশেই ভয় দেখিয়ে এক প্রতিবন্ধী তরুণীকে দীর্ঘদিন ধর্ষণ করার অভিযোগে স্থানীয় এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করল পুলিশ। ধৃতের নাম উপেন্দ্র পাঠক (৫০)। বস্তিবাসী মেয়ের এই ঘটনায় চারিদিকে হই হই পড়ে গিয়েছে। জানা গিয়েছে, ধৃত উপেন্দ্র পাঠক একটি মন্দিরে পুরোহিতের কাজ করত।

মানসিক প্রতিবন্ধী তরুণী আর অভিযুক্ত উপেন্দ্র পাঠক একই পাড়ার বাসিন্দা হওয়ায় প্রথমে তেমন কিছুই সামনে আসেনি। কিন্তু দীর্ঘদিন ধরে চলতে থাকা ওই নির্যাতনের মাত্রা ছাড়িয়ে যায়। এই বিষয় নিয়ে কথা বললে খুন করার হুমকিও দিয়েছিল ওই পুরোহিত।

বৃহস্পতিবার সকালে ফের ওই তরুণীকে গোপনে হুমকি দিচ্ছিল অভিযুক্ত উপেন্দ্র পাঠক। সেই দৃশ্য দেখতে পান লাঞ্ছিত তরুণীর বোন। তিনি পরে বিষয়টি পুলিশকে জানান। এরপরেই গ্রেপ্তার করা হয় উপেন্দ্রকে। এই খবর এরপর চাউড় হতেই এলাকার মানুষজন উপেন্দ্র পাঠকের বাড়িতে ভাঙচুর চালায়।

পুলিশের খবর, বেহালার এক সিনেমা হলের কাছে রয়েছে একটি মন্দির। ওখানেই অবস্থিত বস্তি। সেখানে থাকতেন যৌন নির্যাতিতা তরুণী। তাঁর বিয়েও হয়েছিল। কিন্তু পরে মানসিক সমস্যা দেখা দেওয়ার তাঁর স্বামী ওই তরুণীকে ত্যাগ করেন। বৃহস্পতিবার ওই তরুণীর ছোট বোন জানান, ‘মন্দিরের পাশেই পুকুরে স্নান করতে যেতেন দিদি। সেই সুযোগই কাজে লাগিয়েছে ওই পুরোহিত।’ বোন অভিযোগ করেন, তাঁর দিদি দুমাসের অন্তঃসত্ত্বা।

অভিযোগ মানসিক প্রতিবন্ধী তরুণীর বোন দাবি করেছেন তিনি এদিন সকালে পুরোহিত উপেন্দ্র পাঠককে ভয় দেখাতে দেখেছেন। সে নাকি নির্যাতিতা তরুণীকে প্রাণে মারার হুমকি দিচ্ছিল। মানসিক প্রতিবন্ধকতার জন্য ওই পুরোহিতের সব অত্যাচার সহ্য করার পরেও এদিনের হুমকিও ওই তরুণী হজম করছিলেন। কিন্তু সবটা জেনে যাওয়াও নির্যাতিতার বোন সরাসরি পর্ণশ্রী থানায় চলে যায়। অভিযোগ পাওয়ার পরেই ঘটনাস্থলে এসে পুলিশ গ্রেপ্তার করে উপেন্দ্র পাঠককে। যদিও সে সব অভিযোগ মিথ্যা বলে দাবি করেছে।

Current Affairs

Featured Posts

Advertisement