এবার পানীয় জলের জন্য
নলহাটিতে অবরোধ-বিক্ষোভ

নিজস্ব সংবাদদাতা

নলহাটি, ২০শে মার্চ—দিনের পর দিন পানীয় জল না পেয়ে ক্ষুব্ধ ছিলেন গ্রামের মানুষ। আবেদন-নিবেদন করেও কাজের কাজ কিছুই হয়নি। তাই বাধ্য হয়েই পথে নামেন বাঁকুড়া জেলার রানিবাঁধের একাধিক গ্রামের মানুষ। রবিবার তাঁরা এই দাবিতে অবরোধ করেন বাঁকুড়া-রানিবাঁধের রাস্তা।

এই রেশ কাটতে না কাটতেই সোমবার নলহাটিতে অবরোধ বি‍ক্ষোভ হয়।

দীর্ঘদিন নলহাটি-১ ব্লকের তৃণমূল পরিচালিত হরিদাসপুর গ্রাম পঞ্চায়েতে পানীয় জলের সংকট দেখা দিয়েছে। ফলে জলের জন্য বিক্ষোভ চলছে। পাইপলাইনের পরিস্রুত পানীয় জল না পাওয়ায় সিংডহরি গ্রামের পাম্প হাউসে তালা ঝুলিয়ে দিয়েছেন গ্রামবাসীরা।

গ্রামবাসীদের অভিযোগ, এই এলাকা পাহাড়ি অঞ্চল। জলের উৎস ছিল ইঁদারা। সেই জল ফ্লোরাইড দুষিত। ফলে বামফ্রন্ট আমলে নশিপুর-ভবানন্দপুরে পি এইচ ই দপ্তর পরিস্রুত পানীয় জলের পাইপলাইন প্রকল্প স্থাপন করে সিংডহরি গ্রামে। এই জল প্রকল্প থেকে হরিদাসপুর পঞ্চায়েতের ভবনীপুর, নসিপুর, শিয়ালডাঙা, নাচপাহাড়ি তারাপুর প্রভৃতি ৬ খানি গ্রামের বাসিন্দারা পানীয় জল পেতেন। এঁরা অভিযোগ করে জানান, তৃণমূল পঞ্চায়েতে ক্ষমতায় আসার পর তাদের গাফিলতিতে ভেঙে পড়েছে পানীয় জল প্রকল্প। বর্তমান নাচপাহাড়ি, ভেড়াপাড়া, তারাপুর প্রভৃতি আদিবাসী গ্রামগুলিতে পাইপ লাইনে জল পাওয়া যায় না। ফলে বাধ্য হয়ে গত শুক্রবার পাম্প হাউসে তালা ঝুলিয়ে দেওয়া হয়েছে। চলছে বিক্ষোভ।

এদিকে বিক্ষোভের খবর শুনে পি এইচ ই কর্মীরা সেখানে গেলে তাঁদের ঘিরে বিক্ষোভ দেখান গ্রামবাসীরা। পরে পি এইচ ই কর্মীরা আশ্বাস দেন পানীয় জল সরবরাহের। পরে পাম্প হাউসের তালা খুলে দেওয়া হয়।

ওই পঞ্চায়েতের বাসিন্দা এবং সি পি আই (এম) নেতা সনৎ প্রামাণিক বলেন, এই এলাকায় পানীয় জলের সংকট দীর্ঘদিনের। দীর্ঘ বছর ধরে নলহাটি এলাকার মানুষেরা ফ্লোরাইড দুষিত জল ব্যবহার করতেন। বাম আমলে পরিস্রুত পানীয় জলের জন্য পি এইচ ই এই প্রকল্প স্থাপন করে। কিন্তু বর্তমানে পঞ্চায়েতের দেখভালের অভাবে এখন জল পায় না আদিবাসী গ্রামগুলি। এই এলাকার অনেক আদিবাসী মহিলারা জানালেন, পাম্প বন্ধ থাকায় তাঁরা বাধ্য হচ্ছেন ফ্লোরাইড মিশ্রিত জল ব্যবহার করতে। তাঁরা দাবি করেন যতদিন না পাইপ লাইনে জল সরবরাহ না হবে ততদিন ট্র্যাক্টরে করে জল সরবরাহ করতে হবে ব্লক প্রশাসনকে। এ বিষয়ে অবিলম্বে ডেপুটেশন দেওয়া হবে বি ডি ও-কে। জানালন গ্রামবাসীরা।