আজকের দিনে



 

ছবির খাতা

জনতার ব্রিগেড

আরো ছবি

ভিডিও গ্যালারি

Video

শ্রদ্ধাঞ্জলি

 

শতবর্ষে শ্রদ্ধা

আপনার রায়

গরিবের পাশে থেকেছে বামফ্রন্টই

হ্যাঁ
না
জানি না
 

ই-পেপার

উত্তর সম্পাদকীয়

ঈশিতা মুখার্জি
বক্তৃতার একটা লাইনে স্বাধীন ভারতের উচ্চ ক্ষমতাশালী একটি প্রতিষ্ঠানের মৃত্যু হলো। ১৯৫০ সালে নে‍হরুর সময়ে প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল যোজনা কমিশন। মাস কয়েক ধরেই এই কমিশনের মৃত্যুঘণ্টা বাজানো হচ্ছিল। শুধুমাত্র বর্তমান প্রধানমন্ত্রীই নয়, মৃত্যুঘণ্টা বাজানোর লাইনে কং‍‌গ্রেস চালিত ইউ পি এ সরকারও ছিল। কংগ্রেস-বি জে পি সবাই মিলে মনে করতে শুরু করলো যে যোজনা কমিশন দেশের উন্নয়নের কাজে লাগে না। প্রধানমন্ত্রী মোদী তো প্রথম দিন থেকেই এই কথা বলছিলেন এবং যোজনা কমিশন পুনর্গঠন না করেই তিনি বসেছিলেন। যোজনা কমিশন কী কাজ করত আমাদের দেশে? ১৯৫০ সালে দেশ স্বাধীন হওয়ার পর আমাদের দেশের অর্থনীতিকে মিশ্র অর্থনীতি হিসাবে আখ্যা দেওয়া হয়েছিল। মিশ্র অর্থনীতির অর্থ হলো সরকারী ও বেসরকারী উভয় উদ্যোগের উপস্থিতি। ...

>>>