Portugal vs Ghana

লড়েই জিততে হলো পর্তুগালকে

খেলা

ঘানার বিরুদ্ধে বিশ্বকাপের প্রথম ম্যাচ খেলতে নামছে পর্তুগাল। শেষবার বিশ্বকাপের মঞ্চে নামছেন রোনাল্ডো।  কাতার বিশ্বকাপের প্রথম ম্যাচে জাতীয় সংগীত গাওয়ার সময় আবেগতাড়িত হয়ে কেঁদে ফেলেন সিআরসেভেন। ২২টা বিশ্বকাপের আসরে মোট ৮বার বিশ্বকাপ খেলার যোগ্যতা অর্জন করেছে পর্তুগাল। ২০০২ থেকে টানা বিশ্বকাপ খেলছে পর্তুগিজরা। তার মধ্যে ৫ বারই স্কোয়াডে ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো।


এদিন ৪-৩-৩ ফর্মেশনে খেললো পর্তুগাল। ম্যাচের ১০ মিনিটেই পর্তুগালের হয়ে গোল করতে পারতেন রোনাল্ডো। ঘানার গোলরক্ষকের দক্ষতায় হতাশ হতে হয় সিআর সেভেনকে। ৩১ মিনিটে আরেকবার ঝলক দেখিয়ে বল জালে জড়ালেও ফাউল হওয়ায় তা বাতিল হয়। প্রথমার্ধে সেভাবে রোনাল্ডো ম্যাজিক দেখতে পাওয়া যায়নি।  তবু তিনটি সুযোগ এসেছিল সিআর সেভেনের সামনে। প্রথমার্ধের ৪৫ মিনিটে প্রথম হলুদ কার্ড দেখেন ঘানার মহম্মদ কুডুস। দু’দলই সুযোগ নষ্টের প্রতিযোগিতায় মেতে ওঠায় প্রথমার্ধ গোলশূণ্য শেষ হয়।
তবে বিরতির পর পাঁচ গোল হল, শেষ মুহূর্ত অবধি রোমহর্ষক ম্যাচ। শেষ অবধি শেষ হাসি হাসেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো। ৩-২ গোলে ঘানার বিরুদ্ধে বিশ্বকাপের প্রথম ম্যাচেই জিতল পর্তুগাল। ৬৪ মিনিটে পেনাল্টি থেকে দলের হয়ে প্রথম গোল করেন রোনাল্ডো। আফ্রিকা মহাদেশের কোনো দেশের বিরুদ্ধে এটাই তাঁর প্রথম গোল। একইসঙ্গে এই গোলের মধ্যে দিয়েই আবারও মেসির থেকে এগিয়ে গেলেন তিনি। বিশ্বকাপের অষ্টম গোল এটি। দেশের হয়ে তার গোল সংখ্যা দাঁড়ালো ১১৮। প্রথম ফুটবলার হিসেবে পাঁচটি বিশ্বকাপে গোল করার বিরল রেকর্ড গড়লেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো। আর একটি গোল করতে পারলেই ছুঁয়ে ফেলবেন পর্তুগিজ কিংবদন্তি ইউসেবিওকে। তবে এদিন তেমন উজ্জ্বল ছিলেন না রোনাল্ডো।


ঘানাও ম্যাচে ফিরতে সময় নেয়নি। ৭৩ মিনিটে ফলাফল ১-১ করেন দেশের হয়ে ১১০ ম্যাচ খেলা ঘানার আন্দ্রে আয়েও। পর্তুগিজ রক্ষণভাগের ফাঁককে কাজে লাগিয়ে দুরন্ত গোল করেন তিনি। ঘানা সমতা ফেরানোর পাঁচ মিনিটের মধ্যে ব্রুনোর পাস থেকে দলকে আবার এগিয়ে দেন পর্তুগিজ ফরোয়ার্ড জোয়াও ফেলিক্স। এরপর আবার ৮০ মিনিটে তৃতীয় গোলে এগিয়ে যায় পর্তুগাল। এবার গোল করলেন রাফায়েল লিয়াও। সেলেকাও কোচ ফার্নান্দো স্যান্টোস পুরো ম্যাচ না খেলিয়ে তুলে নেন পর্তুগিজ তারকাকে।  ৮৯ মিনিটে গোল বুকারির। দ্বিতীয় গোল ঘানার ৷ অতিরিক্ত ন’মিনিট সময় থাকলেও যথাযথ কাজে লাগাতে ব্যর্থ ঘানা। ভালো খেললেও শেষ অবধি এক পয়েন্ট তুলতে পারলো না তাঁরা। একই গ্রুপে রয়েছে উরুগুয়ে ও দক্ষিণ কোরিয়া। তাই এই ম্যাচ থেকে পুরো পয়েন্ট তুলে নিতে চেয়েছিল পর্তুগাল। তিন পয়েন্ট পাওয়ায় পরের রাউন্ডে যাওয়ার পথ কিছুটা হলেও মসৃণ হল পর্তুগালের। তবে প্রতিবেশী স্পেনের মতো জোরালো বার্তা দিতে পারেনি। 

0 Comments

Login to leave a comment