কেরালা বিধানসভায়
কক্ষত্যাগ বামপন্থীদের

সংবাদ সংস্থা

তিরুবনন্তপুরম, ১৭ই জুলাই — সরকারী চাকরিতে অবসরের বয়সসীমা বাড়ানো এবং অংশগ্রহণমূলক বা কন্ট্রিবিউটারি পেনশন-এর সিদ্ধান্তের প্রতিবাদ জানিয়ে মঙ্গলবার কেরালা বিধানসভায় ওয়াক আউট করলেন এল ডি এফ বিধায়করা। ওয়াকআউটের আগে বিরোধী দলনেতা ভি এস অচ্যুতানন্দন স্পষ্ট হুঁশিয়ারি দিয়ে, অবসরের বয়সসীমা বাড়ানোর সিদ্ধান্তের জন্য মানুষের কড়া প্রতিরোধের মুখোমুখি হতে হবে সরকারকে। এই প্রতিরোধ সবচেয়ে বেশি আসবে রাজ্যের যুবসমাজের কাছ থেকে, যাঁরা ঐ সিদ্ধান্তের জন্য সরাসরি ক্ষতিগ্রস্ত হবেন। রাজ্য সরকারের তরফে দাবি করা হয়েছে যে আলোচনা হলেও এই ধরনের কোনো সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি।

কেরালা সরকার সরকারী কর্মচারীদের অবসরের বয়সসীমা ৫৬ থেকে বাড়িয়ে ৬০বছর এবং আগামী দিনের কর্মীদের জন্য অংশগ্রহণমূলক বা কন্ট্রিবিউটারি পেনশন প্রকল্প চালুর সিদ্ধান্ত নিয়েছে বলেই খবর। সরকারের তরফে একথা অস্বীকার করা হলেও এদিন বিধানসভায় মুখ্যমন্ত্রী ওমেন চণ্ডী এবং অর্থমন্ত্রী কে এম মানি জানিয়েছেন যে রাজ্যে কন্ট্রিবিউটারি পেনশন এবং অবসরের বয়সসীমা বাড়ানোর এখনই সবচেয়ে আদর্শ সময়। চণ্ডী জানান, পশ্চিমবঙ্গ, কেরালা এবং তামিলনাডু ব্যতীত দেশের সব রাজ্যেই ঐ কন্ট্রিবিউটারি পেনশন প্রকল্প চালু আছে সরকারী কর্মীদের জন্য। জানা গেছে, যুব কংগ্রেসও সরকারের ঐ উদ্যোগ নিয়ে তাদের আপত্তির কথা জানিয়েছে।

Featured Posts

Advertisement