মারুতির শ্রমিক ছাঁটাইয়ের
নিন্দায় দেশের সমস্ত
কেন্দ্রীয় ট্রেড ইউনিয়ন

সংবাদ সংস্থা

নয়াদিল্লি, ২২শে আগস্ট— শ্রমিক ছাঁটাইয়ের প্রতিবাদে মারুতি কর্তৃপক্ষকে ধিক্কার জানালো দেশের কেন্দ্রীয় ট্রেড ইউনিয়নগুলি। মানেসরের কারখানা খোলার কথা জানানোর পাশাপাশি মারুতি কর্তৃপক্ষ ৫০০ শ্রমিক ছাঁটায়ের কথাও ঘোষণা করে। মারুতি সুজুকি পরিচালন কর্তৃপক্ষের বেনজির এই পদক্ষেপের প্রতিবাদে হরিয়ানায় মেহনতী মানুষ তীব্র আন্দোলন শুরু করেন। রাজ্যে রাজ্যে ছড়িয়ে পড়ে সেই প্রতিবাদ। বুধবার নয়াদিল্লিতে সি আই টি ইউ, এ আই টি ইউ সি, এইচ এম এস, এ আই ইউ টি ইউ সি, এ আই সি সি টি ইউ, এল পি এফ এবং মহিলাদের স্বনির্ভর গোষ্ঠী সেওয়া’র পক্ষ থেকে একটি যৌথ বিবৃতি প্রকাশিত হয়। এই বিবৃতিতে কোন অভিযোগপত্র অথবা তদন্ত ছাড়াই সম্পূর্ণ বেআইনীভাবে শ্রমিক ছাঁটাইয়ের জন্য মারুতি সুজুকির পরিচালন কর্তৃপক্ষের তীব্র সমালোচনা করা হয়েছে। পাশাপাশি ওই বিবৃতিতে অবিলম্বে ছাঁটাই শ্রমিকদের কাজে ফেরানো এবং মানেসরে মারুতির কারখানা চত্বর থেকে পুলিস বাহিনী সরানোর বিষয়েও দাবি করা হয়েছে। বিবৃতিতে আই এন টি ইউ সি, ইউ টি ইউ সি ছাড়াও টি ইউ সি সি-র তরফেও সই করা হয়।

এই বিবৃতিতে মানেসরে মারুতি কারখানায় যে ভাবে পরিচালন কর্তৃপক্ষের দাবি মেনে প্রশাসন নির্লজ্জ ভাবে পুলিস মোতায়েন করে, তার নিন্দা করা হয়েছে। ভারতের ইতিহাসে আগে কখনও এমন ঘটনা ঘটেনি। জানানো হয়েছে বিবৃতিতে। কারখানায় এমন অশান্তির ঘটনা কেন হলো তার কোন তদন্ত না করেই পুলিস কর্পোরেট স্বার্থ রক্ষা করতে ব্যস্ত। কেন্দ্রীয় ট্রেড ইউনিয়নগুলির তরফে সরাসরি অভিযোগ করা হয়েছে। ১৮ই জুলাই মানেসরের কারখানায় বিক্ষোভের পর অনির্দিষ্টকালের জন্য লকআউট ঘোষণা করেছিল মারুতি সুজুকি পরিচালন কর্তৃপক্ষ।

Featured Posts

Advertisement