আজকের দিনে



 

ছবির খাতা

জনতার ব্রিগেড

আরো ছবি

ভিডিও গ্যালারি

Video

শ্রদ্ধাঞ্জলি

 

শতবর্ষে শ্রদ্ধা

আপনার রায়

গরিবের পাশে থেকেছে বামফ্রন্টই

হ্যাঁ
না
জানি না
 

ই-পেপার

Back Previous Pageমতামত

বার্নপুরে ধর্ষণের পরে খুন শিশুকন্যা
মানুষের বিক্ষোভে লাঠিচার্জ করে দাপট দেখালো পুলিস

নিজস্ব সংবাদদাতা

দুর্গাপুর, ৮ই আগস্ট — ২৪ ঘণ্টা নিখোঁজ থাকার পর সাত বছরের স্কুল ছাত্রীর রক্তাক্ত নিথর দেহ উদ্ধার হ‍‌লো। দ্বিতীয় শ্রেণীর ছাত্রী, সাত বছরের এই শিশু কন্যাকে গলার নলি কেটে নৃশংস কায়দায় খুন করা হয়েছে। মর্মান্তিক এই ঘটনাটি ঘটেছে বার্নপুরে। এমনকি তার শরীরের নিম্নাঙ্গেও আঘাতের চিহ্ন ময়নাতদন্তের রিপোর্টে। অভিযোগ, ধর্ষণ করেই খুন করা হয়েছে। এই ঘটনায় বুধবার দিনভর রীতিমতো উত্তাল হয়ে উঠে বার্নপুর। নিরাপত্তার দাবিতে ক্ষুব্ধ মানুষ পথে নামে, ঘেরাও করে থানা। মানুষের স্বতঃস্ফূর্ত প্রতিবাদে এদিন কার্যত বন্‌ধের চেহারা নেয় বার্নপুর। অপরাধের ঘটনা ঠেকাতে চরম ব্যর্থ পুলিস লাঠিচার্জ করেই বিক্ষোভরত স্থানীয় বাসিন্দাদের ছত্রখান করে। পুলিসের লাঠিচার্জে আহত হন একাধিকজন।

এদিকে বার্নপুর-আসানসোল জুড়ে বাড়তে থাকা অপরাধের ঘটনা, খুনের ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করে আসানসোল-দুর্গাপুরের পুলিস কমিশনারকে চিঠি দিয়েছেন সাংসদরা। তাঁরা জানিয়েছেন,মাত্র এক বছরেই এই এলাকায় প্রায় ২০টি খুনের ঘটনা ঘটেছে। কমিশনারেট হওয়ার পরেও আইনশৃঙ্খলার গুরুতর অবনতি হয়েছে জানিয়ে প্রশাসনকে অবিলম্বে তা মোকাবিলায় যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়ার আবেদন জানানো হয়েছে এই চিঠিতে। চিঠিতে সই করেছেন সাংসদ বাসুদেব আচারিয়া, বংশগোপাল চৌধুরী, রামচন্দ্র ডোম, সুস্মিতা বাউড়ি। সাত বছরের এই শিশু কন্যার খুনের ঘটনার অবিলম্বে প্রশাসনের সক্রিয় হস্তক্ষেপের দাবিতে এই চিঠিতে সই করেছেন কংগ্রেস সাংসদ মৌসুম বেনজির নূরও।

ময়নাতদন্তের রিপোর্টেই স্পষ্ট শারীরিক অত্যাচার করেই সাতবছরের এই শিশুকন্যাকে খুন করা হয়েছে। তাঁর নাম পুষ্প ঠাকুর। বার্নপুর গার্লস প্রাথমিক বিদ্যালয়ে দ্বিতীয় শ্রেণীর ছাত্রী সে। বাড়ি বার্নপুরের বৈষ্ণববাঁধে। মঙ্গলবার সকালে স্কুলে এসেছিল। স্কুলে অর্ধবার্ষিক পরীক্ষা চলছে। পুষ্পর বিজ্ঞান পরীক্ষা ছিল। সকাল ৭টা থেকে বেলা ৯টা পর্যন্ত সে স্কুলে ছিল। পরীক্ষা দিয়ে স্কুল থেকে সে আর বাড়ি ফেরেনি। স্কুল থেকে বাড়ির দূরত্ব প্রায়‍‌ দেড় কিলোমিটার। উদ্বিগ্ন বাড়ির মানুষ ও প্রতিবেশীরা পুষ্পর খোঁজে নামেন। গাড়িতে মাইক বেঁধে বার্নপুর ও সন্নিহিত অঞ্চলে পুষ্পর বর্ণনা দিয়ে প্রচারও চালান তারা। থানায় নিখোঁজ ডায়েরি করা হয়।

