Bharat Jodo Yatra

ঘৃণা, হিংসা ছড়ানোর প্রতিবাদেই পদযাত্রা

জাতীয়

Bharat Jodo Yatra

দু’দিনের বিরতির পর আবার শুরু হয়েছে ভারত জোড়ো যাত্রা। বুধবার মধ্য প্রদেশ থেকে ফের পদযাত্রা শুরু হলো। দেশের মধ্যভাগের এই রাজ্যে রাহুল গান্ধীর নেতৃত্বে পদযাত্রা চলবে ১২ দিন। তারপর পদযাত্রা প্রবেশ করবে রাজস্থানে। এদিন যাত্রার শুরুতেই রাহুল ফের জানিয়ে দেন, সমাজে ছড়িয়ে দেওয়া ঘৃণা, হিংসা এবং আতঙ্কের বিরুদ্ধে তাঁদের এই পথ চলা।

 


এদিন মধ্য প্রদেশের বাদারলি জেলা থেকে শুরু হয় পদযাত্রা। মহারাষ্ট্রের প্রদেশ কংগ্রেস প্রধান নানা পাটোলে এদিন দুই রাজ্যের সীমান্তবর্তী জেলায় বাদারলিতে দলের পতাকা তুলে দেন মধ্য প্রদেশের দলের সভাপতি কমলনাথের হাতে। মধ্য প্রদেশে ৩৮০ কিমি পথ পেরোবে পদযাত্রা। আদিবাসী লোকশিল্পীরা নাচ-গানের মধ্যে দিয়ে স্বাগত জানান পদযাত্রাকে।

 


এদিন রাহুল গান্ধী পদযাত্রার গুরুত্ব বোঝাতে গিয়ে বলেন, ‘‘আমরা ভারত জোড়ো যাত্রায় দেশের তেরঙা পতাকা কাঁধে তুলে নিয়েছি কন্যাকুমারী থেকে। শ্রীনগর পৌঁছানো পর্যন্ত কেউ আমাদের পথ রুখতে পারবে না।’’ কেন্দ্রীয় সরকারকে আক্রমণ করে বেকারত্ব এবং মুদ্রাস্ফীতির কথা উল্লেখ করে রাহুল বলেন, ‘‘বিজেপি প্রথমে যুব সম্প্রদায়, কৃষক এবং শ্রমিকদের মধ্যে আতঙ্ক ছড়ায়। তারপর এই আতঙ্ক থেকেই শুরু হিংসা ছড়ানো।’’ একই সঙ্গে তিনি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ঘনিষ্ঠ কতিপয় কর্পোরেটদের প্রসঙ্গ টেনে বলেন, ‘‘দেশের শিল্প, বিমানবন্দর এবং মৎস্যবন্দর তিন-চারজন শিল্পপতির কুক্ষিগত। 

 

 

এমনকি এখন রেল পর্যন্ত তুলে দেওয়া হচ্ছে এদের হাতে। এখন এমনই বৈষম্যের ভারত। কংগ্রেস এটা বরদাস্ত করবে না। সাধারণ মানুষের টাকা এই দেশে চলে যাচ্ছে ওই তিন-চারজন শিল্পপতির হাতেই।’’
এদিন পদযাত্রাকে স্বাগত জানিয়ে বলেছেন, মধ্য প্রদেশে ভারত জোড়ো যাত্রা ভীষণভাবে সফল হবে। এদিন কমলনাথ ছাড়াও প্রবীণ কংগ্রেস নেতা দিগ্বিজয় সিং, রাজ্য বিধানসভার বিরোধী দলনেতা গোবিন্দ সিং, প্রাক্তন মন্ত্রী সুরেশ পাচৌরি এবং অরুণ যাদব সহ হাজার হাজার কর্মী-সমর্থক শামিল হন পদযাত্রায়। বৃহস্পতিবার এই পদযাত্রায় শামিল হওয়ার কথা কংগ্রেস নেত্রী প্রিয়াঙ্কা গান্ধীর।

 


এদিকে, রাজস্থানে ভারত জোড়ো যাত্রা প্রবেশের কথা সামনে মাসে। তার আগেই বিতর্ক দেখা দিয়েছে গুজ্জর সম্প্রদায়ের এক নেতার হুমকিকে ঘিরে। গুজ্জর আরক্ষণ সংঘর্ষ সমিতির নেতা বিজয় সিং বানসলা। তাঁর দাবি, সচিন পাইলটকে মুখ্যমন্ত্রী করা না হলে তাঁরা সদলবলে রাহুল গান্ধীর ভারত জোড়ো যাত্রার বিরোধিতা করবেন। তবে বানসলার হুমকিকে গুরুত্ব দিতে রাজি নন স্বয়ং সচিন পাইলট। তিনি উলটে বলেছেন, বিজেপি’র ছক ভেঙেই রাজস্থানে সফল হবে ভারত জোড়ো যাত্রা। রাজস্থানে পদযাত্রাকে ঐক্যবদ্ধভাবেই স্বাগত জানাবে প্রদেশ কংগ্রেস।

0 Comments

Login to leave a comment