Anubrata Mondal

লটারি কান্ডে চাঞ্চল্যকর তথ্য কেষ্টর বিরুদ্ধে

জেলা

কোটি টাকার টিকিট প্রাপকের কাছ থেকে কেড়ে নিয়েছিল অনুব্রত বাহিনী। অনুব্রতর লটারি প্রাপ্তি নিয়ে বিস্ফোরক দাবি লটারি বিক্রেতা নূর আলি বাবা কটাই সেখের। দাবি, তৃণমূলের লোকেরা টিকিট কেড়ে নিয়েছিল। ‘‘আমাকে পাঁচ লাখ টাকার মত ধরিয়েছিল। বিশাল অত্যাচারের শিকারও হতে হয়েছিল... লটারিতে এক কোটি টাকা পাওয়ার পর হুমকি দিয়ে সেই টিকিট নিয়ে নেওয়া হয়’’। 


ইতিমধ্যেই গোরু পাচার মামলায় ভরকেন্দ্রে চলে এসেছে লটারি রহস্য! বোলপুর থানার বড় শিমূলিয়া গ্রামের বাসিন্দা নূর আলি লটারি এক কোটি টাকা পেয়েছিল। সেই টাকাই হাতবদল হয়ে পৌঁছে গিয়েছিল অনুব্রতর কাছে?  এই কৌশলেই সাদা হয়েছিল অনুব্রত কালো টাকা?   লটারি প্রাপক নূর আলির বাবা কটাই শেখের বিস্ফোরক স্বীকারোক্তি সিলমোহর দিয়েছে তাতেই।  কটাই সেখের অভিযোগ, লটারিতে এক কোটি টাকা পাওয়ার কিছুক্ষণ পরেই অজ্ঞাতপরিচয় কিছু ব্যক্তি বাড়িতে যায়। মাত্র ৫ থেকে ৭ লক্ষ টাকা নূর আলিকে দিয়ে ওই টিকিট নিয়ে চলে আসে। যারা গিয়েছিল তারা তৃণমূলের লোকজন বলেই স্পষ্ট দাবি কটাই সেখের। সিবিআইয়ের একটি  সূত্রে জানা গিয়েছে, এক কোটি টাকা পাওয়ার পরেই লটারি এজেন্সি মারফৎ খবর পান তৃণমূল বীরভূম জেলা সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল। তারপরই লোকজন গিয়ে নূর আলিকে কার্যত হুমকি দিয়ে ওই টিকিট নিয়ে আসে।

0 Comments

Login to leave a comment