ব্যবসায়ীকে প্রতারণা, ধৃত ১

নিজস্ব প্রতিনিধি

কলকাতা, ৮ই আগস্ট — সাত লক্ষ টাকা প্রতারণার দায়ে এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করলেন কলকাতা পুলিসের গোয়েন্দারা। ঐ ব্যক্তি রানীগঞ্জের এক কম্পিউটার ব্যবসায়ীকে কলকাতায় ডেকে ৭লক্ষ টাকা প্রতারণা করেছিল। ধৃত ঐ ব্যক্তির নাম গোপাল হার্টওয়াল। বর্ধমানের বাসিন্দা এই গোপাল হার্টওয়াল কলকাতায় কম্পিউটারের যন্ত্রাংশ কিনিয়ে দেওয়ার নামে ঐ ব্যবসায়ীকে প্রতারণা করে। রানীগঞ্জের রামবাগানের ব্যবসায়ী সন্তোষ কুমার গোয়েঙ্কাকে সে ৭লক্ষ টাকা প্রতারণা করেছে।

কলকাতা গোয়েন্দা পুলিস প্রধান পল্লবকান্তি ঘোষ জানিয়েছেন, কলকাতায় কম্পিউটারের যন্ত্রাংশ কিনিয়ে দেওয়ার নামে গোপাল হার্টওয়াল ঐ ব্যবসায়ীকে শহরের চারজন ইলেকট্রনিক্স বিক্রেতার সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দিয়েছিলো। টেলিফোনের কথামতো সন্তোষকুমার গোয়েঙ্কা ১লা আগস্ট নিউমার্কেট এলাকায় টাকা নিয়ে আসেন। সেইমতো সন্তোষকুমার গোয়েঙ্কা ৩১শে জুলাই এসে উঠেছিলেন নিউমার্কেট এলাকার একটি হোটেলে। সঙ্গে একটি ব্যাগে নিয়ে এসেছিলেন ৭লক্ষ টাকা। পরদিন ঐ ব্যবসায়ীরা ফোন করে সন্তোষকুমার গোয়েঙ্কাকে নিউমার্কেট এলাকার শ্রীরাম মার্কেটে আসতে বলে। সেখানে ঠিক একই রকম ব্যাগ নিয়ে আসেন ব্যবসায়ীরাও। কথা বলার ফাঁকে তারা এক সময় সন্তোষকুমার গোয়েঙ্কার সঙ্গের ব্যাগটি সরিয়ে দেয়।

যন্ত্রাংশ নিয়ে আসার নামে তারা দীর্ঘক্ষণ শ্রীরাম মার্কেটের সামনে দাঁড় করিয়ে রাখে সন্তোষকুমার গোয়েঙ্কাকে। এরপরে কিছুতেই ঐ ব্যক্তিরা ফিরে না আসায় গোয়েঙ্কা ফোন করেন গোপাল হার্টওয়ালকে। নিজেকে পরিচ্ছন্ন প্রমাণ করতে গোপাল হার্টওয়াল নিজেই সন্তোষকুমার গোয়েঙ্কাকে নিয়ে যান নিউমার্কেট থানায়। সেখানে অভিযোগও দায়ের করা হয়। কিন্তু গোয়েন্দারা তদন্তে নেমে জানতে পারেন, গোটা ঘটনাটি পূর্বপরিকল্পিত। রানীগঞ্জের বাসিন্দা সন্তোষকুমার গোয়েঙ্কা কলকাতার বিভিন্ন মার্কেট ঠিকমতো চিনতেন না। সেটাই কাজে লাগিয়ে ইচ্ছাকৃতভাবে নানা লোকদের ব্যবসায়ী সাজিয়েছিলো গোপাল হার্টওয়াল। এই কাজে সে ৭লক্ষ টাকার ২লক্ষ হাতিয়েছে। ঐ টাকা এদিন উদ্ধারও করেন গোয়েন্দারা। বাকি প্রতারকদের খোঁজ চালানো শুরু করেছেন গোয়েন্দারা।