পুষ্পকে পাওয়া গেল মঙ্গলবার ভোরের দিকে ওর স্কুলের পিছনেই একটি হাইড্রেনে। রক্তাক্ত নিথর। গলার নলি কাটা অবস্থায়। স্থানীয় মানুষ পুলিসের উপস্থিতিতে মৃতদেহ উদ্ধার করে নিয়ে আসেন পুষ্পর স্কুলে। ঐ টুকু একটা মেয়েকে নৃশংসভাবে যারা খুন করেছে তাদের বিরুদ্ধে ক্ষোভে মানুষ ফেটে পড়েন। প্রশাসনের নিষ্ক্রিয়তা ও অপদার্থতা নিয়ে মানুষের ক্ষোভ ছিল‍‌-ই। এই বার্নপুরেই ‘পরিবর্তন’-র সরকার ক্ষমতাসীন হবার পর নির্মীয়মাণ বহুতলে প্রকাশ্য দিবালোকে খুন হয়েছে। খুন হয়েছেন সি পি আই (এম) কর্মী নির্গুণ দুবে। সি পি আই (এ‌ম) সদস্য ও প্রবীণ বামপন্থী নেতা বামাপদ মুখার্জির পুত্র অর্পণ মুখার্জিকে গুলি করে খুন করা হয়েছে। মানুষের বি‍‌ক্ষোভ বহুবার আছড়ে পড়েছে থানায় এবং পুলিস কমিশনারেটের দপ্তরে। খুন, ডাকাতি, রাহাজানি, রাজনৈতিক সন্ত্রাস একদিনের জন্যও থেমে নেই বৃহত্তর এই শিল্পাঞ্চলে। পাণ্ডবেশ্বরের বিধায়ক‍‌ গৌরাঙ্গ চ্যাটার্জি অপরাধের ঘটনাগুলি উল্লেখ করে পুলিস কমিশনারসহ রাজ্য প্রশাসনের সর্বোচ্চ মহলে জানিয়েছেন। সাংসদ বংশগোপাল চৌধুরী প্রশ্ন তুলেছেন। প্রশ্ন তুলেছেন মানুষ, আলাদা কমিশনারেট গঠন করে কাজের কাজ কী হলো?

ক্ষুব্ধ মানুষ পুষ্পর মৃতদেহ নিয়ে বিদ্যালয় চত্বরে বিক্ষোভে সোচ্চার হয়। পুলিস এসে এলোপাথাড়ি লাঠিচার্জ করে। পুলিসের লাঠিতে অনেকে আহত হয়। এইচ এম এস নেতা মুমতাজ আহমদের মাথা ফেটেছে পুলিসের লাঠিতে। পুলিস মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তে পাঠায়। ময়নাতদন্তের রিপোর্টে জানা যায়, ছাত্রীটির যৌনাঙ্গে আঘাত রয়েছে। পুষ্পর মৃতদেহ ময়নাতদন্তের পর তার বাড়ির লোকেদের হাতে তুলে দেওয়া হয়। মৃতদেহ নিয়ে দলে দলে মানুষ জড়ো হন হীরাপুর থানায়। থানাতেও পুলিস লাঠিচার্জ করে বিক্ষোভ হঠিয়ে দেয়। পুলিসী বিক্রমের কাছে দমে না গিয়ে আবার মানুষ জড়ো হন থানায়। এবার ছিলেন কেবল মহিলারা। থানায় মহিলারা প্রশ্ন তোলেন নিরাপত্তা নিয়ে। অবিলম্বে অত্যাচার চালিয়ে যারা পুষ্পকে হত্যা করেছে তাদের গ্রেপ্তারের দাবি জানিয়েছে সমস্ত বার্নপুর। প্রতিবাদে বার্নপুরের বাজারহাট বন্ধ হয়ে গেছে। বন্ধ হয়েছে আসানসোল-বার্নপুর রুটে বাস চলাচল। স্থানী‌য় মানুষের দাবি এই নৃশংস হত্যার তদন্ত চাই। দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই।

মতামত
এই খবরটি সম্পর্কে আপনার মতামত
 

আমাদের এই খবরটি সম্পর্কে আপনার মতামত পেলে বাধিত থাকব। তবে যথাযথ যাচাই না করে ২৪ঘন্টার আগে আপনার মতামত ওয়েবসাইটে দেখা যাবে না।

Top
 
Name
Email
Comment
For verification please enter the security code below