কর্মীদের বেতন,পেনশন উপেক্ষা
করে মেলায় পরিবহন দপ্তর

নিজস্ব প্রতিনিধি

কলকাতা, ৮ই আগস্ট— গঙ্গাবক্ষে এবার মেলা আয়োজন করবে রাজ্যের পরিবহন দপ্তর। বুধবার মহাকরণে রাজ্যের পরিবহনমন্ত্রী মদন মিত্র জানিয়েছেন, ‘‘গঙ্গার ওপর আমরা এবার রবীন্দ্র মেলা আয়োজন করবো। অনেক ভাসমান জেটি (পন্টুন) লাগবে। সাত দিন ধরে এই মেলা চলবে।’’

মেলা আর উৎসবের আয়োজনে রাজ্যের তৃণমূল জোট সরকার অবশ্য নজির গড়ে ফেলেছে। এর আগে মিলন মেলা প্রাঙ্গণে বিনিয়োগ টানতে রাজ্য সরকার ‘বেঙ্গল লিডস’ নামে মেলার আয়োজন করেছিলো। সরকারের বর্ষপূর্তিতে মিলন মেলা প্রাঙ্গণে কোটি কোটি টাকা খরচ করে আয়োজন করেছিলো প্রগতি উৎসব। এরপর দীঘা, দার্জিলিঙে সরকারী অর্থ খরচে পর্যটন মেলা লেগেই আছে। এবার সেই মেলার তালিকায় নতুন সংযোজন রাজ্যের পরিবহন দপ্তর।

পরিবহন দপ্তরের অধীন পাঁচ রাষ্ট্রায়ত্ত পরিবহন নিগমের শ্রমিক কর্মচারীদের বেতন এখন অনিয়মিত। গত জুন মাসের বেতন পরিবহন কর্মীরা হাতে পেয়েছেন আগস্ট মাসে। অনিয়মিত হয়ে গেছে অবসরপ্রাপ্ত কর্মীদের পেনশন। শুধু উত্তরবঙ্গ রাষ্ট্রীয় পরিবহন নিগমের অবসরপ্রাপ্ত প্রায় ২হাজার ৭০০কর্মী গত নভেম্বর মাস থেকে মার্চ মাস পর্যন্ত প্রাপ্য পেনশনের অর্ধেক টাকা পেয়েছেন। এপ্রিল মাস থেকে জুন মাস পর্যন্ত বকেয়া তিন মাসের পুরো পেনশন। এমতাবস্থায় রাজ্যের পরিবহন দপ্তরের গঙ্গাবক্ষে মেলা আয়োজন নিয়ে মদন মিত্রকে প্রশ্ন করা হলে তিনি জানান, ‘‘পেনশনের সব টাকা ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।’’এদিন পরিবহন মন্ত্রীর উপস্থিতিতে পাঁচটি পরিবহন নিগমের চেয়ারম্যান, এম ডি-রা এক বৈঠক করেন। এই বৈঠকে ডাকা হয়েছিলো কে আই টি ও হুগলী নদী জলপথ পরিবহন সংস্থাকে। পরিবহনমন্ত্রী জানিয়ে দিলেন, ‘‘পরিবহন নিগমগুলিতে এবার বেতন খাতে ভরতুকির ৭৫শতাংশ টাকা দেওয়া হবে। মাসের ৩১তারিখের মধ্যে সমস্ত পরিবহন নিগমগুলি থেকে সংশ্লিষ্ট সংস্থা থেকে বেতন খাতে টাকার হিসাব পাঠাতে হবে।’’ বাসে খুচরো সমস্যার সমাধানে পরিবহন দপ্তর মেট্রো রেলের মতো স্মার্ট কার্ড চালু করার কথা ভাবছে বলে পরিবহনমন্ত্রী এদিন জানিয়েছেন।