সব গরিবকে ২ টাকা কেজি দরে
চাল দেওয়ার দাবি পুরুলিয়ায়

নিজস্ব সংবাদদাতা   ৭ই ডিসেম্বর , ২০১৮

পুরুলিয়া, ৬ ডিসেম্বর— উন্নয়নের নাকি জোয়ার জঙ্গলমহলে। অথচ মানবাজার-২ ব্লকের বুড়িবাঁধ ও জামতোড়িয়া অঞ্চলের মানুষ সামান্য নলবাহিত পানীয় জলটুকুও পান না। দূর-দূরান্ত থেকে মানুষকে প্রতিদিন জল আনতে হয়। আবার সরকার ঘোষণা করেছে ধানের দাম ১৭৭০ টাকা। অথচ এলাকার কৃষকরা অভাবের তাড়নায় ১২০০ টাকায় ধান বিক্রি করতে বাধ্য হচ্ছেন। হেলদোল নেই প্রশাসনের। অবিলম্বে প্রত্যেক অঞ্চলেই ধান ক্রয় কেন্দ্র খোলার দাবি জানানো হয়েছে। আবার যোজনায় দলবাজি বন্ধ করতে হবে। আদিবাসীদের জমি থেকে উচ্ছেদ করা চলবে না। কৃষকসভা এবং খেতমজুর ইউনিয়নের পক্ষ থেকে মানবাজার-২ এর বিডিওকে ডেপুটেশন দেওয়া হয়। তার আগে বিশাল মিছিল এলাকা পরিকল্পনা করে। বক্তব্য রাখেন রঘু সিং, সুশান্ত বেসরা, বৈদ্যনাথ সরেন, হৃষিকেশ মাহাতো প্রমুখ।

সিপিআই(এম) রঘুনাথপুর ১ ও রঘুনাথপুর-২ এরিয়া কমিটির উদ্যোগে এলাকার তীব্র জল কষ্ট রোধে ব্যবস্থা, সমস্ত গরিব মানুষকে ২ টাকা কেজি দরে তিরিশ কেজি চাল দেওয়ার দাবিও জোরদার হয়েছে। বিডিও এবং জয়েন্ট বিডিও দপ্তরে ছিলেন না তবুও ডেপুটেশন দেওয়া হয়। পথসভায় বক্তব্য রাখেন লোকনাথ হালদার, মিহির আচার্য প্রমুখ।

কৃষকদের ক্ষতিপূরণ, এলাকার বিড়ি শ্রমিক হাসপাতাল চালু করা সহ একাধিক দাবিতে বামফ্রন্টের পক্ষ থেকে ঝালদা-২ ব্লকের বিডিও’কে ডেপুটেশন দেওয়া হয়। এলাকাজুড়ে প্রায় ২ কিলোমিটার পথ মিছিল করার পর পথসভায় বক্তব্য রাখেন নিখিল মুখার্জি, হারাধন ব্যানার্জি, ভীষম কুমার, ধীরেন মাহাতো প্রমুখ জেলা বামফ্রন্ট নেতৃবৃন্দ।