ড্রেজিং কর্পোরেশনের
বেসরকারিকরণের
প্রতিবাদে নাবিকরা

নিজস্ব প্রতিনিধি

কলকাতা, ২০শে মার্চ— ‘ড্রেজিং কর্পোরেশনকে বেসরকারিকরণের চক্রান্ত চালাচ্ছে কেন্দ্রের নরেন্দ্র মোদীর নেতৃত্বাধীন সরকার। প্রতিবাদে বিক্ষোভে শামিল হলেন কর্মরত শ্রমিক নাবিকরা। সোমবার খিদিরপুর অঞ্চলের মেরিন ক্লাবের পাশে শ্রমিক, নাবিকদের সংগঠন ‘ফরওয়ার্ড ‘সি’মেনস্‌ ইউনিয়ন অব ইন্ডিয়ার’ তরফে এই বিক্ষোভ কর্মসূচির আয়োজন করা হয়েছিল। উপস্থিত ছিলেন, এ বি দাস, রমেশ দাস, এম পি মুখার্জি, প্রবীর সরকার, পোর্ট অ‌্যান্ড শোর মজদুর ইউনিয়নের ধীমান ঘোষ প্রমুখ শ্রমিক, নাবিকদের দাবিদাওয়াকে সমর্থন করে বিক্ষোভ কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করেন ‘কলকাতা পোর্ট অ্যান্ড শোর মজদুর ইউনিয়নও’। উল্লেখ্য, ভারতের বিভিন্ন সমুদ্র ও নদী বন্দরে নাব্যতা বজায় রাখতে ড্রেজিংয়ের কাজ করে ড্রেজিং কর্পোরেশন অব ইন্ডিয়া। এই কাজে কর্মরত আছেন কয়েক শতাধিক শ্রমিক। কেন্দ্রীয় এই সংস্থার বেসরকারিকরণ হলে কর্মচ্যুত হবেন তাঁরা। কেন্দ্রের সরকার কর্পোরেট স্বার্থরক্ষা করতে গিয়ে এর বেসরকারিকরণের পথেই হাঁটছে। পূর্বে যেখানে ড্রেজিং কর্পোরেশন বছরে ৩৭৫ কোটি টাকার কাজ পেত, বর্তমানে সংস্থার ৫১% শেয়ার বিক্রির দরুন তা এসে ঠেকেছে ১৭৫ থেকে ২০০ কোটিতে। শ্রমিক, নাবিকদের অভিযোগ, আগামীদিনে তাও থাকবে না। একশো শতাংশই চলে যাবে বেসরকারি হাতে। তাছাড়া, কলকাতা ও হলদিয়া বন্দরে যে দুটি চ্যানেলের (অকল্যান্ড ও ইডেন চ্যানেল) মাধ্যমে পণ্যবাহী জাহাজ যাতায়াত করে, তার একটিতে (অকল্যান্ড চ্যানেল) ড্রেজিং-এর কাজ বন্ধ। ফলে বন্দর শিল্পের সংকট নেমে এসেছে। এছাড়া ইডেন চ্যানেলও নামমাত্র ড্রেজিং-এর কাজ হচ্ছে। অভিযোগ, ‘দামরা বন্দরে’ আদানি গোষ্ঠীর সুবিধা করে দিতেই এই অবস্থা চলছে, এর ফলে কলকাতা ও হলদিয়া বন্দর কার্যত ধ্বংসের দিকে এগোচ্ছে। জলপথকে ব্যবহার করে যে কোটি কোটি টাকা মুনাফা হয় তাও কর্পোরেট স্বার্থে বেসরকারিকরণের পথে হাঁটছে কেন্দ্রের সরকার। সরকারি এই ব্যবস্থায় জলপথকে কেন্দ্র করে গড়ে ওঠা রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থা যেমন, ডি সি আই, বন্দর, ইক্যুয়ার ওয়াটারওয়েব গড়ে গড়ে উঠেছে সেগুলিকেও ধ্বংসের চক্রান্ত চালাচ্ছে কেন্দ্রীয় সরকার। এই মর্মে ডি সি আই’র চেয়ারম্যানকে লিখিত আবেদনে ড্রেজিং ব্যবস্থা চালু রাখা, বিলগ্নীকরণ না করা ও শ্রমিক নাবিকদের বিভিন্ন ন্যায্য দাবিদাওয়ার কথা ‘ফরওয়ার্ড সি মেনস ইউনিয়ন অব ইন্ডিয়ার’ তরফে জানানো হলেও কোন সদর্থক পদক্ষেপ নেওয়া হয়নি।

Current Affairs

Featured Posts

Advertisement