আজকের দিনে



 

ছবির খাতা

জনতার ব্রিগেড

আরো ছবি

ভিডিও গ্যালারি

Video

শ্রদ্ধাঞ্জলি

আন্তর্জাতিক

কলকাতা

 

শতবর্ষে শ্রদ্ধা

আপনার রায়

গরিবের পাশে থেকেছে বামফ্রন্টই

হ্যাঁ
না
জানি না
 

ই-পেপার

Back Previous Pageমতামত

বিলগ্নীর প্রতিবাদে ধর্মঘটে
অচল ভাইজাগ ইস্পাত

সংবাদ সংস্থা

বিশাখাপত্তনম, ২৪শে জুলাই— শ্রমিক ধর্মঘটে অচল হয়ে গেলো বিশাখাপত্তনম স্টিল প্ল্যান্ট। কেন্দ্রের কংগ্রেস নেতৃত্বাধীন ইউ পি এ সরকার রাষ্ট্রীয় ইস্পাত নিগম লিমিটেডের বিলগ্নীকরণের যে সিদ্ধান্ত নিয়েছে তার প্রতিবাদে সি আই টি ইউ, এ আই টি ইউ সি, আই এন টি ইউ সি, বি এম এস এবং এইচ এম এস-সহ ১৬টি শ্রমিক সংগঠন একযোগে মঙ্গলবার ধর্মঘটের ডাক দিয়েছিল। ভাইজাগ ইস্পাত কারখানায় এদিন ধর্মঘটের একশো শতাংশ প্রভাব পড়েছে। ১৬হাজার স্থায়ী শ্রমিকসহ মোট ৩৬হাজার শ্রমিক, কর্মচারীরা এদিনের ধর্মঘটে যোগ দেন। কেন্দ্রীয় সরকারের শ্রমবিরোধী নীতির প্রতিবাদে শ্রমিকদের এই ঐক্যবদ্ধ সংগ্রামকে অভিনন্দন জানিয়েছে স্টিল ওয়ার্কার্স ফেডারেশন। সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক পি কে দাস এদিনের সফল ধর্মঘটের জন্য সমস্ত ট্রেড ইউনিয়ন সকল শ্রমিকদের অভিনন্দন জানিয়েছেন।

উল্লেখ্য, কেন্দ্রীয় সরকার ভাইজাগ স্টিল প্ল্যান্টের ১০শতাংশ শেয়ার এবং সেইলের ১০.৩৪শতাংশ শেয়ার বিক্রির সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এর প্রতিবাদে ট্রেড ইউনিয়নগুলি এদিন ধর্মঘটের ডাক দিয়েছিল। এ আই টি ইউ সি নেতা ডি আদিনারায়ণ জানিয়েছেন, মঙ্গলবার এ আই টি ইউ সি-র সঙ্গে সি আই টি ইউ এবং আই এন টি ইউ সি-ও ধর্মঘটে যাওয়ার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে। ফলে ধর্মঘটের একশো শতাংশ প্রভাব পড়েছে। তিনি বলেন, কেন্দ্র এখন ১০শতাংশ শেয়ার বিক্রির কথা বললেও এটা আসলে ধাপে ধাপে লাভজনক রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থাটিকে বিলগ্নীকরণের পথে নিয়ে যাওয়ার প্রথম ধাপ।

ধর্মঘটের পথে যাওয়ার আগে ট্রেড ইউনিয়নগুলি সরকারকে এই সর্বনাশা পথ থেকে সরে আসার জন্য বারে বারে হুঁশিয়ারি দিয়েছে। গত ২০শে জুলাই ভাইজাগ ইস্পাত কারখানার শ্রমিকরা পরিবার সমেত সারাদিন ধরে জেলাশাসকের অফিসের সামনে রিলে ধর্মঘটে অংশ নেন। ভাইজাগের শ্রমিকদের আন্দোলনের সমর্থনে সোমবার দুর্গাপুর, অ্যালয়, বার্নপুর, রৌরকেলা, সালেম, কলকাতা, বোলানি, কিরিকুর, বোকারো ও ভদ্রাবতীর শ্রমিকরা ইস্পাত কর্তৃপক্ষের কাছে বিক্ষোভ দেখান। এরপরেও কেন্দ্রীয় সরকার বিলগ্নীকরণের পথ থেকে সরে না এলে আরো বৃহত্তর আন্দোলনের হুঁশিয়ারি দিয়েছে শ্রমিক সংগঠনগুলি।

এদিকে অন্ধ্র প্রদেশের কাকিনাড়াতেই যথাযথ সুরক্ষা ব্যবস্থার দাবিতে শ্রমিক ধর্মঘটে অচল হলো করমণ্ডল সার এবং রাসায়নিক কারখানা। পরে শ্রমিক ধর্মঘট ভাঙতে সি আই টি ইউ-র এক নেতাকে গ্রেপ্তার করে পুলিস। বাসওয়া দেল্লিরাও (৫০) নামে এক শ্রমিক কাজ করতে গিয়ে দুর্ঘটনায় জখম হন কয়েক দিন আগে। তাঁর চিকিৎসার ব্যবস্থা করার জন্য এবং কাজের সময় শ্রমিকদের নিরাপত্তার ব্যবস্থা সুনিশ্চিত করার দাবিতে ধর্মঘটের ডাক দেয় সি আই টি ইউ। পরে ধর্মঘট ভাঙতে পুলিস ডাকে কারখানা কর্তৃপক্ষ। সি আই টি ইউ নেতা রামান্নাকে গ্রেপ্তার করে পুলিস। তবে শ্রমিক ধর্মঘটের চাপে ঐ আহত শ্রমিককে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে ভর্তি করতে বাধ্য হয় পুলিস।

মতামত
এই খবরটি সম্পর্কে আপনার মতামত
 

আমাদের এই খবরটি সম্পর্কে আপনার মতামত পেলে বাধিত থাকব। তবে যথাযথ যাচাই না করে ২৪ঘন্টার আগে আপনার মতামত ওয়েবসাইটে দেখা যাবে না।

Top
 
Name
Email
Comment
For verification please enter the security code below