পেনশনারদের মহকুমা সম্মেলন

নিজস্ব সংবাদদাতা

রানাঘাট, ১৩ই আগস্ট— গুরুতর অসুস্থ পেনশনারদের মাসিক পেনশন সার্ভিস চার্জ ছাড়া সার্ভিস মানি অর্ডারের মাধ্যমে বাড়িতে পাঠানোর ব্যবস্থা সরকারকে করতে হবে। সঠিক সময়ে অফিসের কাউন্টার খোলা ও বন্ধের উদ্যোগ গ্রহণ এবং হয়রানি বন্ধ করা, পি পি ও বই নতুনভাবে সরবরাহ করা এবং নিয়মিতভাবে সংশোধিত পেনশনের সকল বিবরণ বইতে লিপিবদ্ধ করাসহ ১২দফা দাবি আদায়ে আন্দোলনের শপথ নিয়ে রবিবার সেন্ট্রাল গভর্নমেন্ট পেনশনার্স অ্যাসোসিয়েশনের রানাঘাট মহকুমা সম্মেলন শেষ হলো।

সকালে শুরুতে পতাকা উত্তোলন করেন, সভাপতি প্রণব সান্যাল। উদ্বোধন করেন এন সি সি পি এ-র ডেপুটি সেক্রেটারি জেনারেল পবিত্র চক্রবর্তী। কমরেড দীপেন ঘোষ নগরের (রানাঘাট) জ্যোতির্ময় দাস মঞ্চে সম্মেলনে ৪০জন মহিলাসহ ১৭৫জন প্রতিনিধি ছিলেন। সম্পাদকীয় প্রতিবেদন পেশ করেন খগেন প্রামাণিক। আয়-ব্যয়ের হিসাব পেশ করেন শক্তিপদ সরকার। ১৫টি প্রস্তাব পেশ করা হয়। ১২জন আলোচনা করেন। জবাবী ভাষণ দেন খগেন প্রামাণিক। অভিনন্দন জানান রাজ্য সরকারি পেনশনার্স অ্যাসোসিয়েশনের নেতা মোসারফ হোসেন, কেন্দ্রীয় সরকারি পেনশনার্স অ্যাসোসিশনের নেতা সুশীত চাকী, মানব সেনশর্মা, ১২ই জুলাই কমিটির নেতা অশোক মণ্ডল ও বিশ্বদীপ সাহা।

সম্মেলন থেকে মোট ২৬জনের কমিটিতে সভাপতি প্রণব সান্যাল, সম্পাদক খগেন প্রামাণিক ও কোষাধ্যক্ষ শক্তিপদ সরকার পুনর্নির্বাচিত হয়েছেন। অশোক মণ্ডল, বেলা মুখার্জি, প্রণব সান্যাল, সুধাংশু গাঙ্গুলি, সুনীল নাগকে নিয়ে গঠিত সভাপতিমণ্ডলী সম্মেলন পরিচালনা করে